Category: ভিতরের পাতা

হাতিয়ায় সাংবাদিকদের সাথে মাহমুদ আলী রাতুলের ঈদ শুভেচ্ছা ও মতবিনিময়


নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ
নোয়াখালীর হাতিয়ায় সাংবাদিকদের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা ও মতবিনিময় করেন শিল্পপতি শহীদ পরিবারের সন্তান মাহমুদ আলী রাতুল ।আজ সকালে হাতিয়ার ওছখালিতে এই ঈদ শুভেচ্ছা ও মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়।
এসময় মাহমুদ আলী রাতুল সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, ছোটবেলা থেকে আমি আওয়ামীলীগের আদর্শ ও স্বাধীনতার চেতনা লালন করে আসছি। বর্তমানে হাতিয়ায় আওয়ামীলীগের দুইটি গ্রুপে বিভক্তির কারণে খুন-জখম ও মামলা হামলায় সাধারণ সমর্থকরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে এবং দলীয় ইমেজ নষ্ট হচ্ছে। এ অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য আমি হাতিয়ার আওয়ামীলীগের নেতাকর্মী ও সাধারণ লোকজনের আহ্বানে সাড়া দিতে বাধ্য হই।
মাহমুদ আলী রাতুল দেশের বিভিন্ন স্থানে এবং বিদেশে অবস্থানরত হাতিয়ার কৃতি সন্তানদেরকে নিয়ে হাতিয়ার সার্বিক উন্নয়ন ও নাগরিক সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে একটি প্রেসার গ্রুপ সৃষ্টির উদ্দেশ্যে কাজ করছেন বলে জানান। তিনি বলেন, শুধু রাজনীতি নয়, শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবা, নদী ভাঙ্গন, বিদ্যুত ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে এ প্রেসারগ্রুপ নিজের ব্যক্তি ইমেজ ব্যবহার করে স্থানীয় নেতৃবৃন্দের সাথে সমন্বয় সাধন করে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে কাজ করে যাবেন।
এসময় সাংবাদিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, কৃষ্ণ চন্দ্র মজুমদার, ইফতেখার হোসেন তুহিন, মোঃ ফিরোজ উদ্দিন, জি.এম ইব্রাহিম, সাখাওয়াত হোসেন, খলিল উল্যাহ চৌধুরী শাকিব, নজির আহাম্মদ, মুহাম্মদ কেফায়েতুল্ল¬াহ, তাজুল ইসলাম তছলিম, ছাইফুল ইসলাম এবং উত্তম সাহা।

ফুলবাড়ীয়ায় একই মাঠে ৩১০টি পশু কোরবানী

ফুলবাড়িয়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি ঃ ময়মনসিংহ জেলার ফুলবাড়ীয়া উপজেলার পুটিজানা ইউনিয়নে বৈইলাজান গ্রামে একইমাঠে ৩১০টি পশু কোরবানীর এবং ১৫০০টি খানায় পঞ্চায়াতরে বন্টন দেওয়া হয়েছে বলে জানা যায়।
সরজমিনেগিয়ে জানা যায়, বৈলাজান গ্রামের এ মাঠে প্রায় ২০০ বছর র্পূবে থেকে গ্রামবাসী একত্রে কোরবানী করে আসছে । এ গ্রামে পাচটি মসজদি সমাজ থাকলেও কোরবানীর মাঠ একটি । কোরবানী ঈদ আসলেই এ গ্রামে শুরু হয় এক অন্য রকম উৎসব । গরীব ধনী সকলরে মাঝে সৃষ্টি হয় এক ভ্রাতৃতরে বন্ধন । ভিন্ন মাঠে ঈদের নামাজ আদায় করলেও কোরবানীর পশু নিয়ে চলে আসে কোরবানীর মাঠে এবং কোরবানীর পশু জবাই করার পর ব্যস্ত হয়ে পরে নিজ নিজ পশুর মাংস তৈরীর কাজে । কোরবানীকৃত পশুর মাংস তিন ভাগ করে এক ভাগ মাংস যেখানে জমা দিতে হয় তাকে বলে হয় পঞ্চায়তে । পঞ্চায়েতের লোকজন তা গ্রামের ১৫০০টি খানায় সমান হারে বন্টন করে প্রতি ঘরে ঘরে পৌছে দেওয়ার ব্যবস্থা করে থাকে । ১১১ বছর বয়স্ক হাজী আমজাদ হোসনে বলেন, আমি ছোট থেকেই দেখে আসছি এ কোরবানীর মাঠ , আমার দাদারাও এ মাঠে কোরবানী করতো , তখন এত কোরবানী হতো না । সাংবাদিক হাফিজুল ইসলাম স্বপন বলেন, আমরা যারা এলাকার বাহিরে থাকি তারা সকলইে এই দিনটার জন্য অপেক্ষায় থাকি এবং অন্যকে আনন্দভরে এই দিনটি উপভোগ করি আমাদের মত এত বড় কোরবানীর মাঠ দেশে আরো কোথায় আছে কিনা আমার জানা নেই । পঞ্চায়েতের দায়িত্বে থাকা হারুন অর রশদি দুলাল ও নুরুল ইসলাম বলেন ,গত বছররে চেয়ে এ বছর কোরবানী বেশী হয়েেছ । ১২৫টি গরু ও ১৮৫টি খাসী, এ মাঠের রয়েছে নানা সমস্যা আবজনা পরিস্কারের তেমন কোন ব্যবস্থা নেই, পশুর রক্ত পরিস্কারের জন্য দরকার একটি টিউবওয়েল । র্বষা মৌসুমে পঞ্চায়তেরে মাংস বন্টন করতে কষ্ট হয় এর জন্য একটি ঘর দরকার।

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে বন্যায় রাস্তা-ঘাট ও ব্রিজ কাল-ভার্টের ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি॥যোগাযোগের ক্ষেত্রে এলাকাবাসির চরম দুর্ভোগ


মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল, টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধি
এ বারের বন্যায় টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলায় এলাকার রাস্তা-ঘাট ও ব্রিজ-কালভার্টের ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে। প্রাপ্ত তথ্যে অন্ততপক্ষে ৪০টি আঞ্চলিক সড়ক এবং ২০টি গ্রামীন ব্রিজের ক্ষতি হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ সোমবার উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, বন্যার পানি কমতে শুরু করলেও রাস্তা-ঘাট ভাঙ্গা হওয়ায় যোগাযোগের ক্ষেত্রে এলাকাবাসিকে চরম দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে।
অনুসন্ধানে জানা গেছে, বন্যায় উপজেলার পাকুল্যা-লাউহাটি রোড, পাকুল্যা-দেলদুয়ার রোড, গোড়াই-সখীপুর রোড,পেকুয়া-পাথরঘাটা রোড,সোহাগপাড়া-কোদালিয়া রোড,ধেরুয়া-বাইমাইল রোড, দেওহাটা-বহুরিয়া রোড,কুমারজানি-যুগিরকোপা রোড, দেওহাটা-কোদালিয়া রোড,বংশাই-গোড়াইল রোড,মির্জাপুর-ভাদগ্রাম রোড, কুরনি-ফতেপুর রোড,কদিমধল্যা-বরাটি রোড, কদিমধল্যা-মহেড়া রোড, কাটরা-উফুলকী রোড,পাকুল্যা-দেলদুয়ার রোড, পাকুর‌্যা-লাউহাটি রোড,জামুর্কি-মহেড়া রোডসহ গ্রামীণ অন্তত ৪০টি রাস্তা ভেঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পরেছে।এই সড়কগুলোর উপর নির্মিত গুনটিয়া ব্রিজ, চুকুরিয়া ব্রিজ, ভরড়া ব্রিজ,কদিমধ্যা ব্রিজ, আগধল্যা ব্রিজ,কুরনি ব্রিজ, হাটুভাঙ্গা ব্রিজ,পুষ্টকামুরী ব্রিজ,বহনতলী ব্রিজসহ অন্তত ২০টি পাকা ব্রিজের দু, পাশ ভেঙ্গে যানবাহন চলাচল বন্ধ হবার উপক্রম হয়েছে।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত সাদমীন বলেন, এবছর প্রচুর বৃষ্টি ও দীর্ঘস্থায়ী বন্যায় রাস্তা-ঘাট ও ব্রিজ কালভার্টসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং বসতবাড়ির ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে।ক্ষতিগ্রস্থ্য রাস্তা-ঘাট ও ব্রিজ কালভাটসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং বসতবাড়ির তালিকা তৈরীর জন্য উপজেলা প্রকল্পবাস্তবায়ন কর্মকর্তা এবং উপজেলা প্রকৌশল অধিদপ্তরকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

পটিয়ায় ৩দিনব্যাপি ফ্রি বাস সার্ভিসের উদ্ভোধন করলেন অালহাজ্ব শামসুল হক চৌধুরী এমপি  

পটিয়ার সর্বস্তরের মানুষের জন্য পবিত্র ঈদুল অাযহা উপলক্ষে ৭ বছর ব্যাপী এ ফ্রি বাস সার্ভিস কার্যক্রম। প্রতিবারের মত এবারও পটিয়ার সংসদ সদস্য অালহাজ্ব শামসুল হক চৌধুরী ৩দিনব্যাপী সকাল ৮টা রাত ১১ পর্যন্ত ফ্রি বাস সার্ভিসের উদ্ভোধন করেন। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্হিত ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণজেলা অাওয়ামীলীগের সহ সভাপতি অালহাজ্ব মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, পটিয়া পৌরসভা অাওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি অালহাজ্ব অাবুল কালাম অাযাদ, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান বাবু দেবব্রত দাশ দেবু, পটিয়া উপজেলা অাওয়ামীলীগনেতা অাব্দুল খালেক, জিরি ইউনিয়ন অাওয়ামীলীগের সভাপতি অাব্দুল্লাহ অাল হারুন, পটিয়া উপজেলা অাওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক এম,এ,রহিম,পটিয়া উপজেলা অাওয়ামীলীগনেতা এম, এজাজ চৌধুরী, বদিউল অালম তুষার, পটিয়া উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন সম্পাদক মাস্টার রিটন নাথ, সবুজ মেম্বার,রবিউল অালম ছোটন , চট্টগ্রাম সাহিত্য পাঠচক্রের সাধারণ সম্পাদক অাসিফ ইকবাল, পটিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কোরবান অালী, সাধারণ সম্পাদক মোঃ সোহেল,পটিয়া উপজেলা ছাত্রলীগনেতা ইকবালুর রহমান ওপেল,নাজিম উদ্দীন, সুমন, জাহাঙ্গীর, তৈয়ব প্রমুখ।এসময় অালহাজ্ব শামসুল হক চৌধুরী এমপি বলেন পটিয়া তথা দক্ষিণ চট্টগ্রামের মানুষের  যাত্রী হয়রানি লাগবে এবং যান চলাচলের সুবিধার্থে এ কার্যক্রম করে কিছুটা হলেও যদি মানুষের কল্যাণ হয় তাতেই অামাদের সার্থকতা।তিনি অারো বলেন পটিয়ায় বিগত ৯ বছরে প্রায় ১ হাজার কোটি টাকার উপরে উন্নয়ন হয়েছে । এ উন্নয়ন কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে । মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে  অার এ উন্নয়ন কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে অাগামীতে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করার জন্য সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রদল এর সহ-সভাপতি রফিক নিখোঁজ

ছনি চৌধুরী,হবিগঞ্জ প্রতিনিধি ॥॥
হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি মাধবপুর উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক আহ্বায়ক হোসাইন মোহাম্মদ রফিক নিখোঁজ হয়েছেন। মঙ্গলবার দুপুরে নিখোঁজ রফিকের পিতা জজ মিয়া এইমর্মে মাধবপুর থানায় একটি সাধারন ডায়রি (জিডি) করেন। নিখোঁজ রফিক মাধবপুর উপজেলার শাহজাহানপুর ইউনিয়নের উত্তর সুরমা গ্রামের বাসিন্দা। সূত্র জানায়, সোমবার রাত ১০টার দিকে উপজেলার তেলিয়াপাড়া বাজার থেকে মোটরসাইকেলে করে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে রাস্তা থেকে নিখোঁজ হন। এঘটনার পরদিন তার মোটরসাইকেলটি বাড়ির পাশে পাওয়া গেছে ও তার ব্যবহৃত দু’টি মোবাইল ফোনও বন্ধ রয়েছে। মাধবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোক্তাদির হোসেন পিপিএম হুসাইন মো. রফিকের নিখোঁজের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন তাকে উদ্ধারের জন্য পুলিশি চেষ্টা অব্যাহত আছে। সারা দেশে বেতার বার্তা প্রেরন করা হয়েছে।

উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকায় ভোট চাই. পানছড়িতে কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

SAMSUNG CAMERA PICTURES

বিপ্লব তালুকদার, খাগড়াছড়ি থেকে ঃ
যারা ৭৫ এর ১৫ আগষ্ট বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের নির্মম ভাবে হত্যা করেছিলো তাদের দোসররা আজো দেশে-বিদেশে বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল করার চক্রান্তে লিপ্ত রয়েছে, এই চক্রান্তকারীদের বিরুদ্ধে সকলকে সাথে নিয়ে সজাগ থাকতে হবে, আওয়ামীলীগ স্বাধীনতার স্বপক্ষের দল, তাই স্বাধীন বাংলায় সবার অধিকারের প্রতি শ্রদ্ধাশীল আ’লীগ, আওয়ামীলীগ দেশের উন্নয়নে কাজ করে, দেশের মানুষের উন্নয়নে কাজ করে, দেশের সুনাম বৃদ্ধির জন্য কাজ করে। প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা গুলো বলেন, খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি।
তিনি আজ মঙ্গলবার বিকাল ৪টায় পানছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনের উদ্যেগে জাতীয় শোক দিবস ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাত বার্ষিকীর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আরো বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বাংলার মাাটিতে হয়েছে, বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার এদেশের মাটিতেই হবে। আওয়ামীলীগ সঠিক, সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্টা এবং দেশের উন্নয়নে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে উলেøখ করে তিনি বলেন, আওয়ামীলীগ কারো প্রতি অন্যায় করে না সবাইকে সমান চোখে দেখে, তাই আগামী নির্বাচনে আবারো নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার আহবান জানান তিনি।
পানছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ বাহার মিয়া‘র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জয়নাথ দেব এর স্বাগত বক্তেব্যের আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা রণ বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা, কল্যাণ মিত্র বড়–য়া, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নির্মেলেন্দু চৌধুরী, পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য খগেশ্বর ত্রিপুরা, মংসাপ্রæ চৌধুরী অপু, শতরুপা চাকমা, এড. আশতোষ চাকমা, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমন্ডার মোঃ রইস উদ্দিন, মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র মোঃ শামসুল হক, কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামীলীগের সদস্য বাসন্তী চাকমা, জুয়েল চাকমা প্রমূখ।
পানছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক বিজয় কুমার দে ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ নাজির হোসেন এর পরিচালিত সভায় প্রধান অতিথি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু যে ভাবে সকল স¤প্রদায়ের মানুষকে সম্মান দেখিয়েছে জননেত্রী ঠিক সে ভাবে সকল স¤প্রদায়ের মানুষকে শ্রদ্ধা ও সম্মান প্রদর্শন করেন, তাই আসুন আমরা আগামী নির্বাচনে উন্নয়নের প্রতীক নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখি।

নওগাঁয় জেলা ছাত্রদলের ত্রান বিতরন

নওগাঁ প্রতিনিধিঃ নওগাঁয় জেলা ছাত্রদলের ত্রান বিতরন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার বন্যা দূর্গত নওগাঁ সদর উপজেলার বোয়ালিয়া এলাকায় ত্রান বিতরন করেছে নওগাঁ জেলা ছাত্রদল। বেলা ১১টা থেকে বোয়ালিয়া ও পাশ্ববর্তী এলাকার প্রায় ৫শ পরিবারের মধ্যে চাল, ডাল, তেল, স্যালাইন ও শুকনা খাবার বিতরন করা হয়। এ সময় জেলা বিএনপি’র সাধারন সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম ধলু, জেলা ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক ও জেলা বিএমপির সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আযম ভিপি রানা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শবনম মুস্তারি কলি, জেলা ছাত্র দলের যুগ্ম আহবায়ক কহিনুর ইসলাম, দিপু, শফিউল আলম টুটুল,থানা ছাত্র দলের সভাপতি শিপলু, সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
নওগাঁয় বন্যার্তদের পর্যাপ্ত ত্রান সরবরাহের দাবী ও অতিরিক্ত

টোল আদায়ের প্রতিবাদে সিপিবি’র মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত
নওগাঁ প্রতিনিধিঃ নওগাঁয় বন্যার্তদের যথাযথ ত্রান বিতরন, পশুর হাটসমুহে অতিরিক্ত টোল আদায়ের প্রতিবাদ এবং দূর্গত এলাকায় কৃষি ও ক্ষুদ্র ঋন গ্রহিতাদের কিস্তি আদায় স্থগিত রাখার দাবীতে সিপিবি নওগাঁ জেলা কমিটির পক্ষ থেকে সাংবাদিকদে সাথে মতবিনিময় করা হয়েছে। মঙ্গলবার জেলা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত হয়। নওগাঁ’র বিভিন্ন হাটে দ্বিগুনেরও বেশী টোল আদায় করা হচ্ছে এমন অভিযোগ এনে বক্তব্য রাখেন জেলা সিপিবি’র সভাপতি এ্যাড. মহসীন রেজা। এ সময় জেলা সিপিবি’র সাধারন সম্পাদক মোঃ শফিকুল ইসলাম, নওগাঁ জেলা প্রেস ক্লাবের সাংবাদিকবৃন্দ, জেলা ও থানা পর্যায়ের অনেক নেতা কর্মী উপস্থিত ছিলেন উপস্থিত ছিলেন।

বড় ভাই বউ নিয়ে আলাদা ! অসুস্থ বাবা-মা বোনের মুখে খাবার দিতে রিকশা চালক শিশু নবীগঞ্জে ১২বছরের শিশুর কাঁধে সংসারের বোঝা

ছনি চৌধুরী,হবিগঞ্জ প্রতিনিধি ॥॥
কাওছার আহমেদ বয়স মাত্র বারো। তার বেড়ে ওঠা অন্য শিশুদের চেয়ে অনেক আলাদা। মনে নেই আনন্দ মুখে নেই হাসি । ভাগ্য তাকে স্কুল থেকেও ফিরিয়ে এনেছে সংসারের ঘানি টানার নরকে। এখন আর বড় কিছু হওয়ার স্বপ্ন দেখে না কাওছার। কেবল অসুস্থ বাবা-মা আর এক বোনকে নিয়ে বেঁচে থাকার চেষ্টা তার। শিশু কাওছার আহমেদ নবীগঞ্জ উপজেলার বাউসা ইউনিয়নের গহরপুর গ্রামের মো. মাস্টর মিয়ার ছেলে। স্থানীয় দৌলতপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে কাওছার ঝরে পড়েছে অভাবের নির্মম কষাঘাতে। যে বয়সে বই-খাতা হাতে স্কুলে যাবে, আনন্দে-উৎসবে বেড়ে উঠবে শৈশব, সেই ছোট্ট বয়সে তাকে ধরতে হয়েছে সংসারের কঠিন হাল। মা-বোনদের মুখে ভাত দিতে চলছে তার জীবনসংগ্রাম। এমন সংগ্রামে হয়তো বেঁচে যাবে প্রাণ; কিন্তু বড় কিছু হওয়ার স্বপ্ন পুরণ হবে কি আর? ছোট্ট শরীরটা কি পারবে এতো ধকল সইতে? পারলে কতোদিনইবা পারবে? এক বছর আগে কাওছার যখন পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ছিল তখন তার বিভিন্ন রোগ দেখা দেয় এরপর থেকেই সংসারের হাল ধরতে হয় শিশু বারো বছরের শিশু কাওছারকে। পড়ালেখা ছেড়ে জীবিকার জন্য রিকশা চালাতে শুরু করে দেয় সে। সকালে ঘুম থেকে উঠে জীবিকার সন্ধানে ব্যাটারি চালিত রিকশা নিয়ে বের হতে হয় কাওছারকে। ঘরে ফেরা হয় তার রাতে । সারাদিন রোদে পুড়ে-বৃষ্টিতে ভিজে রিকশা টানতে হয় তাকে। এভাবেই প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে রিকশা চালায়। তবেই ঘরে চাল-ডাল-নুনের যোগান আসে। দু’ বেলা পেটে দুটো ডাল-ভাত পড়ে। অসুস্থ মা-বোন আর নিজের ক্ষুধা মেটে তাতে। বড় ভাই সালাম মিয়া সিএনজি চালান কিন্তু বিয়ে করার পর থেকে খোঁজ-খবর রাখছেন না বাবা-মায়ের বউ নিয়ে থাকছেন অন্যস্থানে । তাই পরিবারের হাল ধরেছে শিশু কাওছার
করুণ স্বরে কাওছার বলে ‘স্বপ্ন ছিলো লেখাপড়া অনেক বড় হবো। কিন্তু আমার স্বপ্ন- স্বপ্নই রয়ে যাবে। এখন আর স্বপ্ন দেখি না। অসুস্থ মা-বোনদের নিয়ে বেঁচে থাকার চেষ্টা করি। প্রতিদিন রিকশা চালিয়ে ৪’থেকে’৫শ টাকা পাই মালিক’কে দিতে হয় ২৫০টাকা বাকিটা দিয়েই চলে সংসারের খরচ ।

 

জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০১৬।বাইমহাটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় টাঙ্গাইল জেলায় শ্রেষ্ঠ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান হিসেবে নির্বাচিত

মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল,টাঙ্গাইল জেরা প্রতিনিধি
জনপ্রতিনিধি ও সমাজ উন্নয়নে দক্ষ সমাজকর্মী হিসেবে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর এনায়েত হোসেন মন্টু ও দক্ষ প্রশাসক হিসেবে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত সাদমীন এবং প্রাথমিক শিক্ষায় গুনগত মান উন্নয়ন ও ভাল ফলাফলের জন্য অনন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে বাইমহাটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় টাঙ্গাইল জেলায় শ্রেষ্ঠ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে।জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০১৬ উপলক্ষে টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসক খান মো. নুরুল আমিন মির্জাপুর উপজেলার এই দুই গুনী ব্যক্তি এবং এক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জেলায় শ্রেষ্ট হিসেবে ঘোষনা করেছেন।আজ মঙ্গলবার উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. খলিলুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেছেন প্রাথমিক ভাবে আজ দুই মহান ব্যক্তি ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বাইমহাটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হোসনেয়ারা বেগমকে আনুষ্ঠানিক ভাবে শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে।আগামী মাসিক সমন্ময় সভায় তাদের সংবর্ধনা দেওয়া হবে।
প্রাথমিক শিক্ষা অফিস ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় সুত্র জানায়, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের উদ্যোগ্যে প্রতি বছর প্রতিটি জেলায় বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে একজন শ্রেষ্ঠ জনপ্রতিনিধি, একজন শ্রেষ্ঠ উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং একটি শ্রেষ্ট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় বাছাই করা হয়।তারই অংশ হিসেবে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক ২০১৬ সালের জন্য টাঙ্গাইল জেলার ১২টি উপজেলার মধ্যে বাছাই পর্ব টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসকও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস প্রতিযোগিতার ব্যবস্থা করেন।গত ১৬ই আগস্ট জেলা প্রশসকের সম্মেলন কক্ষে বাছাই পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।বাছাই পর্ব অনুষ্ঠানে টাঙ্গাইল জেলার ১২টি ইউজলোর মধ্যে মির্জাপুর উপজেলার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর এনায়েত হোসেন মন্টু, মির্জাপুর উপজেলার নির্বাহী অফিসার ইসরাত সাদমীন ও মির্জাপুর উপজেলার বাইমহাটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় টাঙ্গাইল জেলায় শ্রেষ্ঠ ব্যক্তি ও শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে পুরষ্কার লাভ করে।বিচারক মন্ডলী হিসেবে ছিলেন টাঙ্গাইল জেরা প্রশাসক খান মো. নুরুল আমিন, অতিরিক্ত জেলা (প্রশাসক শিক্ষা) ও টাঙ্গাইল জেলার (ভারপ্রাপ্ত) জেলা শিক্ষা অফিসার এডিপি মো. মোস্তাফিজুর রহমান।
এ ব্যাপারে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর এনায়েত হোসেন মন্টু বলেন, আমি মির্জাপুর উপজেলার ১০ নং গোড়াই ইউনিয়নের পর পর ৫ বার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে জনগনের জন্য কাজ করেছি।গোড়াই ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান হিসেবে অব্যহতি দিয়ে গত ১০ বছর ধরে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করছি।আগামীতেও আমি দেশ ও জনগনের জন্য কাজ করতে চাই।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত সাদমীন বলেন, আমি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান।২৮ তম বিসিএসে সহকারী কমিশনার(ভুমি) হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হয়ে দেশ ও জনগনের সেবায় কাজ করে যাচ্ছি।আমি এনডিসি হিসেবে কাজ করে পদন্বনতি পেয়ে সম্প্রতি মির্জাপুর উপজেলায় ইউএনও হিসেবে যোগদান করেছি।মির্জাপুরে যোগদানের এলাকাবসির সার্বিক সহযোগিতায় মির্জাপুরকে একটি আদর্শ ও মডেল উপজেলা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছি।
বাইমহাটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হোসনেয়ারা বেগম বলেন, প্রাথমিক মিক্ষার মান উন্নয়ন ও গনগত পরিবর্তনের জন্য এলাকাবাসি, উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসন এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা একাব্বর হোসেনের সার্বিক সহযোগিতায় বাইমহাটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টিকে একটি আদশ্য ও অনন্য বিদ্যাপিঠ হিসেবে গড়ে তুলেছি।সমাপনী পরীক্ষায় শতভাগ গোল্ডেন প্লাস ও বৃত্তি লাভসহ সাংস্কৃতিক অংগনে এই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মেধার স্বাক্ষর রেখে চলেছে।
উপজেলা প্রাথমকি শিক্ষা অপিসার মো,.. খলিলুর রহমান বলেন প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০১৭ মির্জাপুর উপজেলার মহান দুই ব্যক্তি ও এক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জেলায় শ্রেষ্ঠ হওয়ায় মির্জাপুরবাসী গর্বিত।আগামী ১২ই সেপ্টেম্বর ঢাকা বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার মহোদয়ের কার্যালয়ের তাদের ডাকা হয়েছে।

রিলিফ নিয়ে দুর্নীতি করলে ছাড় দেয়া হবে না —ত্রাণ মন্ত্রী


শরীয়তপুর প্রতিনিধি:
দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেছেন, রিলিফ নিয়ে কেউ দুর্নীতি করলে ছাড় দেয়া হবে না। দুর্যোগ আসবে দুর্যোগ চলে যাবে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলার মানুষের পাশে আছেন। শেখ হাসিনা থাকতে বাংলাদেশের মানুষ কেউ না খেয়ে মরবে না। সোমবার শরীয়তপুরের জাজিরা ও নড়িয়ায় জেলা প্রশাসনের আয়োজনে পদ্মা নদীর ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত এবং পানিবন্দী দুঃস্থ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মন্ত্রী আরও বলেন, গত চার মাসে বাংলাদেশে বন্যা, পাহাড় ধস, নদী ভাঙনসহ বহু দুর্যোগ এসেছে। এই দুর্যোগে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, তাদেরকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ত্রাণ, চিকিৎসার জন্য ওষুধ, বিশুদ্ধ খাবার পানি, বাসস্থানসহ যা প্রয়োজনীয় সব কিছু দিয়েছেন। আমাদের খাদ্য, ত্রাণের অভাব নেই। যার যা সহযোগিতা দরকার তা আমরা দেব। যাদের খাবার দরকার খাবার দেব, যাদের ঘর দরকার ঘর দেব। ত্রাণ বিতরণকালে আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম বলেন, শেখ হাসিনা সকল দূর্যোগ-দূর্বিপাকে এদেশের মানুষের পাশে ছিলেন, আছে, আগামীতেও থাকবেন। তিনি এদেশের মানুষের উন্নয়নে কাজ করেন। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকলে এদেশের মানুষ ভাল থাকবে, বাংলাদেশ আরও এগিয়ে যাবে। শরীয়তপুরের জেলা প্রশাসক (ভারপ্রাপ্ত) মাহবুবা আক্তারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক এমপি, আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম, শওকত আলী এমপি, নাভানা আক্তার এমপি, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব শাহ্ কামাল, পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ মামুন, জাজিরা উপজেলা চেয়ারম্যান মোবারক আলী সিকদার, নড়িয়া উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম ইসমাইল হক, সাবেক ছাত্রনেতা জহির সিকদার, জাবি ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মেহেদী জামিল প্রমূখ।- প্রেসবিজ্ঞপ্তি।


সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: এ্যাডভোকেট শেখ মোঃ আব্দুল্লাহ
সম্পাদক-প্রকাশক : শেখ মোঃ তৈয়াবুর রহমান॥

যুগ্ম সম্পাদক: এস এম শাহিদুল আলম॥ সহযোগী সম্পাদক: শেখ মোঃ আরিফ আল আরাফাত
সহ-সম্পাদক: (প্রশাসন) হাজী হাবিবুর রহমান শাহেদ: সহ সম্পাদক: আজমাল মাহমুদ
সম্পাদক কর্তৃক বাড়ী বাড়ী নং- ৫৩/২, ৪র্থ তলা, রাজ-নারায়ন-ধর রোড, কিল্লার মোড় বাজার, লালবাগ, ঢাকা-১২১১
ফোন: ০১৯১৮-২০১৬২৬, ফোন: ০১৭১৫-৯৩৩১৬৮
ই-মেইল- notunvor.news@gmail.com
Designed By Hostlightbd.com
| Cyberboss.org