Category: স্পোর্টস

খাগড়াছড়িতে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট ফাইনাল অনুষ্টিত


বিপ্লব তালুকদার খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:
খাগড়াছড়িতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুনসা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্ণামেন্ট-২০১৭ ফাইনাল ১ং খাগড়াছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের আযোজনে অনুষ্টিত হয়েছে নুনছড়ি প্রকল্প গ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে । ঞ্জানময় চাকমা সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নির্মলেন্দু চৌধুরী , বিশেষ অতিথি ছিলেন চন্দন কুমার দে সাধারন সম্পাদক খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা আওয়ামীলীগ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ২নং গড়গজ্যাছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক স্বপন চৌধুরী ।
প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে পাজেব সদস্য নির্মলেন্দু চৌধুরী বলেন বঙ্গবন্ধু ফুটবল টূর্ণামেন্ট’র ফলে পাহাড়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি আরো বেশি সুদৃঢ় হয়েছে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এই টুর্ণামেন্টে একই মাঠে পাহাড়ী-বাঙালির মিলনমেলায় পরিণত হয়। তিনি বলেন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর কন্য জননেত্রী শেখ হাসিনার দুরদর্শিতায় পাহাড়ে স্থায়ী শান্তি ফিরে এসেছে । এই সময় আওয়ামীলীগ সরকারের খাগড়াছড়ি জেলার ২৯৮নং আসনের সাংসদ কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরার নেতৃতে খাগড়াছড়ি জেলার উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরেন ।
পরে খেলায অংশ গ্রহণকারি চ্যাম্পিয়ন বালক দল নুনছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও রানার্স আপ নুনছড়ি প্রকল্পগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয। চ্যাম্পিয়ন বালিকা দল নুনছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও রানার্স আপ সুরেন্দ্র কারবারী পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় অধিনায়কদের হাতে প্রধান অতিথি ক্রেস্ট প্রদান প্রদান করেন

ক্রীড়া পরিদপ্তর ডেভেলপমেন্ট কাপ ফুটবল শুরু

গোলাম মোস্তফা,ঢাকা,০৮, মে ২০১৭ ঃ
দেশের তৃণমূল পর্যায়ের ফুটবল খেলোয়াড়দের প্রতিভা বিকাশের লক্ষ্যে ক্রীড়া পরিদপ্তর ডেভেলপমেন্ট কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট আজ থেকে ঢাকা শারীরিক শিক্ষা কলেজ মাঠে শুরু হয়েছে। ক্রীড়া পরিদপ্তরের আওতাধীন জেলা ক্রীড়া অফিসের মাধ্যমে অনূর্ধ্ব-১৬ বছরের ছেলেদের ফুটবল প্রশিক্ষণ কার্যক্রম গ্রহণপূর্বক প্রতি জেলা থেকে প্রতিভাবান খেলোয়াড়দের নিয়ে বিভাগীয় পর্যায়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করে ৮টি বিভাগীয় দল গঠন করা হয়। উক্ত ৮টি বিভাগীয় দল নিয়ে জাতীয় পর্যায়ের ডেভেলপমেন্ট কাপ ফুটবল খেলার এই আয়োজন। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মোঃ আসাদুল ইসলাম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বেলুন উড়িয়ে উক্ত প্রতিযোগিতার শুভ উদ্বোধন করেন। এসময় ক্রীড়া পরিদপ্তরের পরিচালক ডাঃ মোঃ আমিনুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।ক্রীড়া পরিদপ্তর ডেভেলপমেন্ট কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট থেকে প্রাপ্ত প্রতিভাবান খেলোয়াড়দের নিয়ে প্রতিযোগিতা শেষে ২১দিনব্যাপী আবাসিক ফুটবল প্রশিক্ষণ কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে। এসব খেলোয়াড়দেরকে জাতীয় ও আর্ন্তজাতিক পর্যায়ের খেলোয়াড় হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের জাতীয় ফুটবল কোচগণ প্রশিক্ষণ প্রদান করবে। এর আগে আজ সকালে ৮টি বিভাগের খেলোয়াড় ও কোচদের নিয়ে একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। আজ উদ্বোধনী দিনে ময়মনসিংহ এবং রংপুর বিভাগের মধ্যে খেলা অনুষ্ঠিত হয়।

বর্তমান ক্রিকেট বিশ্বে বাংলাদেশ একটি দুর্দমনীয় দল—— সাবেক পাক ক্রিকেটার রশীদ লতিফ

তিন ওয়ানডে, দুই টেস্ট ও দুই টি-টোয়েন্টি খেলার জন্য আগামী জুলাইয়ে বাংলাদেশ সফরে আসার কথা পাকিস্তান ক্রিকেট দলের। কিন্তু সম্প্রতি এ সফর বাতিলের ঘোষণা দেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) প্রধান শাহরিয়ার খান। পাকিস্তান টানা দুইবার বাংলাদেশ সফর করার পরও বাংলাদেশ সে দেশটিতে সফর না করায় তিনি এই সিদ্ধান্তের কথা জানান। তবে শাহরিয়ার খান সুর পাল্টেছেন বলে পাকিস্তানের কয়েকটি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে। শাহরিয়ার খান নাকি সফর ‘বাতিল’ নয় বরং ‘স্থগিত’ করা হয়েছে বলে তখন জানান। বাংলাদেশ সফলকে পুরোপুরি নাকোচ করেননি তিনি। সামনে সুযোগ হলে তারা বাংলাদেশ সফর করবে বলে জানিয়েছেন শাহরিয়ার খান। পাকিস্তান দলের বাংলাদেশ সফর করা, না করা নিয়ে চারিদিকে আলোচনা হচ্ছে। পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটাররাও এ ব্যাপারে নানা মন্তব্য করছেন। দেশটির সাবেক ক্রিকেটার ওয়াসিম আকরাম, শোয়েব আখতার ও রাশিদ লতিফ এ বিষয়ে কথা বললেন। তারা সবাই পাকিস্তান দলকে বাংলাদেশ সফরের পরামর্শ দিয়েছেন। ‘পিটিভি’র একটি আলোচনা অনুষ্ঠানে ওয়াসিম আকরাম ও শোয়েব আখতার একসঙ্গে কথা বলেন। সেখানে জীবন্ত কিংবদন্তি ওয়াসিম আকরাম বলেন, ‘ভয় দেখানো কোনো কাজে আসবে না বলে আমার মনে হয়। পাকিস্তানের নিরাপত্তা নিয়ে বাংলাদেশ উদ্বিগ্ন। এটা খুবই যৌক্তিক বিষয়। পিএসএলের ফাইনাল হয়তো পূর্ণ নিরাপত্তার মাধ্যমে শেষ হয়েছে। তবে সবসময় এমন হবে তার কোনো কথা নেই। আমাদের উচিৎ হবে, তাদেরকে (বাংলাদেশ) আনুষ্ঠানিক আমন্ত্রণ জানানো। আমাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা সন্তোষজনক করাও আমাদের দায়িত্ব। তবে আমাদের অবশ্যই একটি পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে। আমরা সবসময় তাদেরকে (বাংলাদেশ) ভাই হিসেবে দেখে এসেছি, এখনো দেখি। অতীতে আমরা তাদের অনেক ক্রিকেটীয় উপকার করেছি।’
ইতিহাসের সবচেয়ে দ্রুতগতির বোলার শোয়েব আখতারও বাংলাদেশে দল পাঠানোর পরামর্শ দিলেন। তবে বাংলাদেশের কাছ থেকেও তিনি সহযোগিতা চাইলেন। বলেন, ‘জিম্বাবুয়ে, বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটকের উন্নয়নে আমরা সবসময় সহযোগিতা করে এসেছি। আমাদের খারাপ সময়ে তাদের উচিৎ, আমাদের সাহায্য করা। দল পাঠানোর মাধ্যমেই তারা আমাদের সাহায্য করতে পারে। তবে এই মুহূর্তে আমাদের বাংলাদেশ সফর বয়কট করা হবে খুবই খারাপ ব্যাপার। বাংলাদেশের মতো দারুণ একটি দলের বিপক্ষে বর্তমানে ওয়ানডে বা টেস্ট খেলা হবে অনেক ভাল একটি ব্যাপার।’
অন্যদিকে সাবেক উইকেটরক্ষ-ব্যাটসম্যান রশিদ লতিফ একটু অন্যভাবে কথা বললেন। তিনি ‘পিটিভি’কে বলেন, ‘নিরাপত্তার শঙ্কা থাকা সত্বেও ক’দিন আগে ইংল্যান্ড দল বাংলাদেশে সফর করে। তবে আমাদের সঙ্গে কি এমন করা হচ্ছে শুধু রাজনৈতিক কারণে? এই একই কারণে পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে ১৭ বছর ধরে ক্রিকেট নেই। আমরা কি আবার আরেকটি তেমন কাজ করতে যাচ্ছি? ভারতের সঙ্গে যেমন হয়েছে ক্রিকেট দর্শকরা অন্য কোনো দেশের সঙ্গে তেমনটা দেখতে চায় না। কারণ, বর্তমানে বাংলাদেশ একটি দুর্দমনীয় দল।’

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে টি-২০ ক্রিকেট টুনামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত


মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল,টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধি
আজ শনিবার টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে বিপুল উৎসাহ উদ্দিপনা ও প্রচুর দর্শকের উপস্থিতিকে টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।মির্জাপুর এস কে পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গনে যুব সমাজের উদ্যোগ্যে মাস ব্যাপি এ ক্রিকেট খেলা অনুষ্ঠিত হয়।খেলায় মির্জাপুর বাজার একাদশ বনাম মির্জাপুর জুনিয়র বাপ্পি-মাখন ট্রেডার্স একাদশ অংশ নেয়।খেলার প্রথমার্ধে মির্জাপুর বাজার একাদশ ব্যাট করতে নেমে ২০ অভারে ১১৪ রান নেয়।দ্বিতীয়ার্ধে মির্জাপুর জুনিয়র বাপ্পি-মাখন ট্রেডার্স ১৯ অভারে ১১৫ রান করে ৩ উইকেটের বিনিময়ে চ্যাম্পিয়ন হয়।ম্যান অবদা ম্যাচ হয়েছে চ্যাম্পিয়ন দলের সাগর।পুরষ্কার বিতরণ করেন মির্জাপুর এস কে পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মো. শামীম আল মামুন,উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সাধারণ সম্পাদক খন্দকার মোফাজ্জল হোসেন দুলাল,বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনির প্রমুখ।ফাইনাল খেলায় প্রধান অতিথি ছিলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মো. একাব্বর হোসেন এবং উদ্ধোধক ছিলেন পৌর মেয়র মো. সাহাদৎ হোসেন সুমন।

চিলাহাটিতে দেলোয়ার স্মৃতি কাপ ব্যাটমিন্টন ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত

আপেল বসুনীয়া, নীলফামারী প্রতিনিধি ঃ
নীলফামারী জেলার চিলাহাটির বোতলগঞ্জ বাজারে দোকানদার সমিতি কর্তৃক আযোজিত ব্যাটমিন্টন প্রতিযোগীতার ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।গতকাল মঙ্গলবার রাতে বোতলগঞ্জ বাজারে এ খেলা অনুষ্ঠিত হয়। খেলায় শ্রাবনী ট্রের্ডাস লিখন কম্পিউটারকে ২-১ সেটে হারায়। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ উপ-সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক সরকার ফারহানা আখতার সুমি প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে খেলোয়ারদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।এ সময় উপস্থিত ছিলেন ২নং কেতকীবাড়ী ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড সদস্য আবু তারেক,সমাজ সেবক হাসিবুল আলম প্রামাণীক রিজু,আশেকুর রহমান,আব্দুর রাজ্জাক ডাকুয়া প্রমূখ্য।

বাংলাদেশ-লংকা ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশের চোখ থাকবে জয় দিয়ে র‌্যাঙ্কিং য়ে নিজেদের উন্নতি করার।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শনিবার সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। এর আগে মাশরাফি বিন মুতর্জার দল সর্বশেষ ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। যেখানে তারা সিরিজই হারেনি হয়েছে হোয়াইটওয়াশও। সেবারও টাইগারদের সামনে সুযোগ ছিল র‌্যাঙ্কিংয়ে ছয়ে ওঠার। এবার লঙ্কার বিপক্ষেও সেই সুযোগ হাতছানি দিচ্ছে। তাই এই সিরিজে বাংলাদেশের চোখ থাকবে জয় দিয়ে র‌্যাঙ্কিং য়ে নিজেদের উন্নতি করার। বর্তমানে বাংলাদেশ ৯১ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে সাতে অবস্থান করছে। অন্যদিকে র‌্যাঙ্কিংয়ের ছয়ে থাকা শ্রীলঙ্কার রেটিং পয়েন্ট ৯৮। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে লঙ্কানদের হোয়াইটওয়াশ করতে পারলে র‌্যাঙ্কিংয়ে দু’দলের রেটিং হবে সমান ৯৬ পয়েন্ট। তবে পয়েন্টের ভগ্নাংশের হিসেবে এগিয়ে থাকবে টাইগাররা। সেই হিসেবে লঙ্কাকে পিছনে ফেলে র‌্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি ঘটবে বাংলাদেশের। বিশেষ করে ২০১৯ সালের বিশ্বকাপে সরাসরি খেলতে এখন থেকেই বাংলাদেশ দলকে প্রতিটি সিরিজেই চোখ রাখতে হবে র‌্যাঙ্কিংয়ের দিকেই।
ডামবুলাতে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ থেকেই জয়ের চ্যালেঞ্জ নিয়ে সাঠে নামবে বাংলাদেশ দল। কারণ সিরিজে হেরে গেলে তাদের পয়েন্ট পাওয়ার পরিবর্তে হারানোর ভয়টাও কম নয়। ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষস্থানধারী দক্ষিণ আফ্রিকার পয়েন্ট ১১৯। এক রেটিং পয়েন্ট পিছিয়ে থেকে প্রোটিয়াদের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে অস্ট্রেলিয়া। ১১৩ পয়েন্ট নিয়ে তিনে অবস্থান করছে নিউজিল্যান্ড। এক পয়েন্ট পিছিয়ে থেকে ভারতের অবস্থান চারে। আর ১০৮ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে রয়েছে ইংল্যান্ড। ৯৮ পয়েন্ট নিয়ে শ্রীলঙ্কার অবস্থান এখন ছয় নম্বরে। স্বাগতিক লঙ্কানদের বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিততে পারলেও রেটিং পয়েন্টে ইতিবাচক পরিবর্তন আসবে মাশরাফিদের। যেখানে বাংলাদেশের দুই রেটিং বাড়বে সেখানে এক রেটিং পয়েন্ট হারাবে উপল থারাঙ্গার দল। তখন দু’দলের রেটিং পয়েন্টের ব্যবধান কমে আসবে। বাংলাদেশের চেয়ে দুই পয়েন্ট পিছিয়ে থেকে ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ের অষ্টম স্থানে পাকিস্তান। ৮৪ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে নয় নম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
অবশ্য এরই মধ্যে সাতে থেকে বাংলাদেশ দল জুনে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলা নিশ্চিত করেছে। তবে ইংল্যান্ডে হবে ২০১৯ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপ। সেখানে সরাসরি খেলতে হলে অবশ্যই টাইগারদের ৮শ স্থান ধরে রাখতে হবে। যে কারণে সামনের প্রতিটি ওয়ানডে ম্যাচই হবে বাংলাদেশের জন্য বড় ধরনের চ্যালেঞ্জের। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ ড্র করে দারুণ ফর্মে আছে তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসানরা। গতকাল লঙ্কার বিপক্ষে তারা খেলেছে সিরিজের এক মাত্র প্রস্তুতি ম্যাচটি। সুযোগ পেয়ে প্রস্তুতি ম্যাচে ব্যাট করতে নেমে শক্তিশালী লঙ্কানরা ৩৫৪ রানের বড় এক লক্ষ্য ছুড়ে দেয়। কিন্তু জবাব দিতে নেমে সৌম্য সরকার ও সাব্বির রহমান ঝড় তুলে আউট হলেও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার ঝড়ো ফিফটি দলকে জয়ের পথ দেখায়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ২ উইকেট হাতে থাকতে হেরে যায় মাত্র ২ রানের জন্য। কিন্তু এই বিধ্বংসী ব্যাটিং ও শেষ বল পর্যন্ত লড়াই করার ইচ্ছা থেকে বোঝা যায় দল ওয়ানডে সিরিজ জয়ের জন্য কতটা মুখিয়ে আছে। ২৫শে মার্চ প্রথম ওয়ানডেতে মুখোমুখি হবে দু’দল। রাঙ্গিরি ডাম্বুলা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে খেলা শুরু বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩টায়। একই মাঠে দ্বিতীয় ম্যাচ ২৮শে মার্চ। এরপর সিরিজের শেষ ও তৃতীয় ম্যাচটি হবে কলম্বোতে ১লা এপ্রিল। ওয়ানডে সিরিজ শেষ হতেই শুরু হবে টি-টোয়েন্টি লড়াই। সিরিজের থাকছে দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ ৪ ও ৬ এপ্রিল।

শততম টেস্ট বিজয়। শ্রীলংকার মাটিতে টাইগার বাহিনীর বিজয়ে জাতি উল্লসিত

প্রথম টেস্টে হারের পর দ্বিতীয় টেস্টেই ঘুরে দাঁড়াল বাংলাদেশ। লড়াই করে জয় ছিনিয়ে নিলেন টাইগারসরা। প্রথম টেস্টে হারের পর দ্বিতীয় টেস্টেই জয় ছিনিয়ে নিল বাংলাদেশ। যার ফল দুই টেস্টের সিরিজ শেষ হল ১-১এই।

টস জিতে ঘরের মাঠে ব্যাটিংই নিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। কিন্তু তাদের বড় রানের পথে প্রথমে বাঁধা হয়ে দাঁড়ালেন বাংলাদেশের বোলাররা। দীনেশ চান্দিমালের একটি সেঞ্চুরি ছাড়া সেই ইনিংসে শ্রীলঙ্কার পক্ষ থেকে লড়াই দিতে পারেনি আর কোনও ব্যাটসম্যানই। শ্রীলঙ্কা শিবিরে প্রথম থেকেই হামলা করতে শুরু করে দিয়েছিলেন মুস্তাফিজুর, মেহেদি হাসানরা। না হলে চান্দিমালের ১৩৮ ছাড়া আর কেউই ৪০ রানের গন্ডিও পেড়তে পারেননি। প্রথম ইনিংসে মেহেদি হাসান মিরাজের তিন উইকেট ছাড়াও দুটো করে উইকেট নিয়েছিলেন মুস্তাফিজুর, শুভাশিস ও সাকিব।

বোলারদের লড়াইয়ের মর্যাদা দিয়ে গেলেন ব্যাটসম্যানরাও। ৩৩৮ রানের লক্ষ্যে নেমে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস শেষ হল ৪৬৭তে। তামিমের ৪৯ ও সৌম্য সরকারের ৬১ রানের ইনিংস ভিতটা তৈরি করেই দিয়েছিল। এর পর বাংলাদেশের ইনিংসকে ভরসা দেন সাবির রহমান। তিনি আউট হন ৪২ রানে। শেষ বেলায় অবশ্য আসল কাজটি করে যান সাকিব আল হাসান। তাঁর ব্যাট থেকে আসে ১১৬ রান। তাঁকে যোগ্য সঙ্গত মুশফিকুর রহিম (৫২) ও মোসাদ্দাক হোসেন (৭৫) এর। হেরাথ ও সান্দাকানের চারটি করে উইকেট বড় রান করা থেকে বাংলাদেশকে আটকাতে পারেনি। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে সেঞ্চুরি করেন শ্রীলঙ্কার ওপেনার করুনারত্নে। তাঁর ব্যাচ থেকে আসে ১২৬ রান। এর পর আর কেউই দাঁড়াতে পারেননি বাংলাদেশ বোলিংয়ের সামনে। আট ও ১০ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে দলকে লড়াইয়ে ফেরানোর চেষ্টা করেন পেরেরা (৫০) ও লাকমল (৪২)। কিন্তু তাঁদের লড়াই শেষ হয়ে যায় দলগত ৩১৯ রানে। প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরির পর দ্বিতীয় ইনিংসে চার উইকেট নেন সাকিব। তিন উইকেট মুস্তাফিজুরের। দ্বিতীয় ইনিংসে শুরু থেকেই বাংলাদেশকে লড়াইয়ে তুলে আনেন ওপেনার তামিম ইকবাল। তাঁর ব্যাট থেকে আসে ৮২ রান। সাব্বির রহমান আউট হন ৪১ রানে। শেষ বেলায় বেশ কিছুটা চাপে পরে যায় বাংলাদেশ ব্যাটিং। সাকিব আউট হন মাত্র ১৫ রানে। কিন্তু শেষটা ভাল মতই সামলে দেন মুশফিকুর রহিম ও মোসাদ্দেক হোসেন। এই ম্যাচেই টেস্ট অভিষেক হয়েছে মোসাদ্দেকের। ক্যাচ তুলে দিয়েছিলেন শেষ মুহূর্তে। কিন্তু ভাগ্য ভাল ছিল তাঁর সেই ক্যাচ মিস করেন শ্রীলঙ্কা ফিল্ডার। কিন্তু দু’রান বাকি থাকতে আউট হয়ে প্যাভেলিয়নে ফেরেন মোসাদ্দেক। তাঁর জায়গায় নেমে  জয়ের দু’রান তুলে নেন মেহদি হাসান মিরাজ।

জাতীয় শারীরিক প্রতিবন্ধী ক্রিকেট সাভারের বিকেএসপিতে অনুষ্ঠিত “প্রতিভা অন্বেষণ কর্মসূচি”-খেলা অনুষ্ঠিত

ঢাকাজেলা সংবাদ প্রতিনিধি
সাভারের জিরানিতে অবস্থিত বিকেএসপির প্রশিক্ষণ মাঠে আজ বুধবার, সকাল ৯টায় এ কর্মসূূচি শুরু হয়েছে। যার মধ্য দিয়ে জাতীয় শারীরিক প্রতিবন্ধী ক্রিকেট দলের জন্য ২০ জন ক্রিকেটার নির্বাচিত করা হবে। নির্বাচিত ক্রিকেটাররা ৯ থেকে ১১ মার্চ বিকেএসপিতে অনুষ্ঠিতব্য প্রশিক্ষণ কাম্পে অংশ নিবে।
সুতরাং প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের খেলাধুলায় অংশগ্রহনের মাধ্যমে সমাজে মূলধারার অন্তর্ভুক্তকরনের এ উদ্যোগ ও বার্তা সাধারণ মানুষের মাঝে ছড়িয়ে দিতে বুধবার সকাল ৯টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত সাভারের বিকেএসপিতে অনুষ্ঠিত “প্রতিভা অন্বেষণ কর্মসূচি”-খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।এই খেলার মাধ্যমে প্রতিবন্ধীতার সঙ্গে যে কুসংস্কার ও বৈষম্য জড়িয়ে আছে তা কমে আসবে, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের প্রতি সমাজের মানুষের দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন হবে এবং তাদের দক্ষতা-সক্ষমতা বেশি গুরুত্ব পাবে।
ইতিমধ্যে প্রায় আড়াইশ’র মত আগ্রহী প্রতিবন্ধী ক্রিকেটার এ কর্মসূচিতে অংশ নিতে এসএমএস এর মাধ্যমে রেজিস্টেশন করেছে। আশা করা হচ্ছে এ কর্মসূচিতে দেশের প্রায় সব জেলা থেকে প্রতিবন্ধী ক্রিকেটাররা যাদের ক্রিকেট সম্পর্কে সম্যক জ্ঞান আছে ও ক্রিকেট খেলায় পারদর্শী তারা অংশ নিবে। অংশগ্রহনকারীদের দৃশ্যমান শারীরিক প্রতিবন্ধীতা থাকতে হবে।
উল্লেখ্য ,বিসিবি শারীরিক প্রতিবন্ধী ক্রিকেট দল গঠনে প্রতিবন্ধী ক্রিকেটারদের খোঁজে আন্তর্জাতিক রেড ক্রস কমিটি (আইসিআরসি), বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)’র সহযোগিতায় ও যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (বিকেএসপি) যৌথভাবে এক প্রতিভা অন্বেষণ কর্মসূচি ২০১৭ আয়োজন করেছে।

মাগুরায় বঙ্গবন্ধু কাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনালে শেখ রাসেল চ্যাম্পিয়ন

মাগুরা প্রতিনিধি : মাগুরায় বীর মুক্তিযোদ্ধা আছাদুজ্জামান স্টেডিয়ামে গতকাল রোববার বঙ্গবন্ধু কাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনাল খেলায় শেখ ক্রীড়া চক্র লিমিটেড ঢাকা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে । ১ম ও ২য় আর্ধের খেলা গোল শূণ্য থাকায় খেলা ট্রাইব্রেকারে গড়ায় ।পরে ট্রাইবেকারে ৫-৪ গোলের ব্যবধানে বাংলাদেশ নৌবাহিনীকে পরাজিত করে টুর্ণামেন্টের চ্যাম্পিয়ন ট্রফি অর্জন করে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র ঢাকা ।
বাংলাদেশ সরকারের যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. বীরেন শিকদার এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ী দলের হাতে চ্যাপিম্পয়ন ট্রফি তুলে দেন । এ সময় বসুন্ধরা গ্রুপের কর্মকর্তা, মাগুরা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম , জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি তানজেল হোসেন খান , মাগুরা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পংকজ কুমার কুন্ডু সদর উপজেলা চেয়ারম্যান রস্তম আলী , প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সহকারি সচিব এ্যাড. সাইফুজ্জামান শিখর , পৌর মেয়র খুরশিদ হায়দার টুটুল ,জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মকবুল হোসেন ও টুর্ণামেন্টের আহবায়ক জিল্লুর রহমান লাজুক উপস্থিত ছিলেন ।
টুর্ণামেন্টে সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের ফুটবলার অরুপ কুমার বৈদ্য । গত ২০ জানুয়ারি এ টুর্ণামেন্টে শুরু হয়ে ছিল । বসুন্ধরা সিমেন্ট এর পৃষ্ঠপোষকতায় মাগুরা জেলা সংস্থার সার্বিক সহযোগিতায় আছাদুজ্জামান ফুটবল একাডেমী মহম্মদপুর মাগুরা এ টুর্ণামেন্টের আয়োজন করে । এ টুর্ণামেন্টে মোট ১২ টি ফুটবল দল অংশ নেয় । টুর্ণামেন্টের ফাইনাল খেলায় মাগুরা স্টেডিয়ামের প্রতিটি দর্শক গ্যালারি কানায় কানায় পূর্ণ ছিল । সমগ্র টুর্ণামেন্টে প্রতিটি খেলায় জাতীয় ক্রীড়াধারা ভাষ্যকর কুমার কল্যাণ ও প্রদ্যুৎ কুমার রায়ের ধারা বিবরণী ছিল মনমুগ্ধ ও চমৎকার । টুর্ণামেন্টের প্রতিটি খেলায় দর্শনের বিনোদনের জন্য ছিল র‌্যাফেল ড্র । আর এই র‌্যাফেল মাধ্যমে টুর্ণামেন্টের প্রতিটি খেলায় ১০ টি করে আকর্ষনীয় পুরস্কার প্রদান করা হয় দর্শকদের মাঝে । তাছাড়া র‌্যাফেল ড্র’র মাধ্যমে ২টি সেমি ফাইনাল ও ফাইনালে পুরস্কার হিসেবে ৩ টি মোটর সাইকেলও দর্শদের মাঝে প্রদান করা হয় । শেষে সন্ধ্যায় স্থানীয় ও ঢাকার শিল্পীবৃন্দ সংগীত পরিবেশন করেন ।

সাভারের কলমা ওয়াজ আলী মডেল স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতায় বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরুস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত


সাভার(ঢাকা)প্রতিনিধিঃ
সাভারের কলমা ওয়াজ আলী মডেল স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতায় বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরুস্কার বিতরণ করা হয়েছে।সকালে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরুস্কার বিতরণ করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ডা.এনামুর রহমান।সংসদ সদস্য ডা.এনামুর রহমান বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। সাভারের রাস্তা ঘাট কালভাট বিভিন্ন উন্নয়ন হচ্ছে তার আমলে। এসময় তিনি উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সামনের জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগ তাকে ঢাকা ১৯ আসন থেকে মনোনয়ন দিবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।
পুরুস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এসময় উপস্থিত ছিলেন সাভার উপজেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ২ সোহেল রানা,ঢাকা জেলা পরিষদের সাধারণ সদস্য ও সাভার উপজেলা যুবলীগের সভাপতি সেলিম মন্ডল,কলমা ওয়াজ আলী মডেল স্কুলের প্রধান শিক্ষক সুরুজ মিয়াসহ আরো অনেকে।


সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: এ্যাডভোকেট শেখ মোঃ আব্দুল্লাহ
সম্পাদক-প্রকাশক : শেখ মোঃ তৈয়াবুর রহমান॥

যুগ্ম সম্পাদক: এস এম শাহিদুল আলম॥ সহযোগী সম্পাদক: শেখ মোঃ আরিফ আল আরাফাত
সহ-সম্পাদক: (প্রশাসন) হাজী হাবিবুর রহমান শাহেদ: সহ সম্পাদক: আজমাল মাহমুদ
সম্পাদক কর্তৃক বাড়ী বাড়ী নং- ৫৩/২, ৪র্থ তলা, রাজ-নারায়ন-ধর রোড, কিল্লার মোড় বাজার, লালবাগ, ঢাকা-১২১১
ফোন: ০১৯১৮-২০১৬২৬, ফোন: ০১৭১৫-৯৩৩১৬৮
ই-মেইল- notunvor.news@gmail.com
Designed By Hostlightbd.com
| Cyberboss.org
Translate »