,

ThemesBazar.Com

টঙ্গীতে আবাসিক হোটেল থেকে ৪০ পতিতা-খদ্দর গ্রেফতার


এস,এম মনির হোসেন জীবন : অসামাজিক কার্যকলাপের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে গাজীপুর মহানগরী শিল্পনগরী টঙ্গীর তিনটি আবাসিক হোটেলে অভিযান চালিয়ে ৪০ জন পতিতা ও খদ্দর (তরুণ-তরুণী)কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে গ্রেফতারকৃত পতিতা ও খদ্দরকে গাজীপুর আদালতে পাঠানো হয়েছে।
বুধবার রাত ৮টার দিকে টঙ্গীর আবাসিক হোটেল বন্ধু, সুন্দরবন, অনামিকা থেকে ৪০জন তরুন-তরুনীকে গ্রেফতার করে টঙ্গী মডেল থানা পুলিশ।
টঙ্গী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) মো. হাসানুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
পুলিশ ও এলাকাবাসিরা জানান, বুধবার রাত ৮টার দিকে গাজীপুরের টঙ্গীর আবাসিক হোটেল বন্ধু, সুন্দরবন, অনামিকাসহ কয়েকটি হোটেলে এলাকাবাসিদের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ঝটিকা অভিযান চালানা হয়। পুলিশী অভিযান চলাকালে হোটেলে থাকা পতিতা ও খদ্দররা কৌশলে হোটেলের দুই তলা তিন তলা থেকে লাফ দিয়ে পালানোর চেষ্টা চালঅয়। এসময় টঙ্গী এলাকার সাধারণ জনগণ তরুন-তরুরী এসব পতিতা ও খদ্দরদেরকে ধরে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।
টঙ্গী মডেল থানার (ওসি তদন্ত) মো. হাসানুজ্জামান জানান, ঈদের ছুটিতে গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গীতে আবাসিক হোটেল গুলোতে অসামাজিক কার্যকলাপ (পতিতা ব্যবসা) অবাধে চলছে। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার রাতে টঙ্গী এলাকায় হোটেল বন্ধু, সুন্দরবন, অনামিকাসহ কয়েকটি হোটেলে অভিযান চালিয়ে ৪০জন তরুণ-তরুণীদের আটক করা হয়। পরে পুলিশ তাদেরকে জিঞ্জাসাবাদ করে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে গাজীপুর আদালতে পাঠান।
এলাকাবাসিরা জানান, দীর্ঘ দিন ধরে টঙ্গীর বিভিন্ন আবাসিক হোটেল অসামাজিক কার্যকলাপ (দেহ ব্যবসা) অবাধে চলে আসছিল। এসব হোটেলে টঙ্গী এলাকার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্টানে শিক্ষার্থীরা, পোষাক শ্রমিক ও খেটে খাওয়া মানুষের অবাধ যাতায়াত ছিল।
উল্লেখ্য যে, গত চলতি মাসে গাজীপুর মহানগরী টঙ্গী ও জয়দেবপুর থানা এলাকার বিভিন্ন আবাসিক হোটেল ও বাসা বাড়িতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ ও আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা প্রায় ২শ পতিতা-খদ্দরকে গ্রেফতার করেছে।

ThemesBazar.Com

     More News Of This Category