,

ThemesBazar.Com

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে কুমুদিনী হাসপাতালে এক গৃহবধুর এক সঙ্গে তিন সন্তান প্রসব

মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল, টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধি
ফাতেমা আক্তার ঝুমা(২৫) নামে এক গৃহবধুর এক সঙ্গে তিন সন্তান প্রসব হয়েছে।আজ বৃহস্পাতবার টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে কুমুদিনী হাসপাতালে কোন সিজার ছাড়াই(নরমাল ভাবে) ঐ গৃহবধুর এক সঙ্গে তিন সন্তান প্রসব হয়।গৃহবধুর বাড়ি টাঙ্গাইল জেলার সখীপুর উপজেলা সদরের সখীপুর গ্রামে।আজ বৃহস্পতিবার কুমুদিনী হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেছে গৃহবধু ফাতেমা আক্তার ঝুমা সুস্থ্য রয়েছেন।কিন্ত তার নবজাতক তিন সন্তানের মধ্যে এক সন্তান সুস্থ্য এবং দুই সন্তান শারনীরিক ভাবে অসুস্থ্য রয়েছে।
গৃহবধুর স্বামী শিমুল আহম্মেদ জানান, তিনি সখীপুরে ব্যবসা করেন।তাদের সংসারের ময়না আক্তার(৫) নামে প্রথম এক কন্যা সন্তান রয়েছে।তিন স্ত্রীর এক সঙ্গে তিন সন্তান প্রসব হওয়ায় তিনি আনন্দিত হলেও নানা সংশয় দেখা দিয়েছে তাদের বাছিয়ে রাখা নিয়ে।স্ত্রী ফাতেমা সুস্থ্য হলেও নব জাতক তিন সন্তানের মধ্যে দুই সন্তান শারীরিক ভাবে অসুস্থ্য হয়ে পরেছে।দুই ছেলে ও এক মেয়ে সন্তান হলেও দুই সন্তান শারীরিব ভাবে বিকলান্ক।ফলে তাদের বাছিয়ে রাখাই দুষ্কর হয়ে পরেছে।তবে কুমুদিনী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও চিকিৎসকগন গৃহবধু ও তার তিন সন্তানকে বাছিয়ে রাখতে জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে শিশুল আহমেদ জানিয়েছেন।তিন নব জাতককে কুমুদিনী হাসপাতালের তিন তলায় শিশু ওয়ার্ডের আইসিইউতে (ইনসেন্টিভ কেয়ারে) রাখা হয়েছে।
এ ব্যাপারে কুমুদিনী হাসপাতালের পরিচারখ ডা. দুলাল চন্দ্র পোদ্দার ও সহকারী প্রষাক সৈয়দ হায়দার আলী বলেন, চিকিৎসক ও সেবিকাদের অক্লান্ত শ্রমের ফলে গৃহবধু ফাতেমা আক্তারের বিনা সিজারে নরমাল ভাবে তিন নব জাতকের জন্ম হয়েছে।বর্তমানে ও মা ও তার তিন সন্তান সুস্থ্য রয়েছে।

ThemesBazar.Com

     More News Of This Category