Category: শেষ পাতা

নবীগঞ্জে দু’পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে নিহত ১, পুলিশসহ আহত ২০, বাড়িঘর ভাংচুর, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে ২৩ রাউন্ড গুলি নিক্ষেপ


মতিউর রহমান মুন্না, নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) থেকে
নবীগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নের কানাইপুর গ্রামে গতকাল শনিবার সকালে বিবদমান দ‘পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে সবুর আলী (২২) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এতে ৩জন পুলিশ কনষ্টেবলসহ উভয় পক্ষে অনন্ত ২০ জন আহত হয়েছে। প্রায় ২০/২৫টি বাড়িঘর ভাংচুর করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ প্রাণপন চেষ্টা করে এক পর্যায়ে ২৩ রাউন্ড গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেন। এ ঘটনায় ২ জনকে আটক করেছে পুলিশ।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, নবীগঞ্জ উপজেলার ৮নং সদর ইউনিয়নের কানাইপুর গ্রামে শুক্রবার বিকালে সাবেক মেম্বার ফরজ আলী’র ছেলের সাথে গ্রামের অপর পক্ষের আব্দুল বারিক এর পক্ষের এক ছেলের বাকবিতন্ডা হয়। এনিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে এতে ৪ জন আহত হয়। খবর পেয়ে শুক্রবার বিকাল থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত পুলিশ এলাকায় অবস্থান করে দু’পক্ষকে দাঙ্গা হাঙ্গামা থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান। পরে পক্ষদ্বয়ের আশ^াসের প্রেক্ষিতে পুলিশ ব্যারাকে ফিরে আসে। এ ঘটনার জেরধরে গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে আব্দুল বারিকের পক্ষে লোকজন ও সাবেক মেম্বার ফরজ আলীর লোকজন হাকডাক দিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পরেন। সংঘর্ষে পিকল, লাটিসোটাসহ ইটপাটকেল ব্যবহার করা হয়। উক্ত সংঘর্ষে কানাইপুর গ্রামের মৃত তকদির আলীর ছেলে সবুর আলী (২২)সহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়। ২০/২৫টি বাড়িঘর ভাংচুর করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থ গিয়ে সংর্ঘষ নিয়ন্ত্রনে আনার চেষ্টাকালে ৩ জন কনষ্টেবল আহত হয়েছে। স্থানীয় লোকজন আহত সবুর আলীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। অন্যান্য আহতদের নবীগঞ্জ, হবিগঞ্জ হাসপাতালসহ প্রাইভেট ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। সবুর আলী নিহতের খবরে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। পুলিশের গ্রেফতার এড়াতে প্রতিপক্ষের লোকজন বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়েছে। ঘটনার সাথে সাথে রুমন ও আলমগীর নামের দুজনকে আটক করেছে পুলিশ। এদিকে পুলিশ নিহত সবুর আলীর ছুরতহাল তৈরী শেষে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ মর্গে প্রেরন করেছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে। এলাকায় উত্তোপ্ত পরিস্থিতি বিরাজ করছে। নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনর্চাজ এসএম আতাউর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম আতাউর রহমান বলেন, ঘটনা খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ২৩ রাউন্ড গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে। এ ঘটনায় ২ জন আটক আছে।

ঝিনাইদহে অস্ত্রসহ ৪ ডাকাত আটক

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ ঝিনাইদহে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে অস্ত্রসহ চার ডাকাতকে আটক করেছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব-৬) সদস্যরা। গোপন খবরের ভিত্তিতে শুক্রবার দিনগত রাতে সদর উপজেলার মিয়াকুন্ডু গ্রামে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। শনিবার সকালে ঝিনাইদহ র‌্যাব ক্যাম্পের কমান্ডার মেজর মনির আহম্মেদ এ তথ্য জানান।আটক চারজন হলেন- ঝিনাইদহ সদর উপজেলার দক্ষিণ শিকারপুর গ্রামে নরেন্দ্রনাথ শিকদারের ছেলে ডা. তিব্বত শিকদার (৪৫) একই গ্রামের ঠাকুর সরকারের ছেলে কুমোদ সরকার (২৬), কালিগঞ্জের নাটোপাড়া গ্রামের মকছেদ খানের ছেলে শুকুনুর রহমান (৩০) ও মাগুরা জেলার শালিখা উপজেলার থৈপাড়া গ্রামের বিমল বিশ্বাসসের ছেলে বিকাশ বিশ্বাস (৩৫)।তাদের কাছ থেকে একটি রাইফেল, একটি দোনলা বন্দুক, একটি একনলা বন্দুক, একটি হাসুয়া ও নয় রাউন্ড গুলি জব্দ করা হয়।

ঝিনাইদহে পুলিশের অভিযানে ৪১ জন গ্রেফতার

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ ঝিনাইদহে পুলিশের চলমান বিশেষ অভিযানে জেলার ৬টি উপজেলা থেকে ৪১ জনকে গ্রেফতার করেছে ঝিনাইদহ পুলিশ। শুক্রবার মধ্যরাত থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত এ অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযান সম্পর্কে ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বলেন  ঝিনাইদহে জঙ্গি, মাদক,সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে এই অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযানে সদর থেকে ১৯ জন শৈলকুপা থেকে ৯ জন,মহেশপুর থেকে ৩ জন কালিগঞ্জ থেকে ৫ জন হরিনাকুন্ডু থেকে ৩ জন এবং কোটচাদপুর থেকে ২ জনকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি আরও বলেন গ্রেফতারকৃতদেরকে প্রাথমিক জিঞ্জাসাবাদ শেষে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হবে।

টঙ্গীতে কাভার্ড ভ্যানের চাপায় কাঁচামাল ব্যবসায়ী নিহত ॥ ঘাতক চালক সহ গাড়ি আটক


এস,এম,মনির হোসেন জীবন : গাজীপুর মহানগরীর ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের টঙ্গীর চেরাগ আলী মার্কেট এলাকায় শুক্রবার মধ্যরাতে কাভার্ডভ্যানের চাপায় এক কাঁচামাল ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম আনন্দ (৩৫)। তার পিতার নাম শামসুল মন্ডল। জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জ থানা এলাকায় তার গ্রামের বাড়ি। নিহত আনন্দ টঙ্গীর চেরাগ আলী এলাকায় বসবাস করতেন। খবর পেয়ে টঙ্গী মডেল থানা পুলিশ নিহতের লাশ উদ্বার করে। দুর্ঘটনার পর স্থানীয় এলাকাবাসী ঘাতক গাড়ি চালক সহ কাভার্ডভ্যানটি আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।
টঙ্গী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: ফিরোজ তালুদকার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
টঙ্গী থানা পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানান, রাজধানীর কারওয়ান বাজার থেকে কাঁচামাল নিয়ে তার পিকআপ ভ্যানটি শুক্রবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে শিল্প নগরী টঙ্গীর চেরাগ আলী গিয়ে থামে। পরে ওই সময় রাতে দ্রুতগতির একটি কাভার্ডভ্যান পেছন থেকে পিকআপ ভ্যানটিকে সজোরে ধাক্কা দিলে এদুর্ঘটনাটি ঘটে। এতে পিক-আপ ভ্যানে থাকা কাঁচামালের উপরে বসা আনন্দ ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ছিটকে পড়ে যায় এবং কাভার্ডভ্যানের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে তার করুণ মৃত্যু হয়। এসময় এলাকাবাসী চালক সহ কাভার্ডভ্যানটি আটক করে পুলিশে দেয়। আবেদনের প্রেক্ষিতে বিনা ময়নাতদন্তে মরদেহ নিহত ব্যবসায়ী আনন্দ লাশ তার স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। নিহত আনন্দ চেরাগ আলী এলাকায় বসবাস করে কাঁচামালের ব্যবসা করতেন।
টঙ্গী থানার এসআই মো. জহুরুল ইসলাম জানান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, দুর্ঘটনার পর স্থানীয় এলাকাবাসী ঘাতক গাড়ি চালক সহ কাভার্ডভ্যানটি আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। এঘটনায় টঙ্গী মডেল থানায় একটি মামলা হয়েছে।

ক্রিকেটে প্রতিনিয়তই যোগ হচ্ছে নতুন নতুন প্রযুক্তি।

ক্রিকেটে প্রতিনিয়তই যোগ হচ্ছে নতুন নতুন প্রযুক্তি। এবার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতেও যোগ হয়েছে নতুন প্রযুক্তি ‘ব্যাট সেন্সর’। ব্যাটের হ্যান্ডেলের শীর্ষবিন্দুতে বসানো থাকবে একটি ‘সেন্সর’। যা দিয়ে ব্যাটসম্যানদের ‘ব্যাট স্পিড’ ও শট খেলার আগে ‘ব্যাক লিফটের’ অ্যাঙ্গেল বোঝা যাবে। এটা থেকে টিভির দর্শকরা ব্যাটসম্যানের ব্যাটের শটের প্রকৃতি বুঝতে পারবেন। এছাড়া ব্যাটসম্যান নিজেও পরে ভিডিও দেখে নিজের ভুল শুধরে নিতে পারবেন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) এবার খেলোয়াড় ব্যাটে এই পুযুক্তি ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে। তবে প্রতি দল তেকে সর্বোচ্চ পাঁচজন খেলোয়াড় ‘ব্যাট সেন্সর’ ব্যবহার করতে পারবে। ইংল্যান্ডের অ্যালেক্স হেলস, বেন স্টোকস; ভারতের রোহিত শর্মা ও রবিচন্দ্রন অশ্বিনসহ বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় এরই মধ্যে এই প্রযুক্তি ব্যবহারের কথা নিশ্চিত করেছেন। ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক নাসের হুসাইন নতুন এই প্রযুক্তির ব্যবহার দেখে উচ্ছ্বসিত।  বলেন, ‘আমরা ধারাভাষ্য দেয়ার সময় অনেকবার ব্যাট স্পিড নিয়ে কথা বলেছি। কিন্তু এটার পরিমাপ কখনোই করতে পারিনি। এই নতুন প্রযুক্তির কারণে সব তথ্য জানতে পারব এবং সবাইকে দেখাতেও পারব।’ এই প্রযুক্তি থাকলে নিজের ক্যারিয়ারে লাভবান হতেন বলেও জানান নাসের, ‘যখন আমি প্রথমবার ইংল্যান্ডের হয়ে খেলি তখন টিভিতে নিজের খেলা দেখিনি। আউট হয়ে ফেরার পর জিওফ্রে বয়কট আমার ওপর ক্ষেপে গিয়ে বলেছিলেন, ‘নাসের তুমি ওপেন ব্যাটে রান নাও না কেনো?’ এই প্রযুক্তি তখন থাকলে উপকারই হতো। এখনকার দিনের কথা বলি, জেসন রয়ের কথাই ধরুন। ২-৩ বছর আগেও যদি এই প্রযুক্তি থাকতো তাহলে সে অনুশীলনের সময় আগের ডাটাগুলো দেখে ভুল শুধরে নিতে পারতো।’

ঝিনাইদহে র‌্যাবের সাথে বন্দুক যুদ্ধে পুর্ববাংলার ২জন আঞ্চলিকনেতা নিহত


ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ঃ
ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে র্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিষিদ্ধ চরমপন্থি পুর্ববাংলার কমিউনিস্ট পার্টির আঞ্চলিকনেতা মাইদুল ইসলাম ওরফে রানা ও তার সহযোগি আলিম নিহত হয়েছে। আজ রাত সাড়ে ১২টার সময় এ ঘটনা ঘটে।ঝিনাইদহ র্যাব-৬ এর কমান্ডার মুনির আহমেদ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কোটচাদপুর উপজেলার কুশনা ইউনিয়নের বটতলা এলাকায় একদল ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এমন সংবাদের ভিত্তিতে র্যাব-৬ এর একটি দল সেখানে পৌছুলে তারা র্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এর পর র্যাব পাল্টা গুলি ছুড়লে দুই জন গুলিবিদ্ধ হয়। তাদেরকে উপজেরা স^াস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাদেও মৃত ঘোষনা করে। এসময় রাবের আরও ০৩ জন সদস্য আহত হয়। তিনি অঅরও জানান, র্যাব এ সময় ২টি বন্দুক, ১টি পিস্তল, ১৪ রাউন্ড গুলি, ১টি হাসুয়া উদ্ধার করে।

এসিসিএইচআরএম কোর্স পরিচালনায় ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির এইচআরডিআই ও বিএসএইচআরএম এর মধ্যে চুক্তি


মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনায় এডভান্স সার্টিফিকেট কোর্স (এসিসিএইচআরএম) পরিচালনার লক্ষ্যে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির হিউম্যান রিসোর্স ডেভলপমেন্ট ইন্সটিটিউট (এইচআরডিআই) ও বাংলাদেশ সোসাইটি ফর হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট (বিএসএইচআরএম) এর মধ্যে একটি সমঝোতা চুক্তি সাক্ষরিত হয়েছে। গত ২৭ মে বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়। চুক্তিপত্রে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে স্বাক্ষর করেন এইচআরডিআই-এর পরিচালক অধ্যাপক ড. ফরিদ এ সোবহানী এবং বিএসএইচআরএম-এর সভাপতি মো. মোশাররফ হোসেন।
ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. সবুর খান, উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. এস.এম মাহবুব-উল-হক মজুমদার, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী এ.কে.এম ফজলুল হক, এলাইড হেলথ সায়েন্স অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. আহমদ ইসমাইল মুস্তাফা, সিডিসির পরিচালক আবু তাহের খান ও স্টুডেন্টস অ্যাফেয়ার্সের পরিচালক সৈয়দ মিজানুর রহমান।
চুক্তি অনুযায়ী, এখন থেকে ‘মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনায় এডভান্স সার্টিফিকেট কোর্স (এসিসিএইচআরএম)’ বিএসএইচআরএম এর সঙ্গে যৌথভাবে পরিচালনা করবে এইচআরডিআই। এছাড়া পাঁচ সদস্যের একটি যৌথ কমিটি থাকবে যারা কোর্স কারিকুলাম তত্ত্বাবধান ও সুপারিশ করার পাশাপাশি কোর্স পরিচালনার জন্য সমন্বয়ক নিয়োগ, কোর্স পরিদর্শক নির্বাচন, পরিদর্শকদের সম্মানী নির্ধারণ ইত্যাদি কর্ম সম্পাদন করবে। পাঁচ সদস্যের কমিটিতে এইচআরডিআই-এর পরিচালক ব্যাতীত অপর দুই সদস্যের মনোনয়ন প্রদান করবে বিএসএইচআরএম ও দুই সদস্যের মনোনয়ন প্রদান করবে এইচআরডিআই।
ক্যাপশন: মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনায় এডভান্স সার্টিফিকেট কোর্স (এসিসিএইচআরএম) পরিচালনায় বিএসএইচআরএম ও এইচআরডিআই এর মধে সম্পাদিত চুক্তিপত্র বিনিময় করছেন এইচআরডিআই এর পরিচালক অধ্যাপক ড. ফরিদ এ সোবহানী ও বিএসএইচআরএম এর সভাপতি মো. মোশাররফ হোসেন। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. সবুর খান, উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. এস.এম মাহবুব-উল-হক মজুমদার, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী এ.কে.এম ফজলুল হক, এলাইড হেলথ সায়েন্সস অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. আহমেদ ইসমাইল মুস্তাফাসহ ও উভয় প্রতিষ্ঠানের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন ।

চট্টগ্রামে মডেল নোভার ওপর বখাটেদের হামলায় প্রতিবাদে মানববন্ধন! শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালানোর হুশিয়ারি

 

 

তসলিম হাসান হৃদয়, চট্টগ্রাম থেকে। “আমরা হলাম নোভার ভাই, হামলাকারীর বিচার চাই” এই স্লোগানে প্রতিবাদে মুখরিত হয়েছে শিক্ষক, শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষ। বুধবার (৩১ মে) বেলা ১টায় প্রেস ক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত হয় বিক্ষোভ র‌্যালী ও মানববন্ধন। মানববন্ধনে অংশ নেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থীবৃন্দ এবং চ্যানেল চমক বাংলা টিভি প্রতিষ্ঠা তসলিম হাসান হৃদয় ও আবদুল কাইয়ুম সায়েম । বিক্ষোভ সমাবেশে জানানো হয় কয়েকদিন আগে চট্টগ্রামের ঐতিহাসিক আন্দরকিল্লার মোড়ে চট্টগ্রামের স্বনামধন্য মডেল, অভিনেত্রী, এনটিভি হা-শো সিজন ৪ এর রানার্স আপ, চমক বাংলা টিভির নিবেদিত প্রাণ নোভা মিলা কিছু বখাটে যুবক দ্বারা নির্যাতনের শিকার হন। এর সুষ্ঠু বিচারের দাবীতে ফেটে পড়ে নোভা পরিবার, নোভা ফ্যান গ্রুপ এবং এনটিভি হা-শো সিজন ৪ এর পারর্ফমাররা। সকলের দাবী দ্রুত হামলাকারীদের বিচার নিশ্চিত করা।মানববন্ধন শেষে একটি র‌্যালী চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এর মেয়র আ.জ.ম নাসিরের অফিস ভবনের সামনে অবস্থান নেয়। পরে এক পর্যায়ে মেয়র আ.জ.ম নাসির নোভা ও তার পরিবারের সাথে একান্ত সাক্ষাত করেন। তিনি বলেন, “হামলাকারী যেই হোক না কেন” তাকে দ্রুত গ্রেফতার করা হবে।” পরে তিনি থানায় ফোন দিয়ে মামলার খোঁজ খবর নেন এবং থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)কে দ্রুত এই মামলা ও বিচার প্রক্রিয়া শেষ করার জন্য জন্য বলেন।

মেয়র আ.জ.ম নাসিরের বখাটেদের দ্রুত গ্রেফতার এবং শাস্তির বিষয়ে আশস্থ হোন নোভার পরিবার ও আন্দোলনরত প্রতিবাদকারীরা। এসময় মেয়রকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন অনলাইন টিভি চমক বাংলা প্রতিষ্ঠাতা তসলিম হাসান হৃদয় ও আব্দুল কাইয়ুম সায়েমসহ সকল সদস্য। নোভার বাবা বলেন, মাননীয় মেয়রকে ধন্যবাদ আমাদের বিষয়টিকে গুরুত্ব দেওয়ার জন্য এবং আমরা দ্রুত সুষ্ঠ বিচারের আশা করছি। প্রশাসনের প্রতি আমাদের অনুরোধ আপনারা অবশ্যই উপযুক্ত বিচারের মাধ্যমে আমাদের উপকৃত করবেন।”চমক বাংলার একান্ত সাক্ষাতকারে নোভা বলেন, “সবাইকে ধন্যবাদ আমার ডাকে সাড়া দেওয়ার জন্য। ধন্যবাদ চমক বাংলা টিভি, একুশে টিভি, যমুনা টিভি, বিজয় টিভিকে। আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ ও শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করছি মেয়র আ.জ.ম নাসির স্যারের প্রতি যিনি আমার কথা শুনেছেন এবং আমার পাশে দাড়িয়েছেন। আমাকে সুষ্ঠ বিচারের আশ্বাস দিয়েছেন।” নোভা তার সকল ঘটনা তুলে ধরে এক পর্যায়ে কান্নাই ভেঙ্গে পড়েন এবং এই আন্দোলন সকল বোনদের জন্য উৎসর্গ করেন।এ বিষয়ে মোবাইল জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (মোজাব) চেয়ারম্যান এসকে দোয়েল এর সাথে মুঠোফোনে কথা বললে তিনি চট্টগ্রামের মডেল নোভার ওপর বখাটেদের হামলার তীব্র নিন্দা জানান। তিনি বলেন, নোভা চট্টগ্রামের অন্যতম মডেল, অভিনেত্রী, এনটিভি হা-শো সিজন এর জনপ্রিয় মুখ। তার ওপর এরকম হামলা, এর তীব্র নিন্দা জানাই এবং বখাটেদের অনতিবিলম্বে গ্রেফতার করে উপযুক্ত শাস্তি প্রদান করা হোক।তবে আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে অপরাধীদের গ্রেফতার এবং বিচার কাজ সম্পন্ন করা নাহলে কঠোর আন্দোলনের ডাক দিবে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগ এমনটাই জানিয়েছেন নাট্যকলা বিভাগের শিক্ষার্থীবৃন্দ। এসময় মানববন্ধনে চমক বাংলা টিভি, একুশে টিভি, যমুনা টিভি, বিজয় টিভির প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।# ০১/০৬/১৭

চিকিৎসক সংকট চালু হচ্ছে না রাণীনগরের ৫০ শয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ॥ ভোগান্তির শিকার উপজেলার লাখ লাখ মানুষ


আব্দুর রউফ রিপন, নওগাঁ প্রতিনিধি ঃ নওগাঁর রাণীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি নামে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হলেও চিকিৎসক সংকটের কারণে কার্যক্রম বন্ধ হয়ে আছে দীর্ঘদিন। চিকিৎসক সংকটের কারণে স্বাস্থ্য সেবা বিঘিœত হচ্ছে। এছাড়া প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম না থাকায় ৫০ শয্যা বিশিষ্ট নির্মিত তিনতলা ভবনটি মুখ থুবড়ে পড়ে আছে আর পদ অনুসারে পর্যাপ্ত চিকিৎসক না থাকায় মাত্র ক’জন চিকিৎসক মানসম্মত সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন।
অপরদিকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেওয়া খাবারের মান নিয়ে হাজারো অভিযোগ। তিন বেলায় নি¤œ মানের খাবার খেয়ে আরো বেশি অসুস্থ্য হয়ে পড়ছেন আবাসিকের রোগীরা। দুপুরের খাবার ১টার মধ্যে দেওয়ার কথা থাকলেও তা রোগীদের কাছে পৌঁছে কোনদিন ৩টা আবার কোনদিন ৩টার পর। অথচ কর্তৃপক্ষ জেগে জেগে ঘুম পারছেন।
সরেজমিনে জানা যায়, প্রায় ৭বছর পূর্বে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট একটি নতুন তিনতলা ভবন তৈরি করা হলেও তা প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম ও জনবলের অভাবে এখনও পর্যন্ত ৫০ শয্যার কার্যক্রম চালু করতে পারেনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। যেখানে সরকারি বিধিমতে ১৭জন চিকিৎসক থাকার কথা কিন্তু সেখানে প্রতিদিন মাত্র ৬জন চিকিৎসক দিয়ে ৮টি ইউনিয়নের বৃহৎ এ উপজেলার লাখ লাখ লোকের চলছে চিকিৎসা সেবা। আবার এই ক’জন চিকিৎসকের মধ্যে তিন জন মহিলা হওয়ার কারণে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রাতে জরুরী বিভাগে অধিকাংশ সময়েই পাওয়া যায় না বিশেজ্ঞ চিকিৎকদের। সহকারিরা কোন মতে জোড়াতালি দিয়ে চালিয়ে আসছে এই জরুরী বিভাগটি। তাই অনেক দূর-দূরান্ত থেকে প্রতিনিয়তই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে রোগীদের ।
জানা যায়, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আউটডোর ও ইনডোরে প্রতিদিন প্রায় তিন শতাধিক রোগীর সেবা দিতে হয়। চিকিৎসক সংকটের কারণে প্রায়ই রোগীদের দুর্ভোগ পোহাতে হয়। অধিকাংশ চিকিৎসক জেলা শহরে থাকায় অফিসে আসেন সকাল ১১-১২টার সময়ে তাই রোগীদের ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকতে হয় তাদের জন্য। ৫০শয্যা বিশিষ্ট ভবনের কার্যক্রম চালু না হওয়ায় বেডের অভাবে অনেক সময় ভর্তি হওয়া আবাসিক রোগীদের বেডের অভাবে মেঝেতেই শুয়ে সেবা নিতে হয় দিনের পর দিন। ইনডোরে যেসব রোগী রয়েছে তারাও ঠিকমত মাসম্মত সেবা ,ঔষধ ও খাবার পান বলে অভিযোগ অনেক ইনডোর রোগীদের। ভুক্তভোগী রোগীরা জানিয়েছেন ,যথা সময়ে চিকিৎসক পাওয়া যায় না । মেডিকেল সহকারি বা ডিপ্লোমা চিকিৎসকদের ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী আবাসিক রোগীদের চিকিৎসা করা হয়। বিশেষজ্ঞ কোন চিকিৎসক না থাকায় অনেক পরিবারের লোকজন কষ্ট করে হলেও তাদের রোগীদের অন্যত্র নিয়ে চিকিৎসা করান।
এ বিষয়ে রাণীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ এস.এম.নজমুল আহসান বলেন, ৩১শয্যা থেকে ৫০শয্যায় উন্নিত করার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে কোন লিখিত আদেশ এবং যে পরিমাণ জনবল ও সরঞ্জাম প্রয়োজন তা এখনও পর্যন্ত পাওয়া যায়নি তাই তা চালু করা সম্ভব হচ্ছে না। অপরদিকে চিকিৎসকরা এসে এই সব মফস্বল অঞ্চলে থাকতে চায় না। তারা সরকারের বেধে দেওয়া দুই বছর পার হলেই বিভিন্ন অজুহাত ও সুপারিশে চলে যায় শহরে। তাই বছরের পর বছর এই সংকট কাটিয়ে ওটা সম্ভব হচ্ছে না। এজন্য সরকারকে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। মাত্র হাতে গোনা কজন চিকিৎসক দিয়ে এত বড় একটি উপজেলার স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করা খুবই কষ্টসাধ্য একটি বিষয়। তবুও কোন মতে চালিয়ে যাচ্ছি আর শূন্য পদগুলোর জন্য দীর্ঘদিন যাবৎ সিভিল সার্জন বরাবর লিখিত চাহিদাপত্র দিয়েছি ।


সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: এ্যাডভোকেট শেখ মোঃ আব্দুল্লাহ
সম্পাদক-প্রকাশক : শেখ মোঃ তৈয়াবুর রহমান॥

যুগ্ম সম্পাদক: এস এম শাহিদুল আলম॥ সহযোগী সম্পাদক: শেখ মোঃ আরিফ আল আরাফাত
সহ-সম্পাদক: (প্রশাসন) হাজী হাবিবুর রহমান শাহেদ: সহ সম্পাদক: আজমাল মাহমুদ
সম্পাদক কর্তৃক বাড়ী বাড়ী নং- ৫৩/২, ৪র্থ তলা, রাজ-নারায়ন-ধর রোড, কিল্লার মোড় বাজার, লালবাগ, ঢাকা-১২১১
ফোন: ০১৯১৮-২০১৬২৬, ফোন: ০১৭১৫-৯৩৩১৬৮
ই-মেইল- notunvor.news@gmail.com
Designed By Hostlightbd.com
| Cyberboss.org