আন্তর্জাতিক

বাংলাদেশ রোহিঙ্গা সংকটে যে চার দেশের সহায়তা চায় ||দৈনিক নতুন ভোর

  মিয়ানমারে অনুষ্ঠেয় এশিয়া ও ইউরোপের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠক (আসেম) সামনে রেখে রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে মিয়ানমারের সীমান্তসংলগ্ন চারটি প্রতিবেশী দেশের সহায়তা চেয়েছে বাংলাদেশ। ভারত, চীন, থাইল্যান্ড ও লাওস এ চারটি দেশের রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের নিজের দেশে ফেরাতে এ সহযোগিতা চান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। গতকাল দুপুরে রাজধানীর রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন

আন্তর্জাতিক

Categories

আইন-আদালত

রাজধানীর তুরাগের রানা ভোলা এলাকা থেকে বিরল প্রজাতির ৬৪০ কচ্ছপ ও কুমির উদ্ধার ॥ আটক-১

আইন-আদালত

হত্যা মামলায় ওসির ১০ বছরের জেল!

আইন-আদালত

ক্ষামতা হারানোর ভয়ে প্রধানমন্ত্রী ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছেন -কুড়িগ্রামে বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ

আইন-আদালত

ফুলবাড়ীয়ায় শিক্ষকের কারাদন্ডফুলবাড়ীয়ায় শিক্ষকের কারাদন্ড

আইন-আদালত

ভুমিহীনদের জমি দখলকারী সেই ইউপি মেম্বরের বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশ আদালতের

আইন-আদালত

বিরোল ও খাসামা থানায় ”ব্লক রেইড”

আইন-আদালত

নবীগঞ্জে বরাবরের মতো সড়ক নির্মাণে অনিয়ম পত্রিকায় লিখলে কিছু হয়না,প্রতিবেদকে দেখে নেওয়ার হুমকী ঠিকাদারের


November eighteen, 2017

বাস্তুবিদ্যা ফেং শুই মানুষের ভাগ্যের সর্বাঙ্গীন উন্নতির ব্যাপারে নানাবিধ পরামর্শ দিয়ে থাকে। একজন মানুষের ভাল থাকা অনেকটাই নির্ভর করে তার আর্থিক অবস্থার উপর। কীভাবে আর্থিক অবস্থার উন্নতি সাধন করা সম্ভব, এবং কীভাবেই বা এড়ানো যেতে পারে আর্থিক দুর্ভাগ্য, সেই বিষয়েও ফেং শুই সুস্পষ্ট নির্দেশ দেয়। কী সেই সমস্ত নির্দেশ? আসুন, জেনে নেওয়া যাক—

১. ফেং শুই মনে করে, টাকাই টাকাকে আকর্ষণ করে। ফলে যে মানুষ টাকা-পয়সার প্রতি যত্নবান নন, তার আর্থিক ভাগ্যও ভাল হয় না। ফেং শুই-এর প্রথম পরামর্শ, টাকা-পয়সা দেওয়া বা গ্রহণের সময় নোট বা কয়েনের প্রতি যত্নবান হোন।

২. টাকা ব্যবহারের সময় তা ছিঁড়ে যাওয়া, কিংবা হাত থেকে টাকা কিংবা কয়েন মাটিতে পড়ে যাওয়াকে অশুভ বলে মনে করে ফেং শুই। এমনটা কারো ক্ষেত্রে হলে, তাঁকে আর্থিক ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে— এমনটাই বিশ্বাস ফেং শুই-এর।

৩. কারো কাছ থেকে টাকা নেওয়ার সময়ও সতর্ক থাকতে হবে আপনাকে। দেখে নিতে হবে, যে টাকাগুলি নিচ্ছেন, সেগুলো সব ঠিকঠাক রয়েছে কি না। ময়লা বা ছেঁড়াখোঁড়া নোট যদি আপনার মানিব্যাগ বা পার্সে থাকে, তাহলে অর্থ উপার্জনের ক্ষেত্রেও আসবে বাধা।

৪. অনেক সময়েই রং লাগা হাতে আমরা টাকা ধরে ফেলি। এর ফলে রং লেগে যায় টাকাতেও। ফেং শুই মতে, এটা অত্যন্ত খারাপ অভ্যেস। টাকায় রং লেগে গেলে চেষ্টা করুন, সেই টাকা দ্রুত অন্য কারো হাতে তুলে দিতে। নইলে আপনার আর্থিক ক্ষতি হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

৫. মানিব্যাগ এবং পার্সের অবস্থার উপরেও নির্ভর করে আপনার আর্থিক ভাগ্য। যদি ছেঁড়াখোঁড়া বা রং ওঠা পার্স ব্যবহার করেন, তাহলে আপনার বড় রকমের অর্থ অপচয় হয়ে যেতে পারে।

৬. ফেং শুই মতে, সোনার জলে রং করা রুপোর কয়েন নিজের পার্সে রেখে দেওয়া অত্যন্ত শুভ। এমনটা করা হলে, অর্থ আকৃষ্ট হয়, এবং আপনার আর্থিক অবস্থার উন্নতি হয়।


November eighteen, 2017

যশোরে প্রতারক এক যুবকের ফাঁদে পড়ে চট্টগ্রামের আগ্রাবাদের এক স্কুলশিক্ষিকাকে হোটেলে আটকে রাখার ঘটনা ঘটেছে। তবে পুলিশের অভিযানে ওই যুবক ধরা পড়ে। তাকে আজ শুক্রবার সকালে চট্টগ্রামে নিয়ে আসা হয়েছে। চট্টগ্রাম মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় যশোর কোতোয়ালি থানার মাইকপট্টি কেশব লাল রোডের একটি হোটেল থেকে ওই শিক্ষিকাকে উদ্ধার করে। গ্রেপ্তার করেন তারিকুল ইসলাম নামের ওই যুবককে।

অভিযান পরিচালনায় নেতৃত্ব দেওয়া নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার আবু বকর সিদ্দিক শুক্রবার সকালে সাংবাদিকদের জানান, ফেসবুকে স্কুল শিক্ষিকার বন্ধুত্ব হয় যশোরের খালিশপুর এলাকার তারিকুল ইসলামের সঙ্গে। বন্ধুর আহ্বানে গত মঙ্গলবার চট্টগ্রাম থেকে যশোরে ছুটে যান ওই শিক্ষিকা। এরপর রূপ পাল্টে ফেলেন তারিকুল ইসলাম।

ওই শিক্ষিকাকে যশোর কোতোয়ালি থানার মাইকপট্টি কেশব লাল রোডের একটি হোটেলে মঙ্গলবার রাতভর আটকে রেখে। বুধবার সকালে ওই যুবক শিক্ষিকার পরিবারের কাছে মুক্তিপণ দাবি করে। পরিবার পুলিশকে বিষয়টি জানায়। ওই দিন পুলিশ গোপন তথ্যের ভিত্তিতে যুবকটির অবস্থান নির্ণয় করে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় যশোর গিয়ে অভিযান চারিয়ে আটকে রাখা শিক্ষিকাকে উদ্ধার করা হয়।

ওই শিক্ষিকা আগ্রাবাদ এলাকায় একটি কিন্ডারগার্টেনের শিক্ষকতা করেন। এর বাইরে আর কোন তথ্য দিতে রাজি হননি অতিরিক্ত উপকমিশনার আবু বকর সিদ্দিক। তবে প্রতারক যুবক তারিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।

অতিরিক্ত উপকমিশনার আবু বকর সিদ্দিক বলেন, তারিকুল ইসলাম ভুয়া নাম-ঠিকানা দিয়ে একাধিক ফেসবুক আইডি খোলেন। তার সম্পর্কে না জেনে-শুনে চলে যান স্কুলশিক্ষিকা। এ রকম ভুয়া নাম ঠিকানা দিয়ে অনেকে ফেসবুকে আইডি খুলেছে। যাদের সম্পর্কে না জেনে তাদের কাছে চলে যাওয়া মোটেও ঠিক নয়। এ ব্যাপারে তরুণীদের সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।


November eighteen, 2017

নাগরিক সমাবেশে অংশ নিতে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জড়ো হতে শুরু করেছে নাগরিক সমাজের নেতৃবৃন্দসহ সাধারণ মানুষ। দুপুর আড়াইটায় আনুষ্ঠানিকভাবে সমাবেশ শুরু হবে।

সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দিবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সমাবেশে সভাপতিত্ব করবেন এমেরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে বঙ্গবন্ধুর ভাষণকে স্বীকৃতি দেওয়ায় বাংলাদেশে নিযুক্ত ইউনেস্কোর কান্ট্রি ডিরেক্টর বিট্রিস কালদুলের হাতে সমাবেশ থেকে একটি ধন্যবাদ প্রস্তাব হস্তান্তর করা হবে।

সমাবেশে আরও বক্তব্য দেবেন নজরুল গবেষক অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম, সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার, শহীদ জায়া শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের প্রমুখ।

নাট্যব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার ও শহীদ বুদ্ধিজীবী আবদুল আলীম চৌধুরীর মেয়ে ডা. নুজহাত চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আবৃত্তি করবেন কবি নির্মলেন্দু গুণ ও সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর।

নাগরিক সমাবেশ ঘিরে সকাল থেকে আওয়ামী লীগ, এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আসতে শুরু করেছেন। তারা বিভিন্ন ব্যানার, ফেস্টুন ও ৭ মার্চের ভাষণের ছবি সম্বলিত প্লা-কার্ড বহন করছেন।

সমাবেশ ঘিরে আগেই শাহবাগ এলাকার যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। এরপরও এর প্রভাবে সাপ্তাহিক ছুটির দিন হলেও অন্য এলাকায় গাড়ির বাড়তি চাপ দেখা গেছে।আওয়ামী লীগের নির্বাচনী প্রতীক নৌকার আদলে মূল মঞ্চ সাজানোসহ সমাবেশস্থলের আশপাশ এলাকা সাজানো হয় হয়েছে বর্ণিল সাজে। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের রমনা সংলগ্ন ফটক দিয়ে সমাবেশের অতিথিদের যাতায়াতের রাস্তা সাজানো হয়েছে বঙ্গবন্ধুর ভাষণের উল্লেখযোগ্য বক্তব্যগুলো দিয়ে।

 

বিয়ের আগে গর্ভবতী হওয়া যায় না এমন ধারণা ধীরে ভেঙ্গে যাচ্ছে উপমহাদেশীয় সমাজে। আর এই প্রথা ভাঙ্গার খেলায় অগ্রগামী হলেন তারকারা।

আরও নির্দিষ্ট করে বললে বলিউড তারকারা। বিয়ের আগেই অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন এমন কয়েকজন বলিউড অভিনেত্রীদের সম্পর্কে জেনে নিন:

শ্রীদেবী : শ্রীদেবী হলেন বলিউডের একমাত্র নায়িকা যিনি খোলাখুলি স্বীকার করেছেন যে তিনি বিয়ের আগেই অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছিলেন। ১৯৯৬ সালে বনি কপূরের সঙ্গে যখন শ্রীদেবীর বিয়ে হয় তখন তিনি ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। এই হিসেব থেকে অনেকেই এই সিদ্ধান্তে পৌঁছে ছিলেন, যখন বনির সন্তানের গর্ভধারণ করেন‌ শ্রীদেবী তখনও বনি তার প্রথম স্ত্রীকে ডিভোর্স দেননি। বনি-শ্রীদেবীর বিয়ের কয়েক মাসের মধ্যেই তাদের বড় মেয়ে জাহ্নবীর জন্ম হয়।

কঙ্কনা সেন শর্মা : বেশ কয়েক বছর অভিনেতা রণবীর শোরের সঙ্গে প্রেমপর্ব চলার পর ২০১০-এ দুজনে বিয়ে করেন। এদিকে বিয়ের ঠিক পরেই ২০১১ সালের শুরুর দিকে এক পুত্রসন্তানের জন্ম দেন কঙ্কনা। এই থেকে বলিউডে আলোচনা শুরু হয়ে যায়, বিয়ের আগে থেকেই হয়তো অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন কঙ্কনা। তবে এই বিষয়টি কঙ্কনা নিজে কখনও স্বীকার করেননি।

আনুশকা শঙ্কর : রবিশঙ্করের মেয়ে আনুশকা শঙ্করও বিয়ের আগে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছিলেন।

নীনা গুপ্তা : ক্রিকেট কিংবদন্তি স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডসের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল নীনা গুপ্তার। বিয়ের আগেই অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন নীনা গুপ্তা। তাদের মেয়ের নাম মাসাবা।

সারিকা : অভিনেত্রী সারিকার সঙ্গে কমল হসানের ভালবাসার সম্পর্ক যখন শুরু হয় তখনও কমলের সঙ্গে তাঁর প্রথম স্ত্রী-এর বিবাহবিচ্ছেদ হয়নি। এই সময়েই সারিকা কমলের সন্তান গর্ভে ধারণ করেন। এই সন্তানই বর্তমানের বিখ্যাত অভিনেত্রী শ্রুতি হসান।

বীণা মালিক : নানা কারণে তিনি বিভিন্ন সময়ে বিতর্কের কেন্দ্রে থেকেছেন। তার সন্তানধারণের বিষয়টি নিয়েও নানা কথা শোনা যায়। সেগুলির মধ্যে একটি হল, দুবাইয়ের এক ব্যবসায়ীর সঙ্গে বিয়ে হওয়ার সময়েই গর্ভবতী ছিলেন বীণা। এমনকি লোকে এমন কথাও বলে যে, এই সন্তানের প্রকৃত পিতা নাকি বীণার প্রাক্তন এক প্রেমিক।

মহিমা চৌধুরী : ববি মুখোপাধ্যায়কে বিয়ে করার আগেই অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছিলেন বলিউড অভিনেত্রী মহিমা চৌধুরী। তার আগে বেশ কিছু তারকার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে ছিলেন তিনি। তবে ববির সঙ্গে মহিমার বিয়ের খবরটা আচমকাই প্রকাশ পায়। আর ববিকে বিয়ের কয়েক মাসের মধ্যেই এক কন্যা সন্তানের মা হন মহিমা।

সেলিনা জেটলি : দুবাইয়ের হোটেল ব্যবসায়ী পিটার হাগের সঙ্গে বেশ কয়েকবছর প্রেমপর্ব চলার পরে সেলিনার সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয় ২০১১-র জুলাইয়ে। পরের মার্চেই যমজ সন্তানের মা হন সেলিনা।

অমৃতা অরোরা : ব্যবসায়ী শাকিল লাদাকের সঙ্গে অমৃতার বিয়ে হয় অত্যন্ত দ্রুততার সঙ্গে এবং গোপনে। বিয়ের কয়েকমাস পরেই সন্তানের জন্ম দেন অমৃতা। স্বভাবতই গুঞ্জন শুরু হয়ে যায় যে, অমৃতা হয়তো বিয়ের আগে থেকেই গর্ভবতী ছিলেন।

 

মিয়ানমারে অনুষ্ঠেয় এশিয়া ও ইউরোপের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠক (আসেম) সামনে রেখে রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে মিয়ানমারের সীমান্তসংলগ্ন চারটি প্রতিবেশী দেশের সহায়তা চেয়েছে বাংলাদেশ।

ভারত, চীন, থাইল্যান্ড ও লাওস এ চারটি দেশের রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের নিজের দেশে ফেরাতে এ সহযোগিতা চান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

গতকাল দুপুরে রাজধানীর রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে চার রাষ্ট্রদূতকে রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে গৃহীত দ্বিপক্ষীয় ও বহুপক্ষীয় উদ্যোগের বিস্তারিত অবহিত করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ১০ লাখেরও বেশি মিয়ানমার নাগরিকের অস্থায়ী আশ্রয় গ্রহণে বাংলাদেশ গভীর সংকটে পড়েছে। বৈঠকে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ শাহরিয়ার আলমও উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকসংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো এ তথ্য জানিয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানান, আসন্ন এশিয়া-ইউরোপ মিটিং (আসেম) সম্মেলনকে রোহিঙ্গা সংকট নিরসনের লক্ষ্যে গুরুত্বপূর্ণ এক প্লাটফরম বলে বিবেচনা করা হচ্ছে। এ সম্মেলনের সাইডলাইনে অং সান সু চির সঙ্গেও বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে আলোচনা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এ সম্মেলনে এশিয়া ও ইউরোপের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরাও যোগ দিচ্ছেন বলে আশা করা হচ্ছে। এর আগে চীন, জাপান, জার্মানি ও সুইডেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা রোহিঙ্গা পরিস্থিতি জানতে বাংলাদেশ সফর করেছেন। অন্যদিকে ১৫ নভেম্বর কয়েক ঘণ্টার জন্য মিয়ানমার সফরে যাচ্ছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন।

২০ ও ২১ নভেম্বর মিয়ানমারের রাজধানী নেপিদোয় আসেম পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকে যোগ দিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি। মাহমুদ আলী ১৯ নভেম্বর মিয়ানমার যাচ্ছেন।

সূত্র জানান, মিয়ানমারের সীমান্তসংলগ্ন ওই চার দেশের রাষ্ট্রদূত বৈঠকে রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে গতকাল বাংলাদেশের এ সহযোগিতা চাওয়ার কথা তাদের স্ব দেশের সরকারের কেন্দ্রীয় পর্যায়ে (হেডকোয়ার্টারে) জানাবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

বৈঠকে ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা, চীনের রাষ্ট্রদূত মা মিং কিয়াং, থাইল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত প্যানপিমন সোয়াননাপোন্গসে, দিল্লিতে লাওসের রাষ্ট্রদূত (বাংলাদেশেরও দায়িত্বপ্রাপ্ত) সাওদাম সাকোনিনহোসহ উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তি : চার দেশের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠক প্রসঙ্গে গতকাল সন্ধ্যায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ১৬ ও ১৭ নভেম্বর পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীকে মিয়ানমার সরকারের পক্ষ থেকে সে দেশ সফরের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল।

তবে, ১৮ ও ১৯ নভেম্বর চীন, জাপান, জার্মানি ও সুইডেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা বাংলাদেশ সফরে আসছেন। তাদের সফরকালে তাকে (মাহমুদ আলী) ঢাকায় থাকতে হবে।

এজন্য তিনি দুই দিন পর ২০-২১ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় আসেম সম্মেলনকালে মিয়ানমার সফরের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে আসেম সম্মেলনের পরও দুই দেশের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় আলোচনার লক্ষ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী আরও দুই দিন মিয়ানমারে অবস্থান করার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন।

জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারীর পরিচয়পত্র পেশ : জাতিসংঘের নবনিযুক্ত আবাসিক সমন্বয়কারী মিয়া সেপ্পো গতকাল রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলীর কাছে পরিচয়পত্র পেশ করেন।

মিয়া সেপ্পো তার নিয়োগসংক্রান্ত জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের একটি চিঠি হস্তান্তর করেন। তিনি রবার্ট ওয়াটকিনসের স্থলাভিষিক্ত হলেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ সময় রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে জাতিসংঘের বিভিন্ন বিভাগের সহায়তার ভূয়সী প্রশংসা করেন।

 

 

ব্রেকফাস্টে ব্রেড-বাটার! আর বিকালের স্ন্যাক্স অফিসের স্যান্ডউইচ। মাঝে কখনও তেল চ্যাপচ্যাপে পরটা, তো কখনও অন্য কোনও ফাস্ট ফুড। এই তো হল সারা দিনের খাবার রুটিন, যা শুধু আমাদের মৃত্যুর দিকে আমাদের ঠেলে দিচ্ছে না, সেই সঙ্গে অনেকাংশে পঙ্গুও বানাচ্ছে। বিশেষত হওয়াট ব্রেড বা গোদা বাংলায় যাকে আমরা পাউরুটি বলে থাকি, তা যে কত রকমভাবে আমাদের ক্ষতি করছে, সে বিষয়ে কারওই খেয়াল নেই।

গবেষণা বলছে উত্তর এবং পূর্ব ভারতে প্রতি ১০০ জনের মধ্যে ১ জন সিলিয়াক ডিজিজ নামে একটি ভয়ঙ্কর অটোইমিউন ডিজিজে আক্রান্ত হচ্ছে শুধুমাত্র পাউরুটির কারণে। শুধু তাই নয়, আরও নানা ধরনের মারণ রোগ শরীরে এসে বাসা বাঁধছে এই খাবরটির কারণে। তাই তো চিকিৎসকেরা আর কাল বিলম্ব না করে যত শীঘ্র সম্ভব পাউরুটি থেকে দূরত্ব বাড়ানোর পরামর্শ দিচ্ছেন। আর যদি কেউ এমনটা না করেন, তাহলে কি রোগ হতে পারে জানেন?

. শরীরে পুষ্টির ঘাটতি দূর হয়: অনেকই মনে করেন পাউরুটি বেশ স্বাস্থ্যকর। কিন্তু এই ধরণা একেবারেই ঠিক নয়। কারণ ময়দা বানানোর সময় এর শরীরে কোনও ধরনের পুষ্টিকর উপাদানই আর অবশিষ্ট থাকে না। ফলে পাউরুটি খেলে শরীরের তো কোনও উপকার হয়ই না, উল্টে ময়দা পেটের রোগে আক্রান্ত হওয়ার পথকে প্রশস্ত করে, সেই সঙ্গে শরীরের অন্দরে মারাত্মক ক্ষতি সাধনও করে থাকে। তাই এই খাবারটি থেকে দূরে থাকাটাই শ্রেয়!

. রক্তে শর্করার মাত্রা বৃদ্ধি পায়: একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে পাউরুটি শরীরে প্রবেশ করার পর হজম হতে সময় নেয়, কিন্তু যে মুহূর্তে হজম হয়, তখনই রক্তে শর্করার মাত্রা বাড়তে শুরু করে। ফলে ইনসুলিনের ক্ষরণও বেড়ে যায়। এমনটা দিনের পর দিন হতে থাকলে শরীরের অন্দরে ইনসুলিন রেজিস্টেন্স তৈরি হয়ে যায়। ফলে টাইপ ২ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা মারাত্মক বৃদ্ধি পায়। সেই কারণেই তো যাদের পরিবারে এই মারণ রোগটির ইতিহাস রয়েছে, তাদের পাউরুটি থেকে শত হস্ত দূরে থাকার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকেরা। প্রসঙ্গত, ২০১০ সালে আমেরিকান জার্নাল অব ক্লিনিকাল নিউট্রিশিয়ানে প্রকাশিত একটি গবেষণাপত্রে উল্লেখ ছিল, যারা হোল গ্রেন খাবার বেশি মাত্রায় খায়, তাদের শরীরে শর্করার মাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ার কেনাও আশঙ্কাই থাকে না। কিন্তু এমনটা না করে যারা রিফাইন ময়দা দিয়ে তৈরি খাবার বেশি মাত্রায় খেয়ে থাকেন, যেমন ধরুন পাঁউরুটি, তাদের শরীরে ডায়াবেটিস রোগ বাসা বাঁধার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

৩. ওজন বৃদ্ধি পায়: গবেষণা বলছে পাউরুটি খাওয়ার পর শরীরে একদিকে যেমন শর্করার মাত্রা বৃদ্ধি পায়, তেমনি অন্যদিকে কার্বোহাইড্রেটের পরিমাণও বাড়তে শুরু করে। ফলে এমমনটা যদি কয়েক দিন ধরে চলতে থাকে, তাহলে ওজন বাড়তে শুরু করে। সেই সঙ্গে লেজুড় হয় কোলেস্টেরল এবং উচ্চ রক্তচাপের মতো রোগও।

৪. ডিপ্রেশনে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে: ২০১৫ সালে জার্নাল অব ক্লিনিকাল নিউট্রিশনে প্রকাশিত এক রিপোর্ট অনুসারে পাউরুটি এবং ডিপ্রেশনের মধ্যে গভীর যোগ রয়েছে। বিশেষত পোস্ট মেনোপজাল সময়ে মহিলাদের ডিপ্রেশনে আক্রান্ত হওয়ার পিছেন এই খাবরটি যে বিশেষ ভাবে দায়ি, সে বিষয়ে আর কোনও সন্দেহ নেই। তাই এবার থেকে ব্রেড-বাটার খাওাযার আগে একবার অন্তত ভেবে দেখবেন, খাবারের নামে বিষ খাচ্ছেন না তো!

৫. শরীরে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধি পায়: টানা ১২ সপ্তাহ ৩৬ জন মানুষের উপর গবেষণা চালিয়ে বিশেষজ্ঞরা লক্ষ করেছেন, নিয়মিত পাউরুটি বা ময়দা দিয়ে তৈরি কোনও খাবার খেলে শরীরে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা মারাত্মক বৃদ্ধি পায়। আর যেমনটা আপনাদের সকলেরই জানা আছে যে কোলেস্টরল আমাদের হার্টের জন্য় একেবারেই ভাল নয়। কারণ এই উপাদানটির পরিমাণ রক্তে বাড়তে থাকলে হার্ট অ্যাটাক সহ নানাবিধ হার্টের রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। তথ্যসূত্রঃ বোল্ডস্কাই অবলম্বনে

 

আমাদের অনেকেরই শোওয়ার ঘরে বিছানার অবস্থান, এবং আমাদের শোওয়ার অভ্যাস এমনই যে ঘু‌মনোর সময়ে আমাদের পা দু’টি থাকে ঘরের দরজার দিকে মুখ করে। ভারতীয় ও চিনা সংস্কৃতিতে এইভাবে একমাত্র মৃতদেহকে শায়িত রাখার নিয়ম। এমনকী, বাস্তু শাস্ত্র ও ফেং শুইতেও দরজার দিকে পা করে শোওয়া অমঙ্গলজনক বলে মনে করা হয়।

ফেং শুইতে ‘চি’ নামের সর্বজনীন শক্তিকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়। বলা হয়, মানবশরীরের অভ্যন্তর ও বাইরে এই শক্তিই সমস্ত কাজকে নিয়ন্ত্রণ করছে। এই ‘চি’- এর আবার দু’টি ধরন রয়েছে—শুভ ও অশুভ। আমরা যখন ঘুমোই তখন একটানা সাত-আট ঘন্টার জন্য আমাদের শরীর একেবারে নিশ্চল অবস্থায় থাকে। এই সময় আমাদের শরীরের চারদিকে ইতিবাচক বা মঙ্গলজনক ‘চি’ একটি সুরক্ষাবলয় গড়ে তোলে। কিন্তু দরজার দিকে পা করে যদি ঘুমনো হয়, তা হলে এই মঙ্গলজনক ‘চি’ শরীর থেকে নির্গত হয়ে দরজা দিয়ে ঘরের বাইরে চলে যায়।

শুধু তাই নয়, ক্ষতিকর ‘চি’ ওই দরজার পথেই ঘরে প্রবেশ করে, এবং পা-এর দিক থেকে আক্রমণ করে শরীরকে। ফেং শুই বলে, আমরা যখন ঘুমোই, তখন আমাদের শরীরের অভ্যন্তরস্থ আত্মা একেবারে অরক্ষিত অবস্থায় থাকে। সেই সময়ে অশুভ ‘চি’- এর আকর্ষণে আত্মা শরীর ছেড়ে বেরিয়ে পর্যন্ত যেতে পারে। যার পরিণাম মৃত্যু। মৃত ব্যক্তির উপরে অবশ্য ক্ষতিকর বা উপকারী—কোনও ‘চি’- এরই প্রভাব নেই। তাই মৃতদেহ শায়িত রাখা হয় দরজার দিকে পা করে।

বাস্তু বা ফেং শুই মতে তাই কখনওই দরজার দিকে পা করে শোওয়া উচিৎ নয়। খাট বা শোওয়ার অভ্যাস প্রয়োজন মতো বদলে নিতে হবে। যদি কোনও কারণে তা একান্তই অসম্ভব হয়, তাহলে ঘুমনোর সময়ে ঘরের দরজা বন্ধ করে ঘুমোতে হবে, এমনটাই বলছে ফেং শুই।

 

বকেয়া বেতন ভাতা পরিশোধ ও বন্ধ কারখানা চালুর দাবিতে গাজীপুরে ল্যাক্সমা সোয়েটার নামে একটি তৈরি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা বিক্ষোভ এবং অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে। অবস্থান কর্মসূচি শেষে তাদের দাবি সংবলিত একটি স্মারকলিপি জেলা প্রশাসন কার্যালয়ে জমা দেয়া হয়।

বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা জানান, মহানগরের বড়বাড়ি জয়বাংলা সড়কের ল্যাক্সমা সোয়েটার কারখানায় গত ২৯ অক্টোবর পর্যন্ত শ্রমিকরা নিয়মিত কাজ করে আসছিল। কিন্তু পরদিন সকালে কাজ করতে এসে শ্রমিকরা কারখানার গেইটে তালা ও সকল সেকশন অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণার নোটিশ দেখতে পান। কাজের অর্ডার না থাকায় লোকসান ও কর্মসংকট তৈরি হওয়ার কারণে কারখানাটি পরিচালনা করা সম্ভব হচ্ছে না মর্মে নোটিশে উল্লেখ করেন কর্তৃপক্ষ। তবে শ্রমিকদের বেতন ভাতা ২৬ নভেম্বর প্রদান করা হবে বলে নোটিশে জানানো হয়। এতে কয়েকশ শ্রমিক বিক্ষুব্ধ হয়ে কারখানা ফটকে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে। পরে তাদের দাবি আদায়ের লক্ষ্যে গত কয়েকদিন ধরেই ওই কারখানার সামনে বিক্ষোভ চলছিল।

বুধবার সকালে শ্রমিকরা কারখানার সামনে থেকে মিছিল সহকারে গাজীপুরের জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে এসে জড়ো হয়। সেখানে প্রায় ১ ঘণ্টা অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন তারা। পরে বন্ধ কারখানা খুলে দেয়া ও ১১ শত শ্রমিকের পাওনা বকেয়া বেতন ভাতা পরিশোধের দাবি সংবলিত একটি স্মারকলিপি জেলা প্রশাসকের কাছে জমা দেয়া হয় ।

 

 

হস্তমৈথুন বা স্বমৈথুন টিন এজারদের মধ্যে স্বাভাবিক একটি প্রক্রিয়া। কিন্তু অতিরিক্ত হস্তমৈথুন মাঝেমধ্যেই খুব বড় সমস্যা তৈরি করে বিশেষত টিন এজার বয়সে।

কিভাবে দূর করবেন এই সমস্যা? রইল বিশেষজ্ঞদের দেওয়া কয়েকটি টিপস:

বেশিরভাগ সময় পরিবার-পরিজনেদের সঙ্গে থাকার চেষ্টা করুন। নিজেকে একলা ঘরে বন্দী করে রাখবেন না। তাহলে এই প্রবণতা কমবে।

যতটা সম্ভব কাজে নিজেকে নিয়োজিত রাখুন। তাহলেও এই প্রবণতা কমতে পারে।

পর্ন দেখা কমান। পর্ন থেকে নিজেকে দূরে রাখুন।

যে সমস্ত বন্ধু সবসময় পর্ন নিয়েই আড্ডা দেয় বা কথা বলে, তাদের থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করুন।

নিজেকে বোঝানোর চেষ্টা করুন, একদিনেই নিজেকে পরিবর্তন করা যাবে না। তাই বলে চেষ্টা করা ছেড়ে দেওয়া যাবে না।

বাস্তবসম্মত একটি কাজ করতে পারেন। যে কম্পিউটারে পর্ন দেখেন, সেটি পারলে বাড়ির লিভিং রুমে রাখুন। পর্ন দেখা কমলে হস্তমৈথুনের অভ্যাসও কমবে।

দুপুরে দিকে বা রাতে সবথেকে বেশি হস্তমৈথুনের প্রবণতা জাগে। যখনই এই ইচ্ছে হবে, তখন কয়েকটি ফ্রি হ্যান্ড যোগাসন করুন। ম্যাজিকের মতো ফল পাবেন।

 

শুভাশিসের সঙ্গে ঘটে যাওয়া বিষয়টি নিয়ে মাশরাফী স্বাভাবিক আচরণ করলেও, তার ভক্তরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হৈ-চৈ শুরু করেছেন। রীতিমতো ইভেন্ট খুলে শুভাশিসের বিচার দাবি করা হচ্ছে। এসব দেখে সংবাদ সম্মেলনের পর ভিডিওবার্তায় এসে আরেকবার ক্ষমা চেয়ে সবাইকে বিষয়টি নিয়ে বাড়াবাড়ি না করতে অনুরোধ করেছেন মাশরাফী।

‘আমি হাতজোড় করে বলছি বাড়াবাড়ি করবেন না। জিনসটা বেশি বাড়তে দিয়েন না। তাহলে সেটা শুভাশিস কিংবা আমার; কারো জন্যই ভালো হবে না।’ ভক্তদের উদ্দেশ্যে বলেন মাশরাফী।

বুধবার চিটাগাং ভাইকিংসের বিপক্ষে রংপুর রাইডার্সের রান তাড়ার ১৭তম ওভারে ঘটনাটি ঘটে। শুভাশিসের করা ইয়র্কর ডিফেন্স করেন মাশরাফী। নিজের বলে ফিল্ডিং করেই স্ট্রাইক প্রান্তে বল ছুঁড়তে উদ্যত হন তরুণ পেসার। তখন মাশরাফী শুরুটা করেন। ইশারায় বললেন, ‘ফিরে যা’।

মাশরাফীর দিক থেকে এমন বার্তা পেয়ে শুভাশিস তেড়ে আসেন। সতীর্থরা থামানোর চেষ্টা করলে আরও বেশি উত্তেজিত হয়ে পড়েন।

মাশরাফী সংবাদ সম্মেলনের পর ভিডিওবার্তায়ও বলেন, ‘আমি শুরু করেছিলাম বলেই শুভাশিস অমন আচরণ করে। ভুলটা আমারই। ও আমার ছোট ভাইয়ের মতো। এক সঙ্গে আমরা অনেক লড়াই করে বাংলাদেশের হয়ে খেলছি। ভবিষ্যতেও খেলবো। তাই মাঠের বিষয় নিয়ে এত হৈ-চৈ করার কিছু নেই।’

ফের একসঙ্গে মাশরাফি ও শুভাশিস ফেসবুক লাইভে এসে আরেকটি ভিডিও বার্তা দেন ।