,

ThemesBazar.Com

নবীগঞ্জে বরাবরের মতো সড়ক নির্মাণে অনিয়ম পত্রিকায় লিখলে কিছু হয়না,প্রতিবেদকে দেখে নেওয়ার হুমকী ঠিকাদারের

ছনি চৌধুরী,হবিগঞ্জ প্রতিনিধি ॥॥
হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার পুরাতন সড়ক বা নতুন সড়ক নির্মাণ কাজেনেই সত্যতার চিহ্ন । বরাবরের মতো সড়ক নির্মাণের কাজে দুর্নীতির শেষ নেই । বাংলাদেশ সরকার সড়ক তৈরির জন্য কোটি কোটি টাকা ব্যয় করলেও অসাধু ঠিকাদারদের কারণে নিম্ন মানের সড়ক তৈরি হচ্ছে যা সড়ক নির্মাণের কিছুদিনের মাথায় কার্পেটিং কাগজের মতো উঠে যাচ্ছে। নিম্ন মালামাল এবং কাজের অনিয়ম চোখে আঙ্গুল দিয়ে দড়িয়ে দেওয়ায় এবার পত্রিকায় লিখলে কিছু হয়না এবং প্রতিবেদকে দেখে নেওয়ার হুমকী দিলেন ঠিকাদার আব্দুস সামাদ আজাদ । নবীগঞ্জ উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের সদরঘাট গ্রামে ২কিলো মিটার রাস্তা পাকা সড়ক নির্মাণের জন্য এলজিআইডি কর্তৃক রাস্তা নির্মাণ কাজ হাতে নেয় বানিয়াচং উপজেলার  আব্দুস সামাদ আজাদ নামে এক ঠিকাদার। গত (১৭) জুন সরেজমিনে গিয়ে দেখা  যায়,সরকারী কাজে নিয়োজিত কর্মচারীরা উত্তর দেবপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় হইতে  সদরঘাট মসজিদের সামনা পর্যন্ত প্রায় ২কিলো মিটার পাকা সড়ক নির্মাণের কাজ ফেলে রেখে একটি বাড়ির রাস্তা পাকা করণে তারা ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। দেড় লক্ষ টাকার বিনিময় ব্যক্তিগত বাড়ির রাস্তাটি করে দিয়েছে সরকারী কাজে নিয়জিত ঠিকাদার এবং কর্মচারী  । সরকারী কাজে নিয়জিত কর্মচারীরা কিভাবে সরকারী কাজ ফেলে অন্যজনের ব্যক্তিগত বাড়ির রাস্তা নির্মাণের কাজে জড়িয়ে পড়ে এমন প্রশ্ন প্রশাসনের দিকে ছুড়ে দিচ্ছেন সচেতন মহল । এদিকে উক্ত ২ কিলোমিটার সড়কে দেয়া হয়নি পর্যাপ্ত পরিমান,কংক্রিট,পথরের  গুড়া,বালু,পানি ইত্যাদি। সড়কের পাশে গাইড ওয়াল হাইড ১৮ ইঞ্চি,নিচে ২০ইঞ্চি তার উপরে ১৫ইঞ্চি দেওয়ার কথা থাকলেও দেয়া হয়েছে হাইড ১০ ইঞ্চি,নিচে ১১ ইঞ্চি,উপরে ৭ইঞ্চি ।  এতেই শেষ নয় গাইড ওয়াল দেওয়ার ১৫দিন পার হতে না হতেই গাইড ওয়ালের একাধিক স্থানে দেখা দিয়েছে ফাটল । সড়কে ৪ ইঞ্চি কনক্রিট দেওয়ার কথা থাকলেও দেয়া হয়েছে ২/৩ ইঞ্চি, রাস্তার পাশে মাটি ভরাট এবং বস্তা ভর্তি বালু দেওয়ার কথা থাকলে রাস্তার সীমানার কয়েক  কিলো মিটারের জায়গার মধ্যে এমন চিত্র দেখা যায়নি । রাস্তায় দেয়া হয়নি বালু,পানি,রোলার। উক্ত সড়ক নির্মাণে রাস্তার পুরাতন ইট পাশের সড়কের দেয়ার কথা থাকলে ও তা দেয়া হয়নি এইসব পুরাতন ইট ব্যবহার করা হয়েছে  আগের সড়কেই পুরাতন ইট ব্যবহার করার পরও পর্যাপ্ত পরিমান ইট,করক্রিট দেয়া হয়নি সড়কে এমন চিত্র সরেজমিনে গিয়ে প্রতিবেদক চোখে আঙ্গুল দিয়ে দড়িয়ে দিলে বার বার কথা এড়িয়ে যাওয়ার ব্যর্থ চেষ্টা করেণ ঠিকাদার আব্দুস সামাদ আজাদ পরে এইসব অনিয়ম সমাধান করবেন কী না ?? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন পত্রিকায় লিখে আমার কিছু করতে পারবেনা তকে আমি দেখে নেব । এদিকে সড়কে শুধু কেরসিন দিয়ে রাস্তায় নির্মাণ কাজ শুরু করতে চাইলে বাধা দেয় স্থানীয় জনসাধারণ । স্থানীয় লোকজন জানান,কাজের কাজ কিছুই করছেনা সব কিছুতে বাটপারি, পর্যাপ্ত বালু,কংক্রিট কিছুই দেয়া হয়নি এই রাস্তার দিকে উপজেলা এবং জেলা প্রশাসন নজর দেয়া উচিত । এব্যাপারে নবীগঞ্জ উপজেলা ইঞ্জিনিয়ার সাঈদুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে প্রতিবেদকের সাথে খারাপ আচরণ করা ঠিকাদারের উচিত হয়নি বলে জানান, রাস্তায় কাজ চলেছে আমি বিষয়টি দেখছি,এই রাস্তার জন্য কথা টাকা বরাদ্দ এসেছে জানতে চাইলে তিনি আরো জানান,২৪ লক্ষ টাকার বরাদ্দ এসেছে ।  উক্ত সড়কের দিকে জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের সু-দৃষ্ঠি কামণা করছেন  এলাকাবাসী ।

ThemesBazar.Com

     More News Of This Category