Category: জাতীয়

বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় গুলো সরকারের নির্দেশনা অনুসরন না করলে শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধ সহ তাদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে ———————————————————————- শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।


মোঃ গোলাম মোস্তফা, ঢাকা জেলা প্রতিনিধি।
বেসরকারী বিশ^বিদ্যালয় গুলো সরকারের নির্দেশনা অনুসরন না করলে শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধ সহ তাদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুশিয়ারী উচ্চরণ করেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।
বুধবার দুপুরে সাভারের আশুলিয়ার দত্তপাড়া এলাকায় ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ৬ষ্ঠ সমাবর্তনে বিশ^বিদ্যালয়ের চান্সেলর রাষ্ট্রপতি এ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদের প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত থেকে এক বক্তব্যে মন্ত্রী এ কথা বলেন।
শিক্ষামন্ত্রী এসময় আরও বলেন যে সকল বেসরকারী বিশ^বিদ্যালয় পরিচালনার পরিবেশ ও নির্ধারিত শর্ত পূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছে,যারা মুনাফার লক্ষ্য নিয়ে চলতে চান যারা নিজস্ব ক্যাম্পাসে এখনো যায়নি,যারা একাধিক ক্যাম্পাসে পাঠদান পরিচালনা করছেন তারা আইন অনুসারে সঠিকভাবে বিশ^বিদ্যালয় চালাতে না পারলে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি সহ খুব শীঘ্রই তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবেও বলে হুশিয়ারী উচ্চরন করেন মন্ত্রী।
সমাবর্তনে ৩৪৭৩ জন নবীন গ্র্যাজুয়েট শিক্ষার্থী শিক্ষামন্ত্রীর কাছ থেকে সনদ গ্রহন করেন। এছাড়া কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফল অর্জনকারী ১৩ জন গ্র্যাজুয়েন্ট স্বর্ণপদক প্রদান করেন।
উল্লেখ্য ২০০২ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ১৭টি বিভাগে ১৬০০০ শিক্ষার্থীকে গ্র্যাজুয়েন্ট প্রদান করেন।৬ষ্ঠ সমাবর্তনে এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিশ^বিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর আব্দুল মান্নান,বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড.ইউসুফ মাহাবুবুল ইসলাম,বিশ^বিদ্যালয় ট্রাষ্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান সবুর খাঁনসহ আরো অনেকে।

গ্রামীণ ব্যাংক থেকে ৩৩ কোটি ৪৮ লাখ টাকা তসরুফ হয়েছে

গ্রামীণ ব্যাংক থেকে ৩৩ কোটি ৪৮ লাখ টাকা তসরুফ হয়েছে। এর মধ্যে গত এক বছরেই তসরুফ হয়েছে ২৬ কোটি ৬২ লাখ টাকা। একদিকে সম্পদ তসরুফ হচ্ছে, অন্যদিকে বৈধভাবেও কমছে গ্রামীণ ব্যাংকের স্থায়ী সম্পদের পরিমাণ। পরিদর্শন শেষে প্রতিষ্ঠানটির স্থিতিবিষয়ক বিশদ প্রতিবেদন তৈরি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। দেশের কেন্দ্রীয় এই ব্যাংক পরিচালিত প্রতিবেদন থেকে উপরোল্লিখিত তথ্য পাওয়া গেছে। ইতোমধ্যে প্রতিবেদনটি অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগে পাঠানো হয়েছে।

জানা যায়, ২০১৫ সালকে ভিত্তি বছর ধরে প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, গ্রামীণ ব্যাংকে প্রতারণা, জালিয়াতি ও তহবিল তসরুফের ঘটনা ঘটেছে অন্তত ৪৮৪টি। এসব ঘটনার মাধ্যমে ৩৩ কোটি ৪৮ লাখ টাকা তসরুফের বিষয়টিও রয়েছে। তসরুফকৃত টাকা থেকে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ৯ কোটি ৮৬ লাখ টাকা আদায় করেছে; অনাদায়ী রয়েছে ২৩ কোটি ৬২ লাখ টাকা।

আরও জানা যায়, ভিত্তি বছরের আগের বছর প্রতারণা, জালিয়াতি ও তহবিল তসরুফের ঘটনা ঘটেছে ৪৫১টি। এসব ঘটনার মাধ্যমে ২৬ কোটি ৮৫ লাখ টাকা তসরুফ হয়েছে। বিগত বছরের তুলনায় এ বছর অর্থ তসরুফের ঘটনা বেড়েছে ২৪ দশমিক ৬৯ শতাংশ। আর তসরুফের ঘটনা বেড়েছে ৭ দশমিক ৩২ শতাংশ।

সর্বশেষ পরিদর্শনের ভিত্তি তারিখে ব্যাংকটির মোট স্থায়ী সম্পদের পরিমাণ ১৫১ কোটি ২৬ লাখ টাকা। স্থায়ী সম্পদের ওপর সাধারণ অপচয় নির্ধারণ করে বর্তমান ভিত্তি বছরে স্থায়ী সম্পদের পরিমাণ বিগত বছরের চেয়ে ১ কোটি ৪০ লাখ টাকা কমেছে। অর্থাৎ আগে ছিল ১৫২ কোটি ৬৬ লাখ টাকা। ব্যাংকের অন্যান্য সম্পদ রয়েছে ১১৬০ কোটি ৮৪ লাখ টাকার। আদায়যোগ্য সুদ হ্রাস পাওয়ায় বর্তমান ভিত্তি তারিখে অন্যান্য সম্পদের পরিমাণ বিগত পরিদর্শন ভিত্তি তারিখের ১১৯৪ কোটি ৫২ লাখ টাকা থেকে কমে গেছে ৩৩ কোটি ৬৮ লাখ টাকা।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) সূত্রে জানা গেছে, গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা নোবেল বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূসের বিদেশে পাঠানো অর্থের সন্ধান করা হচ্ছে। তার ঘোষিত আয়ের পরিমাণ, উৎস, পরিশোধিত কর, দান-প্রদানসহ ইত্যাদি বিষয়ে বিভিন্ন অস্বচ্ছতা রয়েছে। গত এক দশকে তিনি আয়ের ওপর যে পরিমাণ কর দিয়েছেন এবং করমুক্ত আয়ের হিসাব দিয়েছেন, তার প্রকৃত সম্পদ এর চেয়ে বেশি। বিশেষ করে অনুমোদন ছাড়াই বিদেশে তার তহবিল হস্তান্তরের বিষয় খতিয়ে দেখছে এনবিআর।

সূত্র মতে, ড. মুহাম্মদ ইউনূস প্রতিষ্ঠিত গ্রামীণ ব্যাংক, দানগ্রহীতা প্রফেসর ড. মুহাম্মদ ইউনূস ট্রাস্ট, ইউনূস ফ্যামিলি ট্রাস্ট ও ইউনূস সেন্টারের ১৯টি প্রতিষ্ঠান অনুমোদিতভাবে বিদেশে তহবিল স্থানান্তরের বিষয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে ড. মুহাম্মদ ইউনূস, গ্রামীণ ব্যাংক ও গ্রামীণ সেন্টারের দান গ্রহণের তিনটি প্রতিষ্ঠান ড. মুহাম্মদ ইউনূস ট্রাস্ট, ইউনূস ফ্যামিলি ট্রাস্ট ও ইউনূস সেন্টারের ব্যাংক হিসাব তলব করে চিঠি পাঠিয়েছে এনবিআর।

পুলিশে বদলী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ পুলিশের ১৩ জন পুলিশ সুপারকে (এসপি) নতুন কর্মস্থলে বদলি করা হয়েছে। ২০ ফেব্রুয়ারি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব ফারজানা জেসমিন স্বাক্ষরিত আদেশে বদলীর বিষয়টি জানানো হয়।বদলিকৃতরা হচ্ছে, নৌ পুলিশের আনোয়ার হোসেনকে ট্যুরিস্ট পুলিশে, পুলিশ সদর দফতরের মোহাম্মদ শহীদুল্লাহকে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশে (সিএমপি), পুলিশ সদর দফতরের মোহাম্মদ হেমায়েতুল ইসলামকে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশে (আরএমপি), আরএমপির তোফায়েল আহাম্মদকে ১২ এপিবিএন’এ, ডিএমপির এস এম মেহেদী হাসানকে কুষ্টিয়ায় বদলি করা হয়েছে। ৭ম এপিবিএন সিলেটের আশরাফুর রহমানকে ট্যুরিস্ট পুলিশে, বগুড়া হাইওয়ে পুলিশের ইসরাইল হাওলাদারকে ৭ম এপিবিএন সিলেটে, ইন্ডস্ট্রিয়াল পুলিশের মোস্তাফিজুর রহমানকে বগুড়ার হাইওয়ে পুলিশে বদলি করা হয়েছে।এছাড়াও খাগড়াছড়ি জেলার এসপি মোঃ মজিদ আলীকে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ঢাকায়, খুলনার আলী আহমদ খানকে কুষ্টিয়া জেলায়, এসপি প্রলয় চিসিমকে এসবিতে ঢাকায়, ডিএমপির এস এম জাহাঙ্গীর আলম সরকারকে ফেনীতে এবং ফেনীর মোঃ রেজাউল হককে পুলিশ সদর দফতরে বদলি করা হয়েছে।

 

সাভারের আশুলিয়ায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও কুয়েতের ৫৬ তম জাতীয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত


মোঃ গোলাম মোস্তফা, ঢাকা জেলা প্রতিনিধি।
আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও কুয়েতের ৫৬ তম জাতীয় দিবস উপলক্ষে সাভারের আশুলিয়ায় কুয়েত থেকে পরিচালিত সোসাইটি অফ সোসাল রিফম হাইস্কুলে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।মঙ্গলবার দুপুরে আশুলিয়ার গৌরিপুর এলাকায় স্কুল মাঠে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।মাতৃভাষা দিবস ও কুয়েতের ৫৬ তম জাতীয় দিবসের আলোচনা সভায় এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকায় নিযুক্ত কুয়েতের রাষ্ট্রদুত আদেল মোহাম্মদ হায়াৎ।আলোচনা সভায় এসময় কুয়েতের রাষ্ট্রদুত বলেন বর্তমান বিশে^ সবাই কুটনৈতিক অর্থনৈতিক সর্ম্পকের কথা বলে এবং উন্নতির কথা বলে কিন্তু সবাই মানবতার কথা ভুলে যায়। কিন্তু কুয়েত সবসময় সবদেশে মানবতার কল্যাণে কাজ করে।পরে তিনি কুয়েতের ৫৬ তম জাতীয় দিবস উপলক্ষে কেট কাটেন ও স্কুলের শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরুস্কার বিতরণ করেন।
আলোচনা সভায় এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন আশুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহাব-উদ্দিন মাদবর, সোসাইটি অফ সোসাল রিফম হাইস্কুলের মহাপরিচালক ড.সাঈদ সাব্বিরসহ আরো অনেকে।

বাঙালির আত্মপরিচয় বাঁচাতে জঙ্গি বর্জনের বিকল্প নেই’

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, বাঙালির আত্মপরিচয় বাঁচাতে জঙ্গি বর্জনের বিকল্প নেই। আজ সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।তিনি আরো বলেন, ‘মানুষের প্রথম পরিচয় তার ভাষা, মায়ের ভাষা। আমরা বাঙালি, আমাদের আত্মপরিচয়কে যারা মুছে দিতে চায়, তারা ভাষার শত্রু, জাতির শত্রু। শেকড়হীন জঙ্গিদের নিজের পরিচয় নেই বলেই তারা অন্যের পরিচয়কে মুছে দিতে চায়। তাই বাঙালির আত্মপরিচয় বাঁচাতে জঙ্গিবর্জনের বিকল্প নেই। ’ইনু বলেন, ‘অধিকাংশ আধুনিক রাষ্ট্রই ভাষাভিত্তিক। ভাষা ও সংস্কৃতির সঙ্গে ধর্মের কোন বিরোধ নেই। ইরান বা আফগানিস্তানে ‘নওরোজ’ উৎসব পালনে ইসলামের ক্ষতি হয় না, কিন্তু বাংলা নববর্ষ পালনে বাধা দেয় জঙ্গিরা। শহীদের রক্তে গড়া বাঙালি পরিচয় মুছে দেওয়াই তাদের লক্ষ্য। কিন্তু জনগণ ও সরকার তা হতে দেবে না। ’তথ্যমন্ত্রী বলেন, জঙ্গি ও তাদের সঙ্গিদের বিচার-দমন-বর্জনের মাধ্যমে আমরা মায়ের ভাষা ও বাঙালিত্বের পরিচয় অটুট রাখবো।এ সময় তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু, বায়ান্ন’র ভাষা আন্দোলন ও একাত্তরের মহান শহীদদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, ‘চার হাজার বছরের ইতিহাস সমৃদ্ধ বাংলাদেশের মানুষ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সকল বাধা পায়ে দলে জঙ্গিমুক্ত, বৈষম্যহীন, সবুজ, সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়বেই’।বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে আরো বক্তৃতা করেন মানবিক ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আব্দুর রব খান

বেগম জিয়ার বিরুদ্ধে পাতানো রায় দেয়া হতে পারে—–রিজভী

জার্মানির মিউনিখে মামলা প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া বক্তব্যের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, এ মামলা উদ্দেশ্য প্রণোদিত, হিংসাশ্রয়ী, প্রতিহিংসার মামলা; এটা সবাই জানে। কিন্তু তার উদেশ্য ভিন্ন। তিনি (প্রধানমন্ত্রী) মিউনিখ থেকে বললেন এই মামলায় যা হওয়ার তাই হবে।সোমবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের তৃতীয় তলার হলরুমে সংবাদিক চন্দন রহমানের ছড়ার বই ‘খোঁচা’র মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন রিজভী।মিউনিখে বসে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার রায়ের আভাস পাওয়া গেছে উল্লেখ করে রিজভী বলেন, এ মামলার রায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত রায়, তার ইচ্ছের যে প্রতিফলন হতে পারে সেটা প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে ফুটে ওঠে। আদালত কী রায় দেবেন সেটা আদালতের বিচারিক প্রক্রিয়ার বিষয়। কিন্তু তার আগেই তিনি (প্রধানমন্ত্রী) রায়ের একটি আগাম আভাস দিচ্ছেন মিউনিখ থেকে।তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের প্রভাবে আদালত কখনোই নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারে না। তারা বিরোধী দলের বিরুদ্ধে মামলা করে আবার তার রায়ও নির্ধারণ করে। এখানে আদালতের ভূমিকা নেই বললেই চলে।রাজনীতিতে সংস্কৃতিমনা কর্মীর অভাব উল্লেখ করে তিনি বলেন, সংস্কৃতিমনা ছেলেরা যত বেশি রাজনীতিতে যুক্ত থাকবে তত বেশি রাজনৈতিক উৎকর্ষতা বৃদ্ধি পাবে। এটা একটি উন্নত মানের শিল্পকলা। কিন্তু সংস্কৃতিবান ছেলেরা যখন রাজনীতির বিভিন্ন ডামাডোলে জায়গা পায় না, তখন সন্ত্রাসী ও মাস্তানরা এদের জায়গায় আভির্ভূত হয়।

আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্য করে রুহুল কবির রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগের একজন বড় নেতা টাঙ্গাইলের এমপিকে চড়, কিল-ঘুষি মেরেছেন। এটা কখনোই হতো না যদি সে দলে সংস্কৃতিমনা ব্যক্তিরা থাকতো। তাহলে এরকম সংবাদ খবরের কাগজে বা গণমাধ্যমে আসতো না।বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আউয়াল খান, সেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল, ঢাকা সাংবদিক ইউনিয়নের (একাংশ) সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রধান, লাবনী প্রকাশনীর কর্ণধার ইকবাল হোসেন সালু, লেখক চন্দন রহমান প্রমুখ।

গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা কান্ডের ঘটনায় খুনিরা শনাক্ত খুব শ্রীঘ্রই গ্রেপ্তার হতে ——————————————————পুলিশের মহাপরিদর্শক একে এম শহিদুল হক।


মোঃ গোলাম মোস্তফা, ঢাকা জেলা প্রতিনিধি।
গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা কান্ডের ঘটনায় খুনিরা শনাক্ত খুব শ্রীঘ্রই গ্রেপ্তার হতে পারে বলে জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক একে এম শহিদুল হক।
সোমবার সকালে সাভারের আশুলিয়ায় শ্রীপুর শিল্প পুলিশ ১ এর বহুতল ব্যারাক ভবন ও অস্ত্রাঘার ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপ কালে এ কথা বলেন তিনি।
পুলিশের মহাপরিদর্শক একে এম শহিদুল হক আরও বলেন সংসদ সদস্য লিটন হত্যা কান্ডে যথেষ্ট তদন্তে অগ্রগতি হয়েছ। কারা এঘটনা ঘটিয়েছে যে তিন জন ব্যক্তি মটর সাইকেলে তার বাড়িতে এসেছিলো সে তিন জন ব্যক্তিই পুলিশের নজর দাড়িয়ে রয়েছে। এসময় তিনি আরও বলেই খুনিদেরকে খুব শ্রীঘ্রই ধরে গণমাধ্যমের সামনে হাজির করা হবে ও পুলিশের পেশাগত জ্ঞান বৃদ্ধি করার জন্য সকল সেক্টরে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়াা হয়েছে। বাংলাদেশে জঙ্গি বাদের বিরুদ্ধে পুলিশের যথেষ্ট সাফল্য রয়েছেও বলে জানান তিনি।
এর আগে পুলিশের মহাপরিদর্শক নারী কনস্টেবল দের প্রথম ওরিয়েন্টশন কোর্স সমাপনীর কুচকাওয়াজ ও সালাম পরিদর্শন করেন।অনুষ্ঠানে শিল্প পুলিশের ডিআইজি আব্দুস সালাম,শিল্প পুলিশ ১ এর পরিচালক মোস্তাফিজারসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

সীমান্তে ভারতীয় গরু আটক

কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী সীমান্ত থেকে ১৪টি ভারতীয় গরু আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। সোমবার ভোরে উপজেলার তিলাই ইউনিয়নের কাইজারচর সীমান্তের চরাঞ্চল থেকে গরুগুলো আটক করা হয়। এগুলোর আনুমানিক মূল্য ৮ লাখ ৪০ হাজার টাকা।কুড়িগ্রাম-৪৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের শালঝোড় বিওপির হাবিলদার মো. আব্দুল আউয়াল জানান, চোরাচালান প্রতিরোধে এখন বিজিবির বিশেষ অভিযান চলছে। সোমবার ভোর ৪টায় উপজেলার কাইজারচর নামক স্থানে মেইন পিলার ৯৮৭-এর ৪ আর-এর কাছে অবস্থান নেয় বিজিবির টহল দল। তাদের অবস্থান টের পেয়ে ১৪টি ভারতীয় বলদ গরু রেখে চোরাকারবারীরা পালিয়ে যায়। চর থেকে উদ্ধার করা গরুগুলোর আনুমানিক মূল্য ৮ লাখ ৪০ হাজার টাকা।
আটক গরুগুলো নাগেশ্বরী উপজেলার জয়মনি কাস্টমস কার্যালয়ে জমা দেয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

সোমবার থেকে রাজধানীর মাংসের দোকানগুলো খুলবে

টানা ছয় দিনের ধর্মঘটের পর কোনো ধরনের মীমাংসা ছাড়াই ধর্মঘট প্রত্যাহার করেছে ঢাকা মহানগর মাংস ব্যবসায়ী সমিতি।সোমবার থেকে রাজধানীর মাংসের দোকানগুলো খুলবে। রোববার যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতি ও ঢাকা মহানগর মাংস ব্যবসায়ী সমিতির নেতারা।

রাজধানীর গাবতলী গরুর হাটে মহানগর মাংস ব্যবসায়ী সমিতির কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতির মহাসচিব রবিউল আলম। তিনি বলেন, মাংস ব্যবসায়ীরা ভোক্তাদের স্বার্থেই ধর্মঘট ডেকেছিল। আবার ভোক্তাদের কথা চিন্তা করে ধর্মঘট প্রত্যাহার করছে। সোমবার থেকে রাজধানীর মাংস ব্যবসায়ীরা দোকান খুলবেন; কিন্তু মাংসের বাজার কী হবে, তা নির্ভর করছে বাণিজ্যমন্ত্রী ও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়রের পদক্ষেপের ওপর। মাংসের বাজারে কোনো শৃঙ্খলা আশা করা ঠিক হবে না। কারণ ব্যবসায়ীরা খরচের সঙ্গে মুনাফা যোগ করেই বিক্রয়মূল্য নির্ধারণ করবেন।
গাবতলী গরুর হাটে অতিরিক্ত খাজনা আদায় ও চাঁদাবাজি বন্ধ করাসহ চার দফা দাবিতে ঢাকা মহানগর মাংস ব্যবসায়ী সমিতি গত সোমবার থেকে ছয় দিনের এ ধর্মঘট শুরু করে। শনিবার ধর্মঘট শেষ হলেও সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী রোববার ঢাকায় ‘মিটলেস ডে’ অধিকাংশ মাংসের দোকান বন্ধ ছিল। তবে কয়েকটি এলাকায় মাংস বিক্রি হয়েছে। সেসব দোকানে গরুর মাংস বিক্রি হয় ৪৮০ থেকে ৫০০ টাকা কেজি দরে। ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) তথ্যানুযায়ী, খাসির মাংস বিক্রি হয় ৬৫০ থেকে ৭০০ টাকায়।
জানা যায়, সমিতির ডাকে সাড়া দিয়ে ছয় দিন ঢাকা মহানগরীর প্রায় পাঁচ হাজার দোকানে মাংস বিক্রি বন্ধ ছিল। ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, গাবতলী গরুর হাটের ইজারাদাররা সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করে ইচ্ছামতো খাজনা আদায় করছে।
গত ছয় দিনে রাজধানীতে মাংস সরবরাহ বন্ধ থাকায় হোটেল-রেস্তোরাঁসহ সাধারণ জনগণও বিপাকে পড়েছে। কিন্তু ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সিটি করপোরেশন আলোচনার কোনো উদ্যোগ নেয়নি। সবশেষে রোববার সকালে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মুন্সী সফিউল হক ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. আমিনুল ইসলাম ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক করেন। বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের বৈঠকে থাকার কথা থাকলেও তিনি ঢাকার বাইরে থাকায় অংশ নিতে পারেননি। এরপর দুপুরে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সঙ্গে বৈঠকের জন্য গেলেও মেয়রের পূর্বনির্ধারিত বৈঠক থাকায় তিনি ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বসতে পারেননি। এরপর বিকেলে মাংস ব্যবসায়ী সমিতি সংবাদ সম্মেলন করে।
সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি গোলাম মর্তুজা মন্টু, সহসভাপতি আনোয়ার হোসেন, মহানগর মাংস ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আবদুল বারেক, সাধারণ সম্পাদক ছালিম আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পরিবেশ ও বন মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠক


ঢাকা, ৭ ফাল্গুন (১৯ ফেব্রুয়ারি) : জাতীয় সংসদের পরিবেশ ও বন মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ড. হাছান মাহমুদ জলবায়ু পরিবর্তন এবং উপকূলীয় এলাকার সুরক্ষার জন্য মন্ত্রণালয়গুলোর সমন্বয়ের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন। এসময় তিনি জলবায়ু অভিঘাত হতে বাংলাদেশের উপকূলকে সুরক্ষা করতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোকে আরো বেশি দায়িত্বশীল হওয়ার আহবান জানান।
আজ সংসদ ভবনের আইপিডি সম্মেলন কক্ষে ‘জলবায়ু অভিঘাত হতে বাংলাদেশের উপকূলকে সুরক্ষা; বর্ষাকালে সামুদ্রিক জোয়ারের প্লাবণ থেকে রক্ষায় করনীয়’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে সভাপতির বক্তৃতায় তিনি এ আহ্বান জানান।
বৈঠকে উপকূল রক্ষায় দীর্ঘ মেয়াদে টেকসই এবং স্থায়ী বাধঁ নির্মাণ, উপকূলীয় বনায়ন কার্যক্রম জোরদার করে শেল্টার কাম হাউস নির্মাণ করার সুপারিশ করা হয়। এছাড়া এলজিইডির রাস্তাসমূহকে ভবিষ্যত বন্যা প্রতিরোধক স্তরে উন্নীত করা, নদী-খাল চ্যানেলগুলোকে দখলমুক্ত রাখা, পানি উন্নয়ন বোর্ড এর দরপত্র প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা প্রতিষ্ঠা ও সিস্টেমলস কমানো, চলমান কর্মকান্ডের বিষয়ে সকল তথ্য জনসাধারণের কাছে প্রকাশ ও প্রচারের ব্যবস্থা করা এবং অভিযোগ ব্যবস্থাপনার সুযোগ নিশ্চিত করার জন্য সুপারিশ করা হয় সভায় ।
পানি উন্নয়ন বোর্ডের দায়িত্বরতদের জনমুখী মনোভাব গড়ে তোলা এবং জেলা পরিষদ ও স্থানীয় সরকারের নিকট জবাবদিহি করার ব্যবস্থা করা নিয়ে আলোচনা হয়। উপজেলা পর্যায়ে প্রয়োজনে কাজ করার জন্য তহবিল বরাদ্দ রাখা, দ্রুত গতিতে বেড়ীবাঁধ নির্মাণ ও রক্ষণাবেক্ষণ করা, সুইচগেট গুলোর ডিজাইন পরিবর্তন, পোল্ডার ও মুজিব কিল্লাগুলোর সংস্কার করাসহ সুপেয় পানি সরবরাহ করার ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয় ।
কোস্ট ট্রাষ্টের নির্বাহী পরিচালক রেজাউল করিমের সঞ্চালনায় এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব, সংসদ সদস্য পঞ্চানন বিশ্বাস,শেখ মো. নূরুল হক, পঙ্কজ নাথ, দিদারুল আলম, জেবুন্নেসা আফরোজ, জলবায়ু ও পানি বিশেষজ্ঞ ড.আইনুন নিশাত, উন্নয়ন ধারা ট্রাষ্টের আমিনুর রসুল এবং বিভিন্ন এনজিও প্রতিনিধি বৃন্দ।


সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: এ্যাডভোকেট শেখ মোঃ আব্দুল্লাহ
সম্পাদক-প্রকাশক : শেখ মোঃ তৈয়াবুর রহমান॥

যুগ্ম সম্পাদক: এস এম শাহিদুল আলম॥ সহযোগী সম্পাদক: শেখ মোঃ আরিফ আল আরাফাত
সহ-সম্পাদক: (প্রশাসন) হাজী হাবিবুর রহমান শাহেদ: সহ সম্পাদক: আজমাল মাহমুদ
সম্পাদক কর্তৃক বাড়ী বাড়ী নং- ৫৩/২, ৪র্থ তলা, রাজ-নারায়ন-ধর রোড, কিল্লার মোড় বাজার, লালবাগ, ঢাকা-১২১১
ফোন: ০১৯১৮-২০১৬২৬, ফোন: ০১৭১৫-৯৩৩১৬৮
ই-মেইল- notunvor.news@gmail.com
Designed By Hostlightbd.com
| Cyberboss.org
Translate »