মসলার দাম উর্ধমুখী

ঈদুল আজহা এলেই বাড়ে মসলার কদর। ঈদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ে দাম। এবারের ঈদেও হয়নি এর ব্যতিক্রম। বাজারে বেড়েছে এলাচ ও জিরার দাম। দাম বাড়ায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন ক্রেতারা।
সরেজমিন কারওয়ান বাজার, মহাখালী, খিলগাঁও, যাত্রাবাড়ী এবং সায়েদাবাদসহ রাজধানীর বিভিন্ন মসলা বাজার ঘুরে দেখা যায়, সব বাজারেই বেড়েছে এলাচ ও জিরার দাম। এ ছাড়া মার্কেটে এখনো তেমন ভিড় নেই। টুকটাক কেনাকাটা চলছে। তবে ঈদের তিন দিন আগে থেকে বিক্রি বাড়বে বলে জানিয়েছেন বিক্রেতারা।
বাজার ঘুরে দেখা যায়, প্রতিকেজি ইন্ডিয়ান এলাচের দাম ছিল ১২৫০ টাকা, যেটা বেড়ে হয়েছে ১৩৮০ টাকা। অর্থাৎ কেজিতে বেড়েছে ১৩০ টাকা। এ ছাড়া প্রতিকেজি আমেরিকান এলাচের দাম ছিল ১৪৫০ টাকা, যেটা এখন ১৬৫০ টাকা। অর্থাৎ, দাম বেড়েছে ২০০ টাকা।
এ ছাড়া জিরার বাজার ঘুরে দেখা গেছে দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিকেজি ইন্ডিয়ান জিরার দাম ছিল ৩২০ টাকা, যেটা এখন বেড়ে হয়েছে ৩৭০ টাকা। অর্থাৎ কেজিতে বেড়েছে ৫০ টাকা। আর সিরিয়া থেকে আমদানিকৃত জিরার দাম ছিল ৩৪০ টাকা, যেটা বেড়ে হয়েছে ৪০০ টাকা। অর্থাৎ দাম বেড়েছে ১৬০ টাকা।
তবে গোলমরিচ, ধনিয়া, দারুচিনি এবং লবঙ্গসহ মসলা-জাতীয় পণ্যের চাহিদা বাড়লেও দাম তেমন বাড়েনি।
কারওয়ান বাজারের মসলা ব্যবসায়ী আবুল হোসেন বলেন, এলাচ ও জিরার দাম বেড়েছে। প্রতিবারই ঈদের আগে দাম বাড়ে। এ ছাড়া ডলারের দাম বাড়লেও এসব পণ্যের দাম বাড়ে। এলাচ কেজিতে সর্বোচ্চ ২০০ এবং
জিরা বেড়েছে ১৬০ টাকার মতো।তিনি বলেন, ঈদুল আজহায় মসলা সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়। বাজার এখনো তেমন জমে ওঠেনি। ঈদের তিন দিন আগে থেকে বিক্রি বাড়বে। তখন নিঃশ্বাস ফেলার সময় থাকবে না।
কারওয়ান বাজারে মসলা কিনতে আসা রোজি বেগম জানান, ঈদের জন্য মসলা কিনতে এসেছি। মসলার জন্য কারওয়ান বাজার ভালো। সবসময় এখান থেকেই কিনি।দাম বাড়ার বিষয়ে তিনি বলেন, কোরবানির ঈদ এলেই মসলার দাম বেড়ে যায়। এর ভুক্তভোগী হয় জনগণ। আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, সরকারের যে বাজার নিয়ন্ত্রণ সেল রয়েছে, তাদের উচিত বিষয়টি দেখা।
শুধু কারওয়ান বাজার নয়, মহাখালী কাঁচাবাজারে গিয়ে মিলেছে একই চিত্র। সেখানে দেখা গেছে, বাজারে বেড়েছে এলাচ ও জিরার দাম।মহাখালী কাঁচাবাজারের মসলা ব্যবসায়ী হুমায়ুন জানায়, কোরবানির ঈদ এলেই এলাচ ও জিরার দাম বাড়ে। এবারও এর ব্যতিক্রম হয়নি।মার্কেটে জিরা কিনছিলেন আনোয়ার হোসেন। তিনি বলেন, ঈদ এলেই মসলার দাম বাড়ে। এ আর নতুন কী, সব বিপদেই আমাদের সরকারের কিছুই করার নেই।
এ বিষয়ে কারওয়ান বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি বাবুল মিয়া জানান, অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে কোরবানির ঈদে গরম মসলার চাহিদা কয়েক গুণ বাড়ে, তাই দামও বেড়ে যায়। দেশের বাজারে মসলার দাম আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে নির্ধারিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: এ্যাডভোকেট শেখ মোঃ আব্দুল্লাহ
সম্পাদক-প্রকাশক : শেখ মোঃ তৈয়াবুর রহমান॥

যুগ্ম সম্পাদক: এস এম শাহিদুল আলম॥ সহযোগী সম্পাদক: শেখ মোঃ আরিফ আল আরাফাত
সহ-সম্পাদক: (প্রশাসন) হাজী হাবিবুর রহমান শাহেদ: সহ সম্পাদক: আজমাল মাহমুদ
সম্পাদক কর্তৃক বাড়ী বাড়ী নং- ৫৩/২, ৪র্থ তলা, রাজ-নারায়ন-ধর রোড, কিল্লার মোড় বাজার, লালবাগ, ঢাকা-১২১১
ফোন: ০১৯১৮-২০১৬২৬, ফোন: ০১৭১৫-৯৩৩১৬৮
ই-মেইল- notunvor.news@gmail.com
Designed By Hostlightbd.com
| Cyberboss.org