Category: ক্রাইম রিপোর্ট

চিরিরবন্দরে কুপিয়ে হত্যা মাহাফুজুল ইসলাম আসাদ


চিরিরবন্দর(দিনাজপুর) প্রতিনিধি:
দিনাজপুর চিরিরবন্দরে ফতেজংপুর ইউনিয়নের মৃত সমসের মেকারের পূত্র মো: খতিব সুদারু (৫৫) কে কুপিয়ে হত্যা করেছে দূবৃত্তরা। গতকাল শনিবার রাত আনুমানিক ৮ টায় বিন্যাকুড়ি থেকে মোটরসাইকেল যোগে বেকিপুল আসার পথে কামারের ডাঙ্গা নামক স্থানে কালর্ভাটের কাছে তাকে দূবৃত্তরা আটক করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে জখম করে। মৃত ভেবে ফেলে রেখে যায় । পরে পথচারীরা তাকে উদ্ধার করে চিরিরবন্দর হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার গলা, মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। চিরিরবন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: হারেসুল ইসলাম ঘটনার সত্যাতা নিশ্চিত করেন । তবে এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত মামলার প্রস্তুতি চলছিল।

দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ৫ম শ্রেণীর ছাত্রীর শৃলতাহানীর বিচার চেয়ে অবেদন

এন.আই.মিলন, দিনাজপুর প্রতিনিধি- দিনাজপুরের বীরগঞ্জের এক ৫ম শ্রেণীর স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষনের চেষ্টা, শৃলতাহানীর বিচার চেয়ে অবেদন করেছে তার অভিভাবক।
অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার মরিচা ইউনিয়নের ৮১ নং মরিচা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী ও মরিচা (মন্ডলপাড়া নতুনবাড়ী) গ্রামের মিঠু মিয়ার কন্যা মোছাঃ শিমা আক্তার (১০) কে গত ২১ জুলাই শুক্রবার বাড়ীতে রেখে বাবা কাজের উদ্দেশে ও মা অশুস্থ বোনকে দেখতে যায়। শুক্রবার জুম্মার নামাজের সময় প্রতিবেশী মৃত তাজিমদ আলীর পুত্র লম্পট শহীদ মিয়া (৩৮) বাড়ীতে প্রবেশ করে রান্না ঘরে ঢুকে স্কুল ছাত্রীকে একা পেয়ে জোর পূর্বক ধর্ষনের চেষ্টা করে। মেয়েটির চিৎকার করিলে লম্পট শহীদ পালিয়ে যায়। ধস্তাধস্তিতে মেয়েটির শরীরিরের কাপড় চপড় খুলে ও ছিড়ে যায় এবং শরীরিরের বিভিন্ন যায়গায় আঘাত পায়।এব্যপারে স্কুল ছাত্রীর মা অহেজা খাতুন জানায়, আমি মোবাইলের মাধ্যমে ঘটনাটি যেনে বাড়িতে এসে প্রতিবেশীদের এবং শহীদের আত্মিয় স্থানীয় ইউপি সদস্য ও বিদ্যালয়ের মেনেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ মোজাম্মেল হককে ঘটনাটি জানালে তিনি আইনের আশ্রয় নিতে বাধা দিয়ে স্থানীয় ভাবে বিচারের কথা বলে। ইউপি সদস্য ২২ জুলাই শনিবার রাত্রে স্থানীয় ১টি মিল চাতালে বিচার বসার কথা বলে কাল ক্ষেপন করে শহীদকে তাড়ীয়ে দেয়।
অভিযোগে তিনি আরো জানায়, প্রায় ১ বছর পূর্বে শহীদের বড় ভাই আনিছুর রহমান স্কুল ছাত্রী শিমা আক্তার সঙ্গে এরুপ ঘটনা ঘটালে স্থানীয় লোকজন তাকে শাস্তি দেওয়ার পর হতে তারা প্রতিশোধের নেষায় বিভিন্ন ভাবে তাদের ক্ষতি করার চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়ে এরুপ ঘটনা ঘটায়।
বর্তমানে তারা ৫ম শ্রেণীর স্কুল ছাত্রী শিমা আক্তারের নিরাপত্তা ও শৃলতাহানীর ন্যায় বিচার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যজিষ্ট্রট এর আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

সাপাহারে দুই স্কুলছাত্রের রহস্যজনক নিখোঁজ

নওগাঁ প্রতিনিধি : নওগাঁর সাপাহারে উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়–য়া দুই বন্ধু আহসানুল আলম অনুপম (১৫) ও নাইমুর রহমান দূর্জয় (১৫) রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়েছে। শুক্রবার সকালে অনুপম প্রাইভেট শিক্ষকের নিকট ও দূর্জয় নওগাঁ বালুডাঙ্গা খালার বাড়ি যাওয়ার কথা বলে বাড়ী থেকে বের হওয়ার পর এই নিখোঁজ হয়। এ ঘটনায় থানায় পৃথক সাধারণ ডায়রি (জিডি) দায়ের করা হয়েছে।
তারা দু’জনেই সাপাহার পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র ও ঘনিষ্ট বন্ধু। সাপাহার পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাজেদুল আলমের ছেলে অনুপম এবং মির্জাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জালাল উদ্দীনের ছেলে নাইমুর রহমান দূর্জয় । ওই দুই শিক্ষক সাপাহার উপজেলা সদরের প্রফেসর পাড়ায় বসবাস করেন।
জানা গেছে, শুক্রবার সকাল ৬টায় অনুপম প্রাইভেট শিক্ষকের নিকট পড়ার জন্যে বের হয়। এরপর সন্ধ্যা পর্যন্ত আর অনুপম ফিরে আসেনি। পরিবারের লোকজন তাকে অনেক খোঁজাখুজি করে তার সন্ধান পাননি।
অপর ঘটনায় দূর্জয় একই সময় সকালে নওগাঁ শহরের বালুডাঙ্গা খালার বাড়ি যাওয়ার কথা বলে সকালে বাড়ী থেকে বের হয়। পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, এরপর থেকে দু’জনের কাছে থাকা দু’টি সেল ফোন বন্ধ পাওয়ায় তাদের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। বিষয়টি রহস্যজনক। সাপাহার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শামছুল আলম জানান, শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টায় থানায় পৃথক দু’টি সাধারণ ডায়রি করা হয়েছে। তাদের উদ্ধার করতে পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে ।

রাজধানীর তুরাগে চাঁদাবাজী করতে গিয়ে ৫ ভূয়া সাংবাদিক গ্রেফতার ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আজ আদালতে প্রেরন


এস,এম মনির হোসেন জীবন : রাজধানীর তুরাগের চন্ডাল ভোগ গ্রামে নিজেদেরকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে একটি বিয়ের অনুষ্টান বন্ধ করার হুমকী দিয়ে ৪০ হাজার টাকা চাঁদাবাজী করার সময় পুলিশ ৫জন ভূয়া সাংবাদিককে হাতেনাতে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন নিরু ফরিদ (৫৮),মোরসালিন আহমেদ ওরফে অপু (২৮), মো: সিরাজুল ইসলাম (৩২), রানা অহমেদ (২৮) ও রবি আহমেদ (৩৪)।
আজ শনিবার সকালে জিঞ্জাসাবাদ শেষে এই ৫ ভূয়া সাংবাদিককে পুলিশ ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে ঢাকার সিএমএম আদালতে পাঠানো হয়েছে।
উত্তরা জোনের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) তাপস কুমার দাস আজ দুপুরে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
উত্তরা জোনের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) তাপস কুমার দাস আজ জানান, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১০টার দিকে রাজধানীর তুরাগের হরিরামপুর ইউনিয়ন পরিষদ ৫ নম্বর ওয়ার্ড চন্ডাল ভোগ গ্রামের বাসিন্দা মো: আতাউল হক এর মেয়ে আইরিন আক্তার এর বিয়ের দিন ধার্য করা হয় গত শুক্রবার। সে সুবাদে বৃহস্পতিবার ছিল আইরিন আক্তারের বিয়ের গায়ে হলুদের অনুষ্টানের আয়োজন করা হয়। বিয়ের গায়ে হলুদ ও অন্যান্য কার্যক্রম অনুষ্টান চলাকালে হঠাৎ করে ৫জন লোক ওই অনুষ্টানে অনাধিকারে বাসায় প্রবেশ করে এবং তারা নিজেদেরকে সাংবাদিক বলে পরিচয় দেয়। এক পর্যায়ে তারা আইরিন আক্তারের পিতা আতাউল হক ও তার চাচা মো: রাইসুল ইসলাম পিয়ারকে বলে যে, ”এই বিবাহ বাল্য বিবাহ”। ”সে কারনে উক্ত বিয়ে হবেনা”। বিবাহ দিতে হলে তাদেরকে ৪০ হাজার টাকা দিতে হবে বলে তারা চাঁদা দাবী করেন। তাদের দাবীকৃত টাকা পরিশোধ না করলে তারা (ভূয়া সাংবাদিকরা) বিবাহ বন্ধের হুমকী দেয়।
বিষয়টি পরবর্তীতে আইরিন আক্তারের পিতা আতাউল হক ও তার চাচা মো: রাইসুল ইসলাম পিয়ার সন্দেহ হলে তারা ঘটনাটি তুরাগ থানা পুলিশকে অবহিত করেন। পরে খবর পেয়ে তুরাগ থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে নিরু ফরিদ (৫৮), পিতা আব্দুর রহমান, ১/ই,৩/১ কলোয়ারা পাড়া,মিরপুর,ঢাকা। মোরসালিন আহমেদ ওরফে অপু (২৮), পিতা কালা চাঁন সরকার, ১২০/২০,বড় বাজার পাড়া,থানা দারুসসালাম,ঢাকা। মো: সিরাজুল ইসলাম (৩২), পিতা মৃত ওসমান গনি, বেগুন বাড়ি বালুর মাঠ, টুটুলের বাড়ির ভাড়াটিয়া, সাভার,ঢাকা,রানা আহমেদ (২৮),পিতা মো: সুলতান আহমেদ,তেতুল ঝোড়া (জোরপুল),সাভার,ঢাকা ও রবি আহমেদ (৩৪) পিতা মো: আব্দুল হালিম দ,তেতুল ঝোড়া (জোরপুল),সাভার,ঢাকা দ্বয়নামে ৫ ভূয়া সাংবাদিককে হাতেনাতে গ্রেফতার করে।
তুরাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: নুরুল মোত্তাকিন আজ জানান, পুলিশের প্রাথমিক জিঞ্জাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা নিজেদেরকে সাংবাদিক বলে পরিচয় দেয় এবং তারা ৫জন সাংবাদিকতা পেশার বৈধ কোন কাগজপত্র উপস্থাপন করতে পারেনি।
(ওসি) মো: নুরুল মোত্তাকিন আজ আরও জানান, সাংবাদিক বলে মিথ্যা পরিচয় দানে প্রতারনা,৪০ হাজার টাকা চাঁদাদাবী, বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি প্রদর্শন ও হুমকীর বিষয়ে তুরাগ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।
আইরিন আক্তারের চাচা মো: রাইসুল ইসলাম পিয়ার বাদী হয়ে শুক্রবার ধৃত ৫জনকে আসামী করে তুরাগ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নম্বর-১৮। তারিখ-২১-০৭-২০১৭। মামলার ধারা-৪৪৮/৪১৯/৩৮৫/৫০৬ দন্ডবিধি।
আজ শনিবার সকালে জিঞ্জাসাবাদ শেষে এই ৫জন ভূয়া সাংবাদিককে ১০ দিনের পুলিশ রিমান্ডের আবেদন চেয়ে ঢাকার সিএমএম আদালতে পাঠানো হয়েছে।

নীলফামারীতে পুলিশের বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার ১০৫জন

এম ইসলাম সুজন,ক্রাইমরিপোর্টার নীলফামারী ॥ নীলফামারীতে পুলিশের বিশেষ অভিযানে ১০৫ জনকে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২০ জুলাই) সন্ধ্যা থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন জেলা পুলিশ সুপার জাকির হোসেন খান।
গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে- বিচারাধীন মামলার ১৬, সাজাপ্রাপ্ত ৫জন, পুলিশ আইনের ২৪ ধারায় ৮, ফৌজদারী কার্যবিধির ১৫১ ধারায় ২ এবং মাদক আইনে ৭৪জন রয়েছেন। এছাড়াও অভিযানে ৬৪ পুরিয়া হেরোইন, ১৪৬৭ গ্রাম গাঁজা, ১৩৩ পিস ইয়াবা, ৮৬.৫ লিটার দেশী চোরাই মদ ও ৫ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়।অভিযানে ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল বাশার মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) অশোক কুমার পাল, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (ডোমার- ডিমলা,ও সৈয়দপুর সার্কেল) জিয়াউর রহমানসহ স্ব স্ব থানার ওসি।অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল বাশার মোহাম্মদ আতিকুর রহমান জানান, ৬৫টি মামলায় তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।মাদকের বিরুদ্ধে বিশেষ কর্মসুচীর অংশ হিসেবে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ শুক্রবার সকালে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল বাশার।

জলঢাকায় কাল্ব এর মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

এম ইসলাম সুজন,নীলফামারী প্রতিনিধি॥ নীলফামারীর জলঢাকায় শুক্রবার দুপুরে জেলার কাল্ব ভুক্ত সকল ক্রেডিট ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দের সাথে কালব বোর্ড কর্মকর্তাদের মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। জলঢাকা উপজেলা শিক্ষক – কর্মচারী কো – অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ এর সভাপতি সেলিমুর রহমানের সভাপতিত্েেব সমিতির হলরুমে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন কালব লিমিটেড এর ভাইসচেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ। এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন কালব এর “ক” অ লের ডিরেক্টর আকরাম হোসেন । আরো উপস্হিত ছিলেন ডিমলা সমিতির সভাপতি লুৎফর রহমান, সৈয়দপুর সমিতির সভাপতি মাহফুজুর রহমান, সেক্রেটারি হামিদুজ্জামান খোকন, নীলফামারীর সেক্রেটারি নারায়ণ চন্দ্র ,জলঢাকা সমিতির ভাইসচেয়ারম্যান মর্তুজা ইসলাম ও সেক্রেটারি শামীম নেওয়াজ হাফিজ প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন কালব এর জেলা ম্যানেজার রিপন জন। মতবিনিময় সভায় জেলার সকল কর্মকর্তাগন উপস্হিত ছিলেন।

কারাগারে যেতেই হোল – রাজ্জাক মোল্লা কে

শেষ পর্যন্ত কারাগারে যেতেই হোল বিতর্কিত বহুল আলোচিত যুব কর্মসংস্থান সোসাইটি (যুবক) এবং যুবক হাউজিং এর খুলনা বিভাগীয় সভাপতি ও খুলনার প্রতারিত গ্রাহকদের কাছ থেকে ৬০০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করার মুল হোতা / নাটের গুরু সেই আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা কে । দীর্ঘ ১০/১১ বছর ধরা ছোঁয়ার বাইরে থেকে এই রাজ্জাক মোল্লা যুবক এর লিডার হয়ে প্রতারনা করে যে বিশাল অবৈধ সম্পদের পাহাড় গড়েছেন এবং  গ্রাহকদের বিভিন্ন ভাবে হুমকি ধামকি দিয়ে এবং জীবন নাশের ভয় দেখিয়ে সবার মুখ বন্ধ রাখতে বাধ্য করেছিলেন সেই রাজ্জাক মোল্লা আজ ২০/৭/১৭ তারিখে বিজ্ঞ মহানগর হাকিম আদালত “ক” অঞ্চল, খুলনাতে আত্মসমর্পণ করলে মাননীয় বিচারক মহা প্রতারক এবং বহু মানুষকে নিঃস্ব করার খলনায়ক আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা কে কারাগারে প্রেরন করার নির্দেশ দেন । রাজ্জাক মোল্লা অনেক মামলার আসামী এবং সে সাজাপ্রাপ্ত ফেরারি আসামী ও বটে । এতো বছর যিনি ধরাকে সরা জ্ঞান করে নিজের সাম্রাজ্য কায়েম করে এসেছেন আজ তাকে কারাগারে যেতেই হোল তাতে “যুবক” এর খুলনার সকল গ্রাহকদের মনে কিছুটা হলেও আস্থা এসেছে যে, এবার যেন রাজ্জাক মোল্লা সহ যুবক এর লিডার দের বিচার হয় ।

গাইবান্ধায় ছাত্রলীগ-ছাত্রদল সংঘর্ষ, আহত ১০

গাইবান্ধা: গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলায় ছাত্রলীগ-ছাত্রদল সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত: ১০ জন আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ফাকা গুলি ছোড়ে পুলিশ।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে পলাশবাড়ী সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ কম্পাসে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, পলাশবাড়ী সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে ছাত্রদলের সম্মেলন চলছিল। এ উপলক্ষ্যে ক্যাম্পাসে মিছিলের আয়োজন করে ছাত্রদল। এসময় ছাত্রদল ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ শুরু হয়। এতে উভয় পক্ষের অন্তত: ১০ জন আহত হন।
আহতদের মধ্যে পলাশবাড়ী উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক খন্দকার ফরহাদ হোসেন, ছাত্রলীগ কর্মী বাপ্পী, মানিক, শাহজালাল, থানা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক রাজু সরকার, কলেজ ছাত্রদলের আহবায়ক আল আমিন, যুগ্ম আহবায়ক সবুজ ও পৌর ছাত্রদল যুগ্ম আহবায়ক মিলনের নাম জানা গেছে। তাদের স্থানীয় হাসপাতাল ও বিভিন্ন ক্লিনিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
পলাশবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল আলম জানান, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে চার রাউন্ড শর্ট গানের গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

বীরগঞ্জ পুলিশ অভিযান চালিয়ে ৪১ জনকে গ্রেফতার করেছে


এন.আই.মিলন, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি- দিনাজপুরের বীরগঞ্জ পুলিশ রেইড ব্লাক অভিযান পরিচালনা করে ১ রাতে জামায়াত নেতা সহ ৪১ জন অপরাধীকে গ্রেফতার করে ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করেছে।
বীরগঞ্জ থানার পুলিশ উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের ৯৯টি ওয়ার্ড ও পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে মঙ্গলবার রেইড ব্লাক অভিযান পরিচালনা করে জামায়াত নেতা সহ ৪১ জন অপরাধীকে গ্রেফতার করে বুধবার ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করেছে।
বীরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচাজ আবু আক্কাস সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মাদক ব্যবস্যায়ী ও সেবনকারী ১৬ জন, জুয়ারু ৭ জন সহ জঙ্গী ও জেএমবি অপতৎপরতা চালিয়ে জনগনের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টিকারী এবং বিভিন্ন মামলায় যারা আদালতের আদেশ অমান্য করে পুলিশের চোখকে ফাকি দিয়ে বাড়ীতে যাতয়াত করছিল তাদেরকে গ্রেফতার করে জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।
আটককৃতদের মধ্যে জামায়াত নেতা শতগ্রাম ইউনিয়নের গড়ফতু গ্রামে মৃত ফকির সোনাউল্লার নাতি ও মোঃ শামসুল ফকিরের পুত্র বাগদাদ গ্রুপের মালিক বর্তমান চেয়ারম্যান ডাঃ কে এম কুতুব উদ্দিনের শ্যলক মোঃ সোলেমান আলী (৩৬)।
এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, সোলাইমান জামাত নেতা ইউপি চেয়ারম্যান কেএম কুতুব উদ্দিনের সহায়তায়, পরোক্ষ এবং প্রত্যক্ষ মদদে এলাকায় দির্ঘদিন থেকে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে আসছে। কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছে না। সোলায়মানের নেতৃত্বে একটি সংঘবদ্ধ অপরাধ চক্র জাল টাকা তৈরি, অবৈধ ডলার প্রতারণা, কষ্টি পাথর, ভুমি দস্যুতা সহ নানা অপকর্মের সাথে চক্রটি জড়িত রয়েছে। তার পিতা সামসুল ফকির ফুটপাতে বাদাম/কটকটি বিক্রয় করতো বলে জানা গেছে। নাশকতাসহ এলাকায় বিভিন্ন অপরাধের সাথে জড়িত থাকার পাশাপাশি তার বিরুদ্ধে ঝাড়বাড়ী বটতলা সরকারী জায়গা দখল করে বালু ব্যবসার কাজে ব্যবহার এর অভিযোগ রয়েছে। অপ্রত্যাশিতভাবে সোলাইমান দ্রুত ফকিরের নাতি হয়ে কোটিপতি হওয়ার ঘটনায় এলাকায় নানা গুঞ্জন ও সন্দেহের সৃষ্টি হয়েছে।

বীরগঞ্জে ভূয়া ডিগ্রী পরীক্ষার্থী অটক, ১ বছরের কারাদন্ড


এন.আই.মিলন, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি- দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ভ্রাম্যমান আদালত ১ ভূয়া ডিগ্রী পরীক্ষার্থীকে ১ বছরের কারাদন্ডসহ কারাগারে প্রেরন করেছে।
উপজেলার নিজপাড়া ইউনিয়নের সৈয়দপুর কল্যাণী গ্রামের মোঃ আব্দুল মালেকের পুত্র মোঃ মামুনুর রশিদ বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস ও প্রতœতন্ত বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র মঙ্গলবার বিকেলে বীরগঞ্জ সরকারী ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত ডিগ্রী পাশ পরীক্ষা-২০১৫ ইংরেজী আবশ্যিক পরীক্ষা চলাকালে ভূয়া ডিগ্রী পরীক্ষার্থী সেজে পরীক্ষা দেওয়া কালে কক্ষ পরিদর্শক প্রভাষক আবু সাঈদের সন্দেহ হলে আটক করে।
পরে বিকেল ৫টায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ আলম হোসেন ভ্রাম্যমান আদালতে বিজ্ঞ বিচারক ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।
বীরগঞ্জ ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ ও কেন্দ্র সচিব মোঃ খয়রুল ইসলাম চৌধুরী জানান, মঙ্গলবার বিকেলে বীরগঞ্জ ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রে জেলার খানসামা উপজেলার পাকের হাট ডিগ্রী কলেজের শিক্ষার্থীরা ডিগ্রী পরীক্ষা-২০১৫ ইংরেজী আবশ্যিক

শৈলকুপায় এনজিও’র মামলায় ঘরছাড়া ঋনগ্রস্থ মহিলারা

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ শৈলকুপার বিভিন্ন গ্রামে সুদের টাকা আদায় করতে সিও নামে একটি এনজিও জবরদস্তি মুলক ভুমিকায় অবতীর্ন হয়েছে। গ্রামের হতদরিদ্র মহিলাদের ভাগ্য পরিবর্তনের আশ্বাস দিয়ে উল্টো তাদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে ভিটা ছাড়া করার অভিযোগ উঠেছে। মামলার কারণে ঋন নেওয়া মহিলারা এখন পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। ভুক্তভোগী মহিলাদের অভিযোগ এনজির  কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে না পারায় ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের প্রায় ৬০জন হতদরিদ্র মহিলার নামে মামলা করা হয়েছে। কয়েকজন আদালত থেকে জামিন নিয়েছেন। আবার অনেকে গ্রেফতার এড়াতে বাড়ি-ঘর ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। মামলার এজাহার ও ভুক্তভোগীরা জানান, শৈলকুপা উপজেলার গাড়াগঞ্জ এলাকার লক্ষনদিয়া, গোকুলনগর, কদমতলা, তামিনগর, ব্রাহিমপুর মোল্লাপাড়া, বাহাদুরপুর, দুধসরসহ বেশ কয়েকটি গ্রামের হতদরিদ্র মহিলারা ক্ষুদ্র ঋন নেন এনজিও সোসিও ইকোনমিক হেলথ এডুকেশন অর্গানাইজেশন (সিও) নামে একটি এনজিওর কাছ থেকে। দুর্মুল্যের বাজারে সংসার চালিয়ে অনেকে ঋনের কিস্তি দিতে পারেনি। এনজিও কর্মকর্তা ও সমিতির ম্যানেজারের নিকট সময় চেয়ে কাকুতি মিনতি করে আসছিলো। কিন্তু সিও এনজিও সংস্থার মনিটরিং অফিসার গোলজার হোসেন বাদী হয়ে ঝিনাইদহের একটি আদালতে মামলা ঠুকে দেন। মামলার ওয়ারেন্ট পেয়ে শৈলকুপা থানা পুলিশ উমেদপুর, মিজাপুর ও দুধসর ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম থেকে ২২ মহিলা সদস্যকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠান। পুলিশী অভিযানের খবর পেয়ে স্বামী, সন্তান ও ঘরসংসার ফেলে বাকী মহিলারা আত্মগোপনে চলে যান। গতকাল আদালতে জামিন নিতে আসা শৈলকুপার ব্রাহীমপুর গ্রামের আয়শা খাতুন অভিযোগ করেন তিনি ১০ হাজার টাকা ঋণ গ্রহন করেছিলেন। আসল টাকা পরিশোধ করা হয়েছে। এখন সুদের ২৭০০ টাকা পরিশোধ করা হয়নি বলে মামলা করা হয়েছে। অনেকের টাকা পরিশোধ হওয়ার পর তাদেরকেও হয়রানী করার জন্য মামলার আসামী করা হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেন। লক্ষনদিয়া গ্রামের রিজিয়া ও রেহেনা খাতুন অভিযোগ করেন, আমরা আদালত থেকে কোন নোটিশ পায়নি। তাছাড়া টাকার পরিমানও আহামরি বেশি নয়। কারো কারো কাছে ১১’শ থেকে সবোর্চ্চ ৫ হাজার টাকা সুদসহ আসল পাবে। কদমতলা গ্রামের রাশিদা খাতুন অভিযোগ করেন, অনেকে আসল পরিশোধ করেছে। এখন সুদের টাকার জন্য মামলা করে হয়রানী করা হচ্ছে। শৈলকুপা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উসমান গনি জানান, এনজিওরা টাকা আদায়ে এমনটি করলে তা হবে দুঃখজনক। তিনি বলেন উপজেলা পর্যায়ে মনিটরিং কমিটি আছে। মামলার আগে তারা সেখানে জানাতে পারতো। তিনি দুস্থ মহিলাদের বিরুদ্ধে মামলার কথা জানেন না বলে জানান। তিনি এ ব্যাপারে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মহিলারা যাতে হয়রানী না হন সে ব্যবস্থা নিবেন বলে জানান। এ ব্যাপারে শৈলকূপা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শামীম হোসেন মোল্লা জানান, এভাবে মামলা করা ঠিক হয়নি। তাদের সময় দেওয়া উচিত ছিল। আমি ব্যক্তিগত ভাবে এঘটনার নিন্দা জানায়। শৈলকূপা থানার ওসি আলমগীর হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান আদালত থেকে গ্রেফতারী পরোয়ানা পাওয়ার পর পুলিশ ২২ জন মহিলাকে গ্রেফতার করে তাদের আদালতে পাঠায়। মামলার বিষয়ে সিও এনজিওর নির্বাহী পরিচালন সামছুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, ঋণ গ্রহীতাদের কাছে আমার কর্মীরা বারবার তাগাদা দিয়েও যখন টাকা আদায় করতে পারছিলো না তখন আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়েই আদালতের স্মরনাপন্ন হয়েছি। তিনি জানান, ২০১০/১১ অর্থ বছরে এই ঋন দেওয়া হয়েছিলো। কিন্তু ব্যাংক ও সরকারের টাকা আদায়ে আমরা নিয়ম মেনেই তাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিয়েছি।


সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: এ্যাডভোকেট শেখ মোঃ আব্দুল্লাহ
সম্পাদক-প্রকাশক : শেখ মোঃ তৈয়াবুর রহমান॥

যুগ্ম সম্পাদক: এস এম শাহিদুল আলম॥ সহযোগী সম্পাদক: শেখ মোঃ আরিফ আল আরাফাত
সহ-সম্পাদক: (প্রশাসন) হাজী হাবিবুর রহমান শাহেদ: সহ সম্পাদক: আজমাল মাহমুদ
সম্পাদক কর্তৃক বাড়ী বাড়ী নং- ৫৩/২, ৪র্থ তলা, রাজ-নারায়ন-ধর রোড, কিল্লার মোড় বাজার, লালবাগ, ঢাকা-১২১১
ফোন: ০১৯১৮-২০১৬২৬, ফোন: ০১৭১৫-৯৩৩১৬৮
ই-মেইল- notunvor.news@gmail.com
Designed By Hostlightbd.com
| Cyberboss.org
Translate »