জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক
দৌলা হত্যার ৩ বছর পূর্তিতে যুবলীগ আয়োজিত স্মরণসভায়
এমপি ইমরান আহমদ

শোয়েব উদ্দিন,জৈন্তাপুর প্রতিনিধি
জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ এর সাবেক সাধারণ মুখলিছুর রহমান দৌলা ছিলেন সাধারণ মানুষের অত্যন্ত আপন জন। শ্রমজীবী মানুষের সুখে দুঃখে তার জীবন উৎসর্গ করে গেছেন। দীর্ঘ আঠারো বছর তিনি জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ এর সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে তিনি এ সংঠন কে শক্তি শালী করেছেন। অবিলম্বে দৌলা হত্যার বিচার খুনিদের ফাসি দাবি করে তিনি বলেন দৌলা হত্যার তিন বছর পরও বিচার না হওয়ায় তিনি উদ্বেগ প্রকাশ করেন।
জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগ এর উদ্যোগে জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মরহুম মুখলিছুর রহমান দৌলা’র তৃতীয় মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণ সভায় প্রধান অথিতির বক্তব্যে জাতীয় সংসদ সদস্য ও সিলেট জেলা আওয়ামীলীগ’র সহ সভাপতি ইমরান আহমদ একথা বলেন।
বুধবার বিকাল ৩টায় জৈন্তপুর উপজেলার ঐতিহাসিক বটতলায় উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আনোয়ার হোসেন’র সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহবায়ক কুতুব উদ্দিন’র পরিচালনায় অনুষ্ঠিত স্মরণ সভায় বিশেষ অথিতি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য শাহাদত রহিম, সিলেট জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি প্রকৌশলী এজাজুল হক এজাজ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি কামাল আহমদ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সহ সভাপতি আইউব আলী, এখলাছুর রহমান, গোয়াইনঘাট উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা আবুল কাশেম আনোয়ার শাহাদাৎ, শামসুল আলম, জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা উপাধ্যক্ষ শাহেদ আহমদ, আলহাজ্ব আলাউদ্দিন, আব্দুল কাদির, হাসিনুল হক হুসনু, মানিক দে, নিপেন্দ্র কুমার দে, নিপেন্দ্র কুমার দাস, সিরাজুল ইসলাম, আলহাজ্ব আতাউর রহমান, জৈন্তাপুর উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ফারুক আহমদ, কৃষক লীগের যুগ্ম আহবায়ক শামীম আহমদ, নিজপাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আতাউর রহমান বাবুল, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জলিল, চারিকাটা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এর সাধারণ সম্পাদক মারুফ আহমদ, সিলেট জেলা ছাত্র লীগের সাবেক স্কুল বিষয়ক সম্পাদক হোসাইন আহমদ, জমশেদ আলী, জালাল উদ্দিন, শহীদ আহমদ, জাকারিয়া মাহমুদ, কয়ছর আহমদ, যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক শাহিনুর রহমান, যুবলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য এবাদুর রহমান, মাসুদ আহমদ, সুমন আহমদ, রাসেল আহমদ, নসির আহমদ, নির্মল দেবনাথ, জালাল উদ্দিন, নিক্সন দে, শামীম আহমদ, বাদশা মিয়া, জুয়েল আহমদ ডালিম, কামরান আহমদ, লুৎফুর রহমান, সুলতান মাহমুদ টিটন, শ্রমিক লীগ নেতা আলতাফ হোসেন, সেচ্ছাসেবক লীগ নেতা এরশাদ চৌধুরী, দুলাল আহমদ, ছাত্রলীগ নেতা শাহীন আহমদ, মির্জান আহমদ রুবেল, পাপলু দে, মাহবুবুর রহমান সবুজ, মাইনুল হোসেন বীর, মনসুর আহমদ প্রমুখ।


অন্যকে বাঁচাতে গিয়ে ছিনতাকারীর ছুরিকাঘাতে নিহত কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের মেধাবী শিক্ষার্থী খন্দকার আবু তালহার নামে শিক্ষা বৃত্তি চালু করল ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের ১৭ তম সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজ বুধবার (১১ অক্টোবর) বিশ্ববিদ্যালয় মিলনায়তনে আয়োজিত এক সভায় আনুষ্ঠানিকভাবে এ ঘোষণা দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মোঃ সবুর খান। অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের জীবনবীমা বাবদ ৫ লক্ষ টাকার চেক নিহত শিক্ষার্থী আবু তালহা খন্দকারের বাবা আবু রিয়াজ মোঃ নুরুদ্দিন খন্দকারের হাতে তুলে দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইউসুফ এম ইসলাম, উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. এস এম মাহাবুব -উল-হক মজুমদার, ট্রেজারার হামিদুল হক খান, রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী ড. এ কে এম ফজলুল হক, পরিচালক (হিসাব ও অর্থ) মুমিনুল হক মজুমদার, প্রাইম ইসলামী লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানী লিমিেিটডের সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ আনিসুর রহমান মিয়া সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ। উল্লেখ্য, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সকল শিক্ষার্থী জীবনবীমার আওতাভূক্ত।
ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মোঃ সবুর খান বলেন, তালহার সাহসিকতাপূর্ণ ভূমিকাকে আমরা স্মরণে রাখতে চাই। এজন্য তালহার নামে একটি শিক্ষাবৃত্তি প্রবর্তনের সিদ্ধান্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের সভায় ইতিমধ্যেই গৃহীত হয়েছে। তিনি আরো বলেন, তালহা তার জীবন উৎসর্গ করার মধ্য দিয়ে আমাদেরকে যে শিক্ষা দিয়ে গেল, সেই শিক্ষা যদি আমরা আমাদের অন্তরে ধারণ করতে পারি এবং বাস্তব জীবনে প্রয়োগ করতে পারি তবেই তালহার আত্মা শান্তি পাবে। এসময় তিনি তালহার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান এবং তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফিতার কামনা করেন।
ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. সৈয়দ আকতার হোসেন বলেন, তালহা ছিল আমাদের সবার প্রিয় ছাত্র। সে ছিল একটি উজ্জ্বল নক্ষত্র। কতিপয় দুষ্কৃতকারী আমাদের এই নক্ষত্রকে কেড়ে নিয়ে নিয়েছে। এটা মেনে নেওয়া যায় না। এসব দুষ্কৃতকারীদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর এখনই সময়। এসময় তিনি অন্যায়ের বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।
প্রাইম ইসলামী লাইফ ইন্সুরেন্স লিমিটেডের সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ আনিসুর রহমান মিয়া বলেন, তালহার পিতা যে সম্পদ হারিয়েছেন তার কোনো বিকল্প নেই। সারা পৃথিবীর সমস্ত সম্পদ তার হাতে তুলে দিলেও এ ক্ষতি পূরণ করা সম্ভব নয়। তবু একটি শোক সন্তপ্ত পরিবারের পাশে থাকতে পেরে প্রাইম ইসলামী লাইফ ইন্সুরেন্স গর্ব বোধ করছে। এসময় তিনি বলেন, অপরাধীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হোক এটাই আমাদের একমাত্র চাওয়া। অপরাধীদের শাস্তি না হলে আমাদের সন্তানরা নিরাপদে ঘরে ফিরতে পারবে না। তাই আমাদের সবাইকেই এ ব্যাপারে সোচ্চার হতে হবে।
তালহার পিতা আবু রিয়াজ মোঃ নুরুদ্দিন খন্দকার বলেন, আমার সন্তানের রক্তের বিনিময়ে হলেও যেন বাংলাদেশ থেকে সকল অন্যায় দূর হয়। আর কোনো পিতার বুক যেন এভাবে খালি না হয়। এ সময় তিনি অন্যায়ের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদেরকে সারা বাংলাদেশে আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান।
এদিকে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা আজ ধানমন্ডিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধানক্যাম্পাস ও আশুলিয়ায় স্থায়ী ক্যাম্পাসে সহপাঠী তালহা’র হত্যাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে এক মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে। উল্লেখ্য, গত ৮ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাসের উদ্দেশ্যে যাওয়ার পথে রাজধানীর টিকাটুলির কে এম দাস লেনে সকাল সাড়ে ছয়টার চারজন ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতের শিকার হন ১৯ বছর বয়সী আবু তালহা। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে সকাল আড়ে আটটায় তার মৃত্যু হয়। পরিবারের সদস্য ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ক্লাসের উদ্দেশ্যে সকাল সাড়ে ছয়টায় কে এম দাস লেনের বাসা থেকে বের হয়ে প্রায় ১০০ গজ দূরে চারজন ছিনতাইকারীর কবলে পড়েন আবু তালহা। ছিনতাইকারীরা তার কাছ থেকে মোবাইল ও মানিব্যাগ কেড়ে নিয়ে যায় এবং একটু দূরে গিয়ে আরও একটি রিকশা আটকে যাত্রীদের কাছ থেকে মূল্যবান জিনিসপত্র ছিনতাই করতে থাকে। এসময় তালহা ছুটে গিয়ে ছিনকারীদের বাধা দিলে ছিনকারীরা এলোপাতারি ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।
ক্যাপশনঃ ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা আজ ধানমন্ডিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধানক্যাম্পাস ও আশুলিয়ায় স্থায়ী ক্যাম্পাসে সহপাঠী তালহা’র হত্যাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে এক মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে।

ঝিনাইদহ জেলা সংবাদদাতাঃ ঝিনাইদহ গনপুর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ জাকির হোসেনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হেেছ। জাতীয় পতাকা অবমাননা করে ফেসবুকে বিভিন্ন অশালীন মন্তব্য করায় অক্টোবর গৃহায়ন গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব শহীদ উল্লাহ খন্দকার সাময়িক বরখাস্তের প্রজ্ঞাপন জারী করেন। প্রজ্ঞাপনের আদেশে বলা হয়েছে, ঝিনাইদহ গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জাকির হোসেন তার নিজস্ব ফেসবুক আইডিতে প্রধানমন্ত্রী এবং জাতীয় পতাকাকে অবমাননা করে বিভিন্ন ধরনের অশালীন মন্তব্য করেছেন, যা সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা আপিল) বিধিমালা, ১৯৮৫ এর বিধি () অনুযায়ী অসদাচরণের শামিল। তাই তাকে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো। বিষয়টি নিয়ে ঝিনাইদহ গনপুর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ জাকির হোসেন জানান, ২০১৩ সালে আমি যখন ইংল্যান্ডে ট্রেনিংয়ে ছিলাম তখন আমার আইডি হ্যাক করে এমন করা হয়। বিষয়টির সাথে আমি জড়িত নয়। নির্বাহী প্রকৌশলী জাকির হোসেন রাজবাড়ী থেকে ঝিনাইদহ গনপুর্ত বিভাগে নির্বাহী প্রকৌশলী হিসেবে যোগদান করেন। তিনি কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বারখাদা গ্রামের মজিবর রহমানের ছেলে।


আব্দুর রউফ রিপন, নওগাঁ প্রতিনিধি ঃ নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার পাহাড়পুর ইউনিয়ন পরিষদে ই-সেবা নিতে আসা ব্যক্তির উপর প্রতিপক্ষের হামলায় প্রায় লক্ষাধীক টাকার সরকারী মালামাল নষ্ট হয়েছে এবং সেবা নিতে আসা মিনহাজুল ইসলাম রহেদ নামের এক ব্যক্তি আহত হয়েছে। সরকারী সম্পদ নষ্ট হওয়ার পরও ইউপি চেয়ারম্যান কোন ব্যবস্থা না নিয়ে রহস্যজনক ভাবে নিরব ভূমিকা পালন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত সোমবার বিকেলে ইউপির মালঞ্চা গ্রামের মতিয়ার রহমানের ছেলে মিনহাজুল ইসলাম রহেদ ইউনিয়ন তথ্য সেবা কেন্দ্রে জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট নিতে আসে। এসময় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে একই গ্রামের আসাদুজ্জামান হিট এর ছেলে মুনিরুজ্জামান মুন্না, মিতু, মানিক, মিসু এবং আরও কয়েকজনকে নিয়ে দেশীয় অস্ত্রসহ মিনহাজের উপর হামলা করে। হামলায় প্রাণের ভয়ে মিনহাজ ছোটাছুটি করলে তাদের লাঠির আঘাতে তথ্য কেন্দ্রের কম্পিউটার, ল্যাপটপ, প্রিন্টারসহ ই-সেবা কেন্দ্রের প্রায় লক্ষাধীক টাকার সরকারী সম্পদ নষ্ট হয়ে যায়। পরে তাদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মিনহাজের হাতের একটি আঙ্গুল কেটে যাওয়ায় সে মারাত্মক ভাবে আহত হয়। সংবাদ পেয়ে মিনহাজুলের পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে নিকটস্থ জয়পুরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। এই ঘটনায় সরকারের এত টাকার সম্পদ নষ্ট হলেও চেয়ারম্যানের পক্ষ হতে এখন পর্যন্ত কোন প্রকার আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়নি। এছাড়া মিনহাজের পক্ষ হতে বদলগাছী থানায় মামলা করতে গেলেও এখন পর্যন্ত কোন মামলা নেওয়া হয়নি। এতে করে এলাকাবাসীর মধ্যে একটি ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

পাহাড়পুর ইউনিয়ন পরিষদের পাশে স্যানিটারী ব্যবসায়ী মোস্তফা বেলাল বলেন, মারামারির খবর পেয়ে এসে দেখি মিনহাজ পরিষদের তথ্য কেন্দ্রের ঘরে বন্ধি আছে। আমরা তাকে মারাত্মক আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছি। যে ক্ষোভই থাক না কেন সরকারী একটি প্রতিষ্ঠানের ভিতরে এসে এভাবে কাউকে আক্রমন করা মোটেও ঠিক হয়নি। চেয়ারম্যানের উচিৎ এর সঠিক ব্যবস্থা নেওয়া।

পাহাড়পুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আমিনুল ইসলাম সহ স্থানীয় বাসিন্দা শামীম, রানা ও রাজু বলেন, একটি সরকারি প্রতিষ্ঠানে গিয়ে এভাবে হামলা করার পরও কোন আইনগত ব্যবস্থা না নেয়া হলে অন্য অপরাধিরাও একই রকম অপরাধ করার সাহস পাবে। চেয়ারম্যানের ভুমিকা পূরোটাই রহস্যজনক। অপরাধ করে এভাবে যদি টাকা দিয়ে মাফ পাওয়া যায় তাহলে অপরাধীরা অপরাধ করতেই থাকবে। হয়তো কাল আবার অন্য কেউ এসে একই আচরন করবে।

চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান কিশোর বলেন, হামলাকারীরা আমাদেরকে উদ্দেশ্য করে কোন হামলা করেনি। অন্য একজনের সঙ্গে বাহিরে মারামারির এক পর্যায়ে সে এখানে এসে আশ্রয় নিলে পুনরাই এখানে এসে তার উপর হামলা চালায়। এতে করে ই-সেবা কেন্দ্রের কিছু মালামালের ক্ষতি হয়েছে। তারা আমাকে ক্ষতি পুরুন দিতে চেয়েছে। সেজন্য কোন আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়নি। ইউএনও স্যারের চার্জে এসিল্যান্ড আছে তার সঙ্গে পরামর্শ করে বিষয়টি মিমাংসা করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, এই ঘটনায় যার উপর হামলা হয়েছে সে ইউনিয়ন পরিষদে বিচার চাইলে অবশ্যই যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
বদলগাছী থানার অফিসার ইনচার্জ জালাল হোসেন জানান, পাহাড়পুর ইউনিয়ন পরিষদের ই-সেবা কেন্দ্রে হামলার বিষয়টি শুনেছি। চেয়ারম্যান থানায় কোন অভিযোগ অথবা জিডি করতে আসেনি। আমি ছুটিতে ছিলাম এসে দেখি আহতের পরিবারের পক্ষ থেকে একটি অভিযোগ করা হয়েছে। অভিযোগ অনুযায়ী একটি অফিসারকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

বদলগাছী উপজেলা নির্বাহী অফিসারর (ভারপ্রাপ্ত) সুজিৎ দেবনাথ জানান, পাহাড়পুর ইউনিয়ন পরিষদের বিষয়টি আমার জানা আছে। বিষয়টি অনেকটা মিমাংসা হয়েছে ইউএনও স্যার ছুটি থেকে আসলে পুরোটাই সমাধান করা হবে। তিনি আরও বলেন, চেয়ারম্যান যদি জিডি না করে থাকে তাহলে তাকে দ্রুত জিডি করতে বলা হবে।

এখন থেকে বিকাশের মাধ্যমে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের টিকিট পাওয়া যাবে। বিমানের সব সেলস সেন্টার ও ওয়েবসাইট থেকে টিকিট কিনে বিকাশের মাধ্যমে মূল্য পরিশোধ করা যাবে।আজ বুধবার বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও বিকাশ এর মধ্যে এ সংক্রান্ত চুক্তি হয়েছে।  বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার এ এম মোসাদ্দিক আহমেদ এবং বিকাশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামাল কাদীর নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে সই করেন

এস.এম জামাল উদ্দিন ঃ ফটিকছড়ি- ভূজপুরের ইউনিয়ন পরিষদগুলোতে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন যথাযথ ভাবে সংরক্ষণ করা হচ্ছে না। এর ফলে ফটিকছড়ি এবং ভূজপুরে ভবিষ্যতে জন্ম ও মৃত্যর হার গণনা সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে নানান ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে বলে সচেতন মহল মনে করছেন।
জানা গেছে, ফটিকছড়ি পৌরসভার ওয়ার্ড এবং ভূজপুর সহ ১৮ টি ইউনিয়ন পরিষদ সমূহে যথাযথ ভাবে জন্ম ও মৃত্যু রেকর্ড সংরক্ষিত না থাকায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোতে ভর্তি এবং পাসপোর্ট ও ভিসা পাওয়ার ক্ষেত্রে এলাকাবাসীকে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। এলাকাবাসীর মতে স্থানীয় হাসপাতাল ক্লিনিক মাতৃ সনদ মা ও শিশু সাস্থ কেন্দ্রগুলো এমনকি এলাকার ধাত্রীগণের হাতে কোন শিশু জন্ম নিলে সাধারনত তাহা যথাযথ ভাবে কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়। ফলে প্রয়োজনীয় মুহুর্তে বিভিন্ন কর্মসূচী প্রনয়নের যথেষ্ট অসুবিধা দেখা দেয়। ফটিকছড়ি পৌরসভা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সূত্রে জানাই সুধু ফটিকছড়ি পৌরসভা নয় পুরো ফটিকছড়ি উপজেলার ২০ টি ইউনিয়নের অধিকাংশ মানুষ জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনের ব্যপারে কিছুই জানেন না। এ সম্পর্কে তাদের কোন ধারনা না থাকায় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনের সংখ্যা খুবই অল্প। বর্তমানে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি চাকুরী পাসপোর্ট ভিসা সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে জন্ম সনদ পত্র চাওয়া হয়। পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদে যথাযথ রেকর্ড সংরক্ষণ না থাকায় তারা এ সনদ প্রদান করতে পারছেন না। ফলে জনসাধারণ এ ধরনের কাজ গুলোতে জটিল পরিস্থিতির মুখোমুখি হচ্ছে। সরেজমিন পরিদর্শনে একজন ইউনিয়ন পরিষদ সচিব জানান তারা গত ৬/৭ বছরে প্রচূর পরিমাণে জন্ম সনদ পত্র প্রদান করেছেন। আমেরিকাগামী ডিভি লটারী বিজয়ীরা সাধারণত এ সব লটারী সংগ্রহ করেছেন। এ দিকে এ সব সনদ পত্র গ্রহণকারী কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানা যায় সাস্থ্য বিভাগ পৌরসভা এবং ইউনিয়ন পরিষদ থেকে প্রতিটি সনদ পত্রের জন্য উৎকোচ প্রদান করতে হয়। এই প্রতিবেদকের সাথে আলাপ কালে ফটিকছড়ি- ভূজপুরের কয়েকজন সমাজ কর্মী বলেন জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন একটি অতি জরুরী বিষয়। আর সে কারণে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনের জন্য গণসচেতনতা গড়ে তোলা বিশেষ প্রয়োজন। দূর্নীতি কমাতে জনসার্থে তথ্যটি সকলের জানা উচিত।

আবু বক্কর সিদ্দিক, গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধিঃ
গাইবান্ধার ফুলছড়িতে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রীসহ ধানের চারা বিতরণ করেছে বাংলাদেশ পুলিশ।
সোমবার বাংলাদেশ পুলিশের হেড কোয়ার্টরের পক্ষে ও গাইবান্ধা জেলা পুলিশের আয়োজনে উপজেলার ৫ শতাধিক বন্যা দুর্গত মানুষের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী ও আমণ ধানের চারা বিতরণ করেন- প্রধান অতিথি রাখেন, রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক। এ উপলক্ষ্যে জেলা পুলিশ সুপার-মাশরুুকুর রহমান খালেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান- হাবিবুর রহমান, ইউএনও- আব্দুল হালিম টলষ্টর, থানা অফিসার ইনচার্জ আশরাফুজ্জামান, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল গফুর মন্ডল প্রমুখ। এসময ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক বলেন- বাংলাদেশ পুলিশ সদস্যরা তাদের দুঃখ ভোগের অবসান ঘটাতে দেশের বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য একদিনের বেতন বরাদ্দ করেছে।
ডিআইজি আরো বলেন, ব্রহ্মপুত্র নদীতে বিশেষ করে অপরাধ, জলদস্যুতা না করতে পারে। সে জন্য স্থানীয়দের সমন্বয়ে কমিটি গঠন করে সতর্ক করে দিয়ে বলেন, ভবিষ্যতে কোন জঙ্গিরা যাতে চর এলাকায় প্রশিক্ষণ দিতে না পারে। পরে, ডিআইজি আনুষ্ঠানিক ভাবে বন্যার শিকার ও ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মধ্যে ত্রাণ সামগ্রী এবং আমন ধানের চারা বিতরণ করেন

সুন্দরগঞ্জে ভাঙ্গণ কবলিতদেরকে অর্থ প্রদান
আবু বক্কর সিদ্দিক, গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধিঃ
গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ ও নদী ভাঙ্গণ কবলিত ১০টি পরিবারকে নগদ অর্থ প্রদান করেছে ঢাকাস্থ টেক ক্লাউড লিমিটেড।সোমবার বিকেলে উপজেলার কাপাসিয়া ইউনিয়নের কছিম বাজারে এসব পরিবার প্রতি নগদ ৫ হাজার টাকা করে মোট ৫০ হাজার টাকা বিতরণ করেন- টেক ক্লাউড লিমিটেডের প্রডাকশন এডমিন অফিসার- ইউনুছ আলী। এসময় ছিলেন- ইউপি চেয়ারম্যান- জালাল উদ্দিন সরকার, সুন্দরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক- নুরে শাহী আলম লাবলু।
এছাড়া,উপস্থিত ছিলেন- বিভিন্ন ওয়ার্ড সদস্য- আব্দুস ছালাম, মামুন-অর-রশিদ, টুলু মিয়া, টেক ক্লাউড লিমিটেডের বিভিন্ন পদস্থ কর্মচারী- জিয়াউর রহমান, আরিফ আকন্দসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।


আবু বক্কর সিদ্দিক, গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধিঃ
গাইবান্ধার সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলার ১ হাজার ৪শ’ পরিবারের মাঝে কোরবানীর গোশত বিতরণ করা হয়েছে।
রবিবার সকালে দাতা সংস্থা ইসলামিক রিলিফ অব বাংলাদেশের অর্থায়নে বেসরকারী সংস্থা এসকেএস ফাউ-েশন এই গোশত বিতরণ করে। এতে প্রতিবন্ধী, বিধবা, স্বামী পরিত্যক্তা, বয়স্ক ও হতদরিদ্রদের মাঝে ২ কেজি করে গোশত বিতরণ করা হয়। সময় ছিলেন- সাঘাটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান- মোশাররফ হোসেন সুইট। ভরতখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান- সামছুল আজাদ শীতল। এছাড়া, ইসলামিক রিলিফ বাংলাদেশের প্রতিনিধি- জাকির হোসেন, এসকেএস ফাউ-েশনের বিভিন্ন প্রকল্প কর্মকর্তাগণের মধ্যে- আবু সাঈদ সুমন, মশিউর রহমান প্রধান, আবুল কালাম আজাদ ও জাহিদুল ইসলাম, শিক্ষক- মহসীন আলী, সাংবাদিক- রওশন আলম পাপুলসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল, টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধি
ফাতেমা আক্তার ঝুমা(২৫) নামে এক গৃহবধুর এক সঙ্গে তিন সন্তান প্রসব হয়েছে।আজ বৃহস্পাতবার টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে কুমুদিনী হাসপাতালে কোন সিজার ছাড়াই(নরমাল ভাবে) ঐ গৃহবধুর এক সঙ্গে তিন সন্তান প্রসব হয়।গৃহবধুর বাড়ি টাঙ্গাইল জেলার সখীপুর উপজেলা সদরের সখীপুর গ্রামে।আজ বৃহস্পতিবার কুমুদিনী হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেছে গৃহবধু ফাতেমা আক্তার ঝুমা সুস্থ্য রয়েছেন।কিন্ত তার নবজাতক তিন সন্তানের মধ্যে এক সন্তান সুস্থ্য এবং দুই সন্তান শারনীরিক ভাবে অসুস্থ্য রয়েছে।
গৃহবধুর স্বামী শিমুল আহম্মেদ জানান, তিনি সখীপুরে ব্যবসা করেন।তাদের সংসারের ময়না আক্তার(৫) নামে প্রথম এক কন্যা সন্তান রয়েছে।তিন স্ত্রীর এক সঙ্গে তিন সন্তান প্রসব হওয়ায় তিনি আনন্দিত হলেও নানা সংশয় দেখা দিয়েছে তাদের বাছিয়ে রাখা নিয়ে।স্ত্রী ফাতেমা সুস্থ্য হলেও নব জাতক তিন সন্তানের মধ্যে দুই সন্তান শারীরিক ভাবে অসুস্থ্য হয়ে পরেছে।দুই ছেলে ও এক মেয়ে সন্তান হলেও দুই সন্তান শারীরিব ভাবে বিকলান্ক।ফলে তাদের বাছিয়ে রাখাই দুষ্কর হয়ে পরেছে।তবে কুমুদিনী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও চিকিৎসকগন গৃহবধু ও তার তিন সন্তানকে বাছিয়ে রাখতে জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে শিশুল আহমেদ জানিয়েছেন।তিন নব জাতককে কুমুদিনী হাসপাতালের তিন তলায় শিশু ওয়ার্ডের আইসিইউতে (ইনসেন্টিভ কেয়ারে) রাখা হয়েছে।
এ ব্যাপারে কুমুদিনী হাসপাতালের পরিচারখ ডা. দুলাল চন্দ্র পোদ্দার ও সহকারী প্রষাক সৈয়দ হায়দার আলী বলেন, চিকিৎসক ও সেবিকাদের অক্লান্ত শ্রমের ফলে গৃহবধু ফাতেমা আক্তারের বিনা সিজারে নরমাল ভাবে তিন নব জাতকের জন্ম হয়েছে।বর্তমানে ও মা ও তার তিন সন্তান সুস্থ্য রয়েছে।

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি:
পবিত্র ঈদউল আযাহা উপলক্ষে এ্যাপেক্স ক্লাব গোপালগঞ্জ এর পক্ষ থেকে গরীব-অসহায় মানুষের মধ্যে ঈদ সামগ্রী বিতরন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় প্রেসক্লাব চত্তরে শতাধিক দরিদ্রের মধ্যে ত্রান সামগ্রী বিতরন করা হয়।
জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মাহবুব আলী খান প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে দরিদ্রদের মাঝে এসব সামগ্রী বিতরন করেন।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, এ্যাপেক্স কøাব গোপালগঞ্জ এর সভাপতি এপে. কবি কোহিনুর ইসলাম, সহ সভাপতি এপে. এসএম মুনির হিটলার, সাধারন সম্পাদক এপে. সৈয়দ মুরাদুল ইসলাম, সার্ভিস ডিরেক্টর এপে. খন্দকার মুরাদ আহম্মদ, কোষাধ্যক্ষ এপে. বুলবুল আলম বুলু, সার্জেন্ট অব এটার্মাস এপে. হুসাইন ইমাম সবুজ, এপে. শরিফ ফরিদ, এপে, ডা: আনিসুজ্জামান, এপে, সাহিদা আকতার লিপি, এপে. মো: সেলিম রেজা, এপে, জয়ন্ত শিরালী জয়, এপে, এস এম সাব্বির, এপে, রাকিব সহ অন্যান্য সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।