জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০১৬।বাইমহাটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় টাঙ্গাইল জেলায় শ্রেষ্ঠ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান হিসেবে নির্বাচিত

মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল,টাঙ্গাইল জেরা প্রতিনিধি
জনপ্রতিনিধি ও সমাজ উন্নয়নে দক্ষ সমাজকর্মী হিসেবে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর এনায়েত হোসেন মন্টু ও দক্ষ প্রশাসক হিসেবে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত সাদমীন এবং প্রাথমিক শিক্ষায় গুনগত মান উন্নয়ন ও ভাল ফলাফলের জন্য অনন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে বাইমহাটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় টাঙ্গাইল জেলায় শ্রেষ্ঠ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে।জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০১৬ উপলক্ষে টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসক খান মো. নুরুল আমিন মির্জাপুর উপজেলার এই দুই গুনী ব্যক্তি এবং এক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জেলায় শ্রেষ্ট হিসেবে ঘোষনা করেছেন।আজ মঙ্গলবার উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. খলিলুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেছেন প্রাথমিক ভাবে আজ দুই মহান ব্যক্তি ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বাইমহাটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হোসনেয়ারা বেগমকে আনুষ্ঠানিক ভাবে শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে।আগামী মাসিক সমন্ময় সভায় তাদের সংবর্ধনা দেওয়া হবে।
প্রাথমিক শিক্ষা অফিস ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় সুত্র জানায়, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের উদ্যোগ্যে প্রতি বছর প্রতিটি জেলায় বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে একজন শ্রেষ্ঠ জনপ্রতিনিধি, একজন শ্রেষ্ঠ উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং একটি শ্রেষ্ট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় বাছাই করা হয়।তারই অংশ হিসেবে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক ২০১৬ সালের জন্য টাঙ্গাইল জেলার ১২টি উপজেলার মধ্যে বাছাই পর্ব টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসকও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস প্রতিযোগিতার ব্যবস্থা করেন।গত ১৬ই আগস্ট জেলা প্রশসকের সম্মেলন কক্ষে বাছাই পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।বাছাই পর্ব অনুষ্ঠানে টাঙ্গাইল জেলার ১২টি ইউজলোর মধ্যে মির্জাপুর উপজেলার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর এনায়েত হোসেন মন্টু, মির্জাপুর উপজেলার নির্বাহী অফিসার ইসরাত সাদমীন ও মির্জাপুর উপজেলার বাইমহাটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় টাঙ্গাইল জেলায় শ্রেষ্ঠ ব্যক্তি ও শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে পুরষ্কার লাভ করে।বিচারক মন্ডলী হিসেবে ছিলেন টাঙ্গাইল জেরা প্রশাসক খান মো. নুরুল আমিন, অতিরিক্ত জেলা (প্রশাসক শিক্ষা) ও টাঙ্গাইল জেলার (ভারপ্রাপ্ত) জেলা শিক্ষা অফিসার এডিপি মো. মোস্তাফিজুর রহমান।
এ ব্যাপারে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর এনায়েত হোসেন মন্টু বলেন, আমি মির্জাপুর উপজেলার ১০ নং গোড়াই ইউনিয়নের পর পর ৫ বার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে জনগনের জন্য কাজ করেছি।গোড়াই ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান হিসেবে অব্যহতি দিয়ে গত ১০ বছর ধরে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করছি।আগামীতেও আমি দেশ ও জনগনের জন্য কাজ করতে চাই।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত সাদমীন বলেন, আমি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান।২৮ তম বিসিএসে সহকারী কমিশনার(ভুমি) হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হয়ে দেশ ও জনগনের সেবায় কাজ করে যাচ্ছি।আমি এনডিসি হিসেবে কাজ করে পদন্বনতি পেয়ে সম্প্রতি মির্জাপুর উপজেলায় ইউএনও হিসেবে যোগদান করেছি।মির্জাপুরে যোগদানের এলাকাবসির সার্বিক সহযোগিতায় মির্জাপুরকে একটি আদর্শ ও মডেল উপজেলা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছি।
বাইমহাটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হোসনেয়ারা বেগম বলেন, প্রাথমিক মিক্ষার মান উন্নয়ন ও গনগত পরিবর্তনের জন্য এলাকাবাসি, উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসন এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা একাব্বর হোসেনের সার্বিক সহযোগিতায় বাইমহাটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টিকে একটি আদশ্য ও অনন্য বিদ্যাপিঠ হিসেবে গড়ে তুলেছি।সমাপনী পরীক্ষায় শতভাগ গোল্ডেন প্লাস ও বৃত্তি লাভসহ সাংস্কৃতিক অংগনে এই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মেধার স্বাক্ষর রেখে চলেছে।
উপজেলা প্রাথমকি শিক্ষা অপিসার মো,.. খলিলুর রহমান বলেন প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০১৭ মির্জাপুর উপজেলার মহান দুই ব্যক্তি ও এক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জেলায় শ্রেষ্ঠ হওয়ায় মির্জাপুরবাসী গর্বিত।আগামী ১২ই সেপ্টেম্বর ঢাকা বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার মহোদয়ের কার্যালয়ের তাদের ডাকা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: এ্যাডভোকেট শেখ মোঃ আব্দুল্লাহ
সম্পাদক-প্রকাশক : শেখ মোঃ তৈয়াবুর রহমান॥

যুগ্ম সম্পাদক: এস এম শাহিদুল আলম॥ সহযোগী সম্পাদক: শেখ মোঃ আরিফ আল আরাফাত
সহ-সম্পাদক: (প্রশাসন) হাজী হাবিবুর রহমান শাহেদ: সহ সম্পাদক: আজমাল মাহমুদ
সম্পাদক কর্তৃক বাড়ী বাড়ী নং- ৫৩/২, ৪র্থ তলা, রাজ-নারায়ন-ধর রোড, কিল্লার মোড় বাজার, লালবাগ, ঢাকা-১২১১
ফোন: ০১৯১৮-২০১৬২৬, ফোন: ০১৭১৫-৯৩৩১৬৮
ই-মেইল- notunvor.news@gmail.com
Designed By Hostlightbd.com
| Cyberboss.org